advertisement
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

২ মাসের স্বাক্ষর নিয়ে এক মাসের চাল বিতরণ

বরিশাল প্রতিনিধি
১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০ ০০:০০ | আপডেট: ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২০ ২১:৪১
advertisement

বরিশালের বাকেরগঞ্জে দুস্থদের জন্য বরাদ্দের ভিজিডি চাল আত্মসাতের অভিযোগ পাওয়া গেছে। ভিজিডি কার্ডে দুই মাসের স্বাক্ষর আদায় করে এক মাসের চাল দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে উপজেলার দাড়িয়াল ইউনিয়নের চেয়ারম্যান জব্বার বাবুলের বিরুদ্ধে। ইউনিয়নের ২৭২টি ভিজিডি কার্ডের প্রায় অর্ধেকে দুই মাসের স্বাক্ষর রেখে এক মাসের চাল বিতরণ করা হয় বলে জানা গেছে।

এর প্রতিবাদে স্থানীয়রা বিক্ষোভ করলে ঘটনাস্থলেই ট্যাগ অফিসার উপস্থিত হয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। পরে ট্যাগ অফিসারের উপস্থিতিতে এক মাসের চাল বিতরণ করা হয়। ভিজিডি কার্ডে দুই মাসের স্বাক্ষর রাখার বিষয়টি স্বীকার করলেও ঘটনাস্থলে চেয়ারম্যান জব্বার বাবুল উপস্থিত ছিলেন না বলে জানান তিনি। তবে ভুক্তভোগীদের দাবি, জব্বার বাবুলের উপস্থিতিতেই এ অনিয়ম হয়েছে। বৃহস্পতিবার দুপুরে দাড়িয়াল ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ে এ ঘটনা ঘটে।

ভুক্তভোগী সুপ্রিয়া ঘোষাল বলেন, আমার ৫৭৪ নম্বর বইটিতে আগস্ট ও সেপ্টেম্বরে চাল নিয়েছি বলে স্বাক্ষর করা হয়। তবে আমাকে কেবল আগস্টের ৩০ কেজি চাল দিয়ে সেখান থেকে বের করে দেওয়া হয়। বিষয়টি আমি চেয়ারম্যান জব্বার বাহনকে অবহিত করলে তিনি আমাকে ধমক দিয়ে যা পেয়েছি তা নিয়ে চলে যেতে বলেন।

একই অভিযোগ করেন রাশেদা বেগম নামের অপর এক ভুক্তভোগী। তিনি দাবি করেন তার ৫০৯ নম্বর বইটিকে আগস্ট ও সেপ্টেম্বরের চাল নেওয়া হয়েছে এই মর্মে স্বাক্ষর করা হয়। তবে তাকে ৩০ কেজি চাল দিয়ে পাঠিয়ে দেওয়া হয়। তিনি চেয়ারম্যান ও মেম্বারদের বিষয়টি অবহিত করলে তারা তাকে ধমক দিয়ে পরিষদ ভবন থেকে বের করে দেন।

এদিকে হিনু বেগম নামে অপর এক ভুক্তভোগী জানান, তার ৪৯৪ নম্বর বইটিতে আগস্ট-সেপ্টেম্বরে চাল নিয়েছেন এই মর্মে স্বাক্ষর দেয়। এর মধ্যে ঘটনাস্থলে সমবায় কর্মকর্তা এসে পড়েন। তখন তিনি বইটি পরখ করে দেখলে সেপ্টেম্বরের স্বাক্ষরের ঘরটি কেটে দেন। আর এমন অনিয়ম চেয়ারম্যান জব্বার বাবুলের উপস্থিতিতে হয়েছে বলেও দাবি করেন এ ভুক্তভোগী।

দাড়িয়াল ইউপি চেয়ারম্যান জব্বার বাবুল বলেন, ভিজিডির চাল বিতরণের সময় আমি উপস্থিত ছিলাম না। বরিশাল সার্কিট হাউসে একটি সভায় ছিলাম। আমি শুনেছি কিছু বইতে দুই মাসের স্বাক্ষর করা হয়েছে। এর পর সঙ্গে সঙ্গে তা সংশোধন করার জন্য বলেছি। পরে ট্যাগ অফিসার রিয়াদ খানের উপস্থিতিতে চাল বিতরণ করা হয়েছে। তখন কোনো অনিয়ম হয়নি।

বাকেরগঞ্জ উপজেলা সমবায় কর্মকর্তা ও ট্যাক অফিসার রিয়াদ খান বলেন, ভিজিডি চাল বিতরণে অনিয়ম হচ্ছে এমন খবর শুনে আমি দাড়িয়াল ইউনিয়নে গিয়েছিলাম। সেখানে গিয়ে আমি নিজে উপস্থিত থেকে ৩০ কেজি করে চাল মেপে আগস্টের চাল বিতরণ করি। তবে এর আগেই যে বইগুলো স্বাক্ষর করে চাল দেওয়া হয়েছে তা আমি দেখতে পারিনি। ওই বইগুলো তলব করা হয়েছে বলে জানান তিনি।

বাকেরগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মাধবী রায় বলেন, ভুক্তভোগীরা অভিযোগ দিলে অবশ্যই ব্যবস্থা নেওয়া হবে। তিনি বলেন, ট্যাগ অফিসার ঘটনাস্থলে উপস্থিত ছিলেন। বিষয়টি তিনি দেখেছেন। যদি ঘটনার সত্যতা পাওয়া যায় তা হলে অবশ্যই ব্যবস্থা নেওয়া হবে।.

advertisement
Evaly
advertisement