advertisement
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

বেহাল সরাইল-অরুয়াইল সড়ক

সরাইল প্রতিনিধি
১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০ ০০:০০ | আপডেট: ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২০ ২১:৪১
advertisement

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইল উপজেলার সরাইল-অরুয়াইল সড়কটি বন্যায় ভাঙনের পর যান চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। দীর্ঘ ১০ কিলোমিটার এই সড়কের প্রায় ৫ কিলোমিটার কার্পেটিং উঠে গেছে এবং বন্যার পানির স্রোতে দুপাশের মাটি ও ব্লক সরে ভেঙে গেছে।

সরেজমিন দেখা গেছে চুন্টা থেকে অরুয়াইল পর্যন্ত নানা রকমের খানাখন্দ ও ছোট-বড় গর্ত দিয়ে সিএনজি, অটোরিকশা ও মালবাহী যান চলাচলে দুর্ভোগে পড়তে হচ্ছে।

অরুয়াইল, পাকশিমুল ও চুন্টাসহ কয়েকটি ইউনিয়নের মানুষ জীবিকার সন্ধানে জেলা ও উপজেলা সদরে আসতে দুর্ভোগে পড়েন। এমনকি এই এলাকার রোগীরাও জরুরিসেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন। ৩০ মিনিটের পরিবর্তে দুই ঘণ্টা সময় নিয়ে অতিরিক্ত ভাড়া দিয়ে যাত্রীরা গন্তব্যে পৌঁছছেন। মাঝে মাঝে সিএনজি অটোরিকশা না থাকায় স্কুল, কলেজ, মাদ্রাসা ও হাট-বাজারে হেঁটে যেতে হচ্ছে এলাকাবাসীকে।

সরাইল অরুয়াইল সিএনজি অটোরিকশা শ্রমিক ইউনিয়নের সেক্রেটারি মো. রাসেদ মিয়া জানান, এই রাস্তা দিয়ে গাড়ি আসা-যাওয়ার পর গাড়ি নষ্ট হয়ে যায়। এজন্য ড্রাইভাররা এ রাস্তায় গাড়ি চালাতে চান না। যাত্রীদের কষ্ট দেখে অনেক অনুরোধের পর দু-একজন ড্রাইভার যেতে রাজি হন।

এ ব্যাপারে সরাইল উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ রফিক উদ্দিন ঠাকুর বলেন, এটি একটি ব্যস্ততম সড়ক। বন্যায় ভাঙনের ফলে এই সড়ক দিয়ে ঝুঁকি নিয়ে যানবাহন চলাচল করছে। সড়কটি মজবুত ও টেকসই করতে দুপাশে মোটা রডের ডালাইসহ পুনর্নির্মাণ করার জন্য ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে দরখাস্ত পাঠানো হয়েছে। বর্তমানে সড়কটি পুনর্নির্মাণের জন্য ডিজাইনের কাজ চলছে।

সরাইল উপজেলা প্রকৌশলী মোসা. নিলুফা ইয়াছমিন বলেন, জিওবি প্রকল্পের আওতায় সড়কটি পুনর্নির্মাণের জন্য ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে আবেদন করা হয়েছে। আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে সয়েল টেস্ট করার জন্য আমাদের একটি চিঠি দিয়েছেন। বর্তমানে সয়েল টেস্ট কার্যক্রম চলছে। সয়েল টেস্ট শেষে সড়ক নির্মাণের বাকি প্রক্রিয়া শুরু হবে।

advertisement
Evaly
advertisement