advertisement
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

ইরানের ওপর নিষেধাজ্ঞা ফেরাতে মার্কিন ঘোষণা প্রত্যাখ্যান জাতিসংঘের

অনলাইন ডেস্ক
২১ সেপ্টেম্বর ২০২০ ১২:৩০ | আপডেট: ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০ ১২:৫৩
জাতিসংঘ মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেস
advertisement

ইরানের ওপর জাতিসংঘের করা নিষেধাজ্ঞাগুলো ফেরানোর বিষয়ে যুক্তরাষ্ট্র একতরফা কিছু ঘোষণা দিয়েছে; তা প্রত্যাখ্যান করেছে জাতিসংঘ। সংস্থাটির মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেস এ বিষয়ে বলেছেন, ‘যুক্তরাষ্ট্রের এই ঘোষণায় অনিশ্চয়তা বাড়বে। নিরাপত্তা পরিষদ এখনো এ বিষয়ে কোনো সিদ্ধান্ত নেয়নি। এ বিষয়ে তাই কোনো সিদ্ধান্তে আসা ঠিক হবে না।’

যুক্তরাষ্ট্রের ঘোষণার পরিপ্রেক্ষিতে গুতেরেস সংঘের নিরাপত্তা পরিষদের প্রেসিডেন্টকে একটি চিঠি দিয়েছেন। চিঠিতে পরিষদের অনুমোদন ছাড়া নিষেধাজ্ঞা আবার ফিরবে না বলে জানানো হয়েছে। এ তথ্য জানিয়েছে বার্তা সংস্থা এপি।

এর আগে যুক্তরাষ্ট্রের ঘোষণার বিষয়ে এক বিবৃতিবে মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও বলেছেন, ইরানের ওপর জাতিসংঘ আরোপিত আগের সব নিষেধাজ্ঞা কার্যত ফিরিয়ে আনাকে স্বাগত জানানো হচ্ছে। ঘোষণিাটি আগামী রোববার গ্রিনিচ মান সময় ০০:০০টা থেকে কার্যকর হচ্ছে। বিবৃতিতে অবরোধের নীতি কেউ অমান্য করলে শাস্তি দেওয়া হবে বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র।

পরমাণু কার্যক্রম নিয়ে ২০১৫ সালে ইরানের সঙ্গে ছয় শক্তিধর দেশ যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, রাশিয়া, ফ্রান্স, চীন ও জার্মানির ঐতিহাসিক জয়েন্ট কম্প্রিহেনসিভ প্ল্যান অব অ্যাকশন (জেসিপিওএ) চুক্তি স্বাক্ষর হয়। ওবামা প্রশাসনের সময়কার এ চুক্তি থেকে পরবর্তীতে যুক্তরাষ্ট্রকে প্রত্যাহার করে নেয় ট্রাম্প প্রশাসন। ফলে এ চুক্তি বাস্তবায়নের জন্য তাদের বর্তমান প্রচেষ্টা এবং ইরানের ওপর জাতিসংঘের নিষেধাজ্ঞাগুলো পুনরায় চালুর দাবি পুরোপুরি অবান্তর বলে মনে করছে জাতিসংঘ।

এর আগে ইরানের ওপর আরোপিত অস্ত্র নিষেধাজ্ঞা অনির্দিষ্টকালের জন্য বাড়াতে নিরাপত্তা পরিষদে তোলা যুক্তরাষ্ট্রের প্রস্তাবের পক্ষে ভোট দেওয়া থেকে বিরত ছিল যুক্তরাজ্য, ফ্রান্স, জার্মানিসহ ১১টি দেশ। ওই ভোটাভুটিতে শুধু ডমিনিকান রিপাবলিকের ভোট পায় দেশটি। ইরান ও প্রভাবশালী দেশগুলোর মধ্যে হওয়া ২০১৫ সালের পারমাণবিক চুক্তির অধীনে অস্ত্র নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ আগামী অক্টোবরে শেষ হচ্ছে।

advertisement
Evaly
advertisement