advertisement
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

২৫ দিনে তাফসির আউয়ালকে তিনবার জিজ্ঞাসাবাদ করল দুদক

নিজস্ব প্রতিবেদক
২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০ ২০:২৬ | আপডেট: ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০ ১০:৫৭
আবদুল আউয়াল মিন্টুর ছেলে তাফসির আউয়াল। পুরোনো ছবি
advertisement

বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ও বিশিষ্ট ব্যবসায়ী আবদুল আউয়াল মিন্টুর ছেলে তাফসির আউয়ালকে ২৫ দিনের ব্যবধানে তিনবার তলব করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। পারিবারিক ঝামেলার কারণেই দুদক তাকে বারবার ডাকছে বলে দাবি করেছেন তিনি। এত স্বল্প সময়ে অন্য কাউকে এতবার ডাকা হয়েছে কি না, তা খতিয়ে দেখার অনুরোধ করেন তিনি।

আজ বৃহস্পতিবার দুদকে তদন্ত কর্মকর্তাদের জিজ্ঞাসাবাদের পর বের হয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তাফসির আউয়াল এ কথা বলেন। তিনি জানান, তার জবাবে দুদকের সন্তুষ্ট না হওয়ার কিছু নেই। তারা যা জিজ্ঞেস করেছেন, তিনি তার উত্তর দিয়েছেন, কাগজপত্র দিয়েছেন। দুদক ডাকলে আবার আসবেন বলেও জানান। 

আপনাকে একই বিষয়ে বারবার কেন ডাকা হচ্ছে বলে মনে করেন-এমন প্রশ্নের জবাবে তাফসির আউয়াল বলেন, ‘আমি তো মনে করি, আমার পারিবারিক ঝামেলার জন্য বারবার ডাকা হচ্ছে। সন্তান থেকে দূরে রাখার জন্য এমনটি করা হচ্ছে। আমি আগেও বলেছি, হয়তো দুদক জানে না, আমার পারিবারিক ঝামেলা চলছে লন্ডনে। লন্ডনের আদালতও আমার ছোট মেয়েটিকে দেখাশোনার জন্য অনুমতি দিয়েছে। আমি মনে করি, আমাকে বারবার এখানে নিয়ে আসা। এখানে রেখে দেওয়া, ওই কারণে যাতে মেয়েকে দেখতে না পারি।’

তিনি জানান, তার মেয়ের বয়স ২০ মাস। তিনি তার মেয়েকে দেখতে লন্ডনে যেতে চান। দুদক তাকে আবার ডাকলে মেয়েকে দেখতে যেতে পারবেন না। আর না ডাকলে মেয়েকে দেখার জন্য লন্ডন যাবেন বলেও জানান।

লন্ডন যেতে বাধা দেওয়া হচ্ছে কি না, জানতে চাইলে তাফসির বলেন, ‘ওই রকম কিছু বলেনি। আবার ডাকলে তো না এসে উপায় নেই। লন্ডনের আদালত তার মেয়েকে দুদিন পরপর তার কাছে রেখে দেখাশোনার অনুমতি দিয়েছে। কিন্তু সেই সুযোগ থেকে তাকে সরিয়ে আনা হয়েছে।’

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘বারবার ডাকার বিষয়ে আমার ধারণা কী, তা তো বলেছি। দুদক হয়তো এ বিষয়ে  জানে না। হয়তো তাদের দিয়ে করানো হচ্ছে। এটার ব্যাপারে আমি জানি না। উনারা ভালো বলতে পারবেন।’

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনে বিএনপির হয়ে মেয়র পদে দুবার নির্বাচন করা তাবিথ আউয়ালের ভাই সাংবাদিকদের বলেন, ‘আমি আবারও আপনাদের অনুরোধ করব, আপনারা যদি পারেন জিজ্ঞাসা করেন-অভিযোগটা কী? অভিযোগ কবে এসেছে এখানে? কত তাড়াতাড়ি তদন্ত কর্মকর্তা নিয়োগ হয়েছে? যেদিন আমার অভিযোগ এসেছে সেদিন আরও যে অভিযোগ জমা হয়েছে; সেগুলোর অবস্থা কী? তদন্ত কর্মকর্তা কী নিয়োগ হয়েছে? তাদের কী তিনবার ডাকা হয়েছে? এগুলো আপনারা জিজ্ঞাসা করুন।’

তাফসির আউয়াল এপ্রিলের প্রথম সপ্তাহে লন্ডন যান। সেখানে থাকা অবস্থায় তার বিরুদ্ধে গত ২০ আগস্ট দুদক তাফসির আউয়ালকে কমিশনের প্রধান কার্যালয়ে হাজির হয়ে বক্তব্য দিতে নোটিশ দেয়। এরপর ৩১ আগস্ট প্রথম তাকে দুদক জিজ্ঞাসাবাদ করে। তারপর আরও দুইবার তাকে ডাকা হয়।

জন্মসূত্রে যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিক তাফসির পড়াশোনা করেছেন যুক্তরাজ্যে। বর্তমানে তাফসির পারিবারিক ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান মাল্টিমোড লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক। ২০১৩ সালে তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পররাষ্ট্রবিষয়ক উপদেষ্টা গওহর রিজভীর মেয়ে মায়া বাড়োলো রিজভীকে বিয়ে করেন। তাদের এক মেয়ে কন্যা সন্তান রয়েছে। সম্প্রতি তাদের বিবাহ-বিচ্ছেদ হয়। তাদের শিশু কার কাছে থাকবে, তা নিয়ে তারা মা-বাবা লন্ডনে আদালতের দ্বারস্থ হয়েছেন।

advertisement
Evaly
advertisement