advertisement
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

ইব্রার জোড়া গোলে এসি মিলানের জয়

ক্রীড়া ডেস্ক
২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০ ০০:০০ | আপডেট: ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০ ২১:৫৪
advertisement

যেখানে ২০১৯-২০ মৌসুম শেষ করেছিল ইতালিয়ান ক্লাব এসি মিলান, সেখানেই যেন নতুন মৌসুম শুরু করল তারা। ইতালিয়ান সিরিএর নতুন মৌসুমের প্রথম ম্যাচে ২-০ গোলে জিতেছে মিলানের ঐতিহ্যবাহী ক্লাবটি। বলোনিয়ার বিপক্ষে এ জয়ে দুটি গোলই করেছেন জøাতান ইব্রাহিমোভিচ। এর আগে উয়েফা ইউরোপা লিগের বাছাইপর্বের ম্যাচেও মিলানকে জয় এনে দেওয়া গোল করেছিলেন ইব্রা। সোমবার রাতে নিজেদের ঘরের মাঠেই জিতেছে এসি মিলান। এ জয়ের ফলে ২০১৭-১৮ মৌসুমের পর এবারই প্রথম আসরের প্রথম ম্যাচে জয় পেল ক্লাবটি। ম্যাচের ৩৫ মিনিটের সময় দুর্দান্ত এক হেডারে প্রথম গোলটি করেন ইব্রাহিমোভিচ। থিও হার্নান্দেজের ক্রসে হেডটি করেন তিনি। দ্বিতীয়ার্ধে ফিরে ৫১ মিনিটের সময় পেনাল্টি থেকে ম্যাচের দ্বিতীয় ও শেষ গোল করেন এ সুইডিশ তারকা ফরোয়ার্ড। হলিউডের অভিনেতা ব্র্যাড পিট অভিনীত ‘বেনজামিন বাটন’ সিনেমার কথা মনে করিয়েছেন জøাতান ইব্রাহিমোভিচ, যেখানে বেনজামিন বৃদ্ধ না হয়ে দিন দিন তরুণ হতে থাকেন।

ম্যাচের পর তিনি বলেন, ‘আমি ঠিক আছি। কাজ করছি। এটা মৌসুমের দ্বিতীয় অফিসিয়াল ম্যাচ ছিল। আমরা জিতেছি। যদি আমার বয়স ২০ হতো, তা হলে হয়তো আরও দুটি গোল বেশি দিতে পারতাম। আমি বেনজামিন বাটনের মতো। বৃদ্ধ হয়ে জন্মেছি, মরব তরুণ হয়ে।’ ম্যাচ জিতলেও সন্তুষ্ট নন জøাতান ইব্রাহিমোভিচ। লক্ষ্য ইতালিয়ান শিরোপা ঘরে তোলার। তিনি বলেন, আমরা এখনো শতভাগ দিতে পারছি না। কিছু ভুল হচ্ছে, যা করা উচিত নয়। তরুণ খেলোয়াড়রা নিজেদের কাজ ঠিক মতোই করছে। তারা সঠিক নিয়ম মেনে চলছে। এই বছর প্রতিটি ম্যাচ গুরুত্বের সঙ্গে খেলতে হবে। আত্মবিশ্বাস নিয়ে মাঠে নামতে হবে। প্রতিটা ম্যাচই আমাদের জন্য ফাইনাল। এটাই টেবিলের ওপরে থাকার উপায়।’ বয়সের ভার বাড়ছে। যদিও সবাইকে অবাক করে পুরো সময়ই তাকে খেলাচ্ছেন এসি মিলান কোচ স্টেফানো পিওলি। ফলও পাওয়া যাচ্ছে। ইব্রা বলেন, ‘আমি দায়িত্ব নিতে পছন্দ করি। সবচেয়ে বড় চাপ নিজেই নিজেকে দেই। কেউ আমার বয়স নিয়ে কথা বলুক সেটা আমি চাই না। আমি চাই সবাইকে এক কাতারে রেখে মাপতে। আমার বয়স ৩৮, তাই বলে কোনো বাড়তি সুবিধা লাভ করতেও আগ্রহী নই আমি।’

দিনদশেক পর সুইডিশ তারকা ইব্রা ৩৯ বছরে পা দিচ্ছেন। যেখানে ৩০ বছরের পর থেকে অনেক ফুটবলারই অবসরের দিকে পা বাড়ান, সেখানে আপন আলোয় ছুটছেন এসি মিলানের এই ফরোয়ার্ড। ১৯৮১ সালের ৩ অক্টোবর জন্ম নেন তিনি। স্থানীয় দল মালমোর হয়ে সিনিয়র ক্যারিয়ার শুরু করেন ১৯৯৯ সালে। ২০০১ সালে নেদারল্যান্ডসের আয়াক্সে নাম লেখান ইব্রাহিমোভিচ। ২০০৪ সালে জুভেন্টাস, ২০০৬ সালে ইন্টার মিলান ও ২০০৯ সালে বার্সেলোনার জার্সি গায়ে জড়ান তিনি। ২০১০ থেকে ২০১২ সাল পর্যন্ত খেলেছেন এসি মিলানের হয়ে। চার বছর প্যারিস সেন্ট জার্মেই ও চার বছর ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের হয়ে মাঠ মাতান। ২০১৮ সালে ইউরোপ ছেড়ে পাড়ি জমান আমেরিকায়। মেজর সকার লিগের দল এলএ গ্যালাক্সির হয়ে খেলেছেন। সাত বছর পর আবার মিলানের হয়ে খেলতে আসেন ২০১৯ সালের শেষে। ২০১৯/২০ মৌসুমের মাঝে যোগ দিয়ে ১৮ ম্যাচে অংশ নিয়ে ১০ গোল করেছেন, গোল করিয়েছেন ৫টি। ইব্রাকে পেয়ে দলের গতিও বেড়ে যায়। শেষ ১২ ম্যাচে ৯ জয় ও তিন ড্র করে ষষ্ঠ স্থানে উঠে আসে দল।

advertisement
Evaly
advertisement