advertisement
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

জামাইয়ের ছুরিকাঘাতে শ্বশুর নিহত, গুরুতর আহত শাশুড়ি

২২ সেপ্টেম্বর ২০২০ ২৩:২০
আপডেট: ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০ ২৩:২০
প্রতীকী ছবি
advertisement

কক্সবাজার সদরের ভারুয়াখালী ইউনিয়নে মেয়ের জামাইয়ের ছুরিকাঘাতে খুন হয়েছেন শ্বশুর  নুর কবির (৪৫)। এ সময় জামাইয়ের ছুরিকাঘাতে আহত শাশুড়ি নুর জাহান বেগম (৪০)কে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তার অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা।

গত সোমবার রাত দেড়টার দিকে ইউনিয়নের ৪ নং ওয়ার্ডের মশরফ পাড়ায় ঘটনাটি ঘটে। ঘটনার পর থেকে অভিযুক্ত জামাই মিজানুর রহমান (২৮) পলাতক রয়েছেন। তিনি একই ইউনিয়নের বানিয়া পাড়ার বাসিন্দা আমির হোসেনের ছেলে। নিহত নুর কবির পেশায় কাঠমিস্ত্রি। 

ভারুয়াখালী ইউনিয়নের সাবেক প্যানেল চেয়ারম্যান, বর্তমান ৯ নং ওয়ার্ডের মেম্বার ফজলুল হক স্থানীয়দের বরাত দিয়ে জানিয়েছেন,  স্বামীর সঙ্গে বনিবনা না হওয়ায় নিজের বাপের বাড়িতে চলে যান নিহতের মেয়ে জেরিন আক্তার। এরপর কৌশলে শ্বশুর বাড়িতে গিয়ে শ্বশুরকে খুন করেন জামাই মিজানুর রহমান।

স্থানীয় বাসিন্দারা জানিয়েছেন, নুর কবিরের মেয়ে জেরিন আক্তারের সঙ্গে দেড় বছর আগে মিজানুর রহমানের বিয়ে হয়। বর্তমানে তাদের সংসারে ছয় মাস বয়সী একটি ছেলে সন্তান রয়েছে। মিজানুর রহমান প্রবাসে ছিল। দেশে ফিরে বউকে দেওয়া সাত ভরি স্বর্ণ বিক্রি করে দেন। এগুলো শেষ হলে স্ত্রীকে বাপের বাড়ি হতে টাকা এনে দেওয়ার জন্য নির্যাতন করতে থাকেন। নির্যাতন সইতে না পেরে জেরিন আক্তার তার গরীব কাঠমিস্ত্রী পিতার কাছ থেকে এক লাখ টাকা এনে দেন।

এরই মধ্যে মাদকসেবন ও জুয়ার আসরে মেতে ওঠে মিজান। আবারো বাপের বাড়ি থেকে টাকা এনে দিতে স্ত্রীকে চাপ দেন তিনি। এ নিয়ে স্বামী-স্ত্রীর কথা কাটাকাটি হয়। স্ত্রীকে প্রচুর মারধর করে। নিরুপায় হয়ে বাপের বাড়ি চলে যান জেরিন। তাতে সে ক্ষিপ্ত হয়ে রাতের অন্ধকারে শ্বশুর বাড়িতে ঢুকে ছুরিকাঘাত করে শ্বশুর ও শাশুড়িকে গুরুতর আহত করেন।

তাদেরকে স্থানীয়রা উদ্ধার করে হাসপাতালে নিলে রাত ৩ টার দিকে শ্বশুর নুর কবির মারা যান। শাশুড়ি নুর জাহান বেগমের সারা শরীরে ছুরিকাঘাত রয়েছে। তার অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানিয়েছেন কর্তব্যরত চিকিৎসক। নিহতের লাশের সুরতহাল রিপোর্ট করেছেন কক্সবাজার সদর মডেল থানার পুলিশ উপপরিদর্শক (এসআই) মিজানুর রহমান।

এ বিষয়ে কক্সবাজার সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তার (ওসি) দায়িত্বে থাকা কর্মকর্তা মাসুম খান জানান, বিরোধের সূত্র ধরে শ্বশুর বাড়িতে গিয়ে দরজা ভেঙে ঘরে ঢুকে স্ত্রীকে মারধর করেন স্বামী মিজানুর রহমান। তাতে বাধা দিতে গেলে শ্বশুর-শাশুড়িকে এলোপাতাড়ি ছুরিকাঘাত করেন তিনি। আহত শ্বশুর-শাশুড়িকে হাসপাতালে নিয়ে গেলে শ্বশুর মারা যান। শাশুড়িকে গুরুতর আহত অবস্থায় চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন পুলিশের এ কর্মকর্তা।

 

advertisement
Evaly
advertisement