advertisement
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

ড. কামালের ‘স্মৃতি বিভ্রাট’ হচ্ছে : মন্টু

নিজস্ব প্রতিবেদক
২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০ ২০:১০ | আপডেট: ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০ ০৮:৫১
ড. কামাল হোসেন ও মোস্তফা মহসিন মন্টু। পুরোনো ছবি
advertisement

প্রতিষ্ঠার ২৭ বছর পর দুই ভাগ বিভক্ত হলো ড. কামাল হোসেনের নেতৃত্বাধীন গণফোরাম। বেরিয়ে যাওয়া অংশের নেতৃত্ব দিচ্ছেন দলটির সাবেক সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা মহসিন মন্টুসহ তিনজন নেতা। এরপরই বাংলাদেশের সংবিধান প্রণেতা ড. কামাল হোসেনের ‘স্মৃতি বিভ্রাট’ ঘটছে বলে মন্তব্য করেছেন মন্টু। আজ শনিবার দুপুরে জাতীয় প্রেস ক্লাবে তার নেতৃত্বাধীন গণফোরামের বর্ধিত সভা থেকে কাউন্সিলের ঘোষণা দেওয়া হয়। এরপরই ড. কামালকে নিয়ে মন্তব্যটি করেন মন্টু।

আগামী ২৬ ডিসেম্বর দলের কেন্দ্রীয় কাউন্সিলেরও ঘোষণা করেছে মন্টুর নেতৃত্বাধীন দলটি। মোস্তফা মহসিন মন্টু বলেন, ‘আমরা উনাকে (কামাল হোসেন) বারে বারে বলেছি, সাক্ষাৎ করে বলেছি কেন্দ্রীয় কমিটি মিটিং ডেকে সম্মেলনের তারিখটা নির্ধারণ করেন। আমরা চিঠি দিয়েও বলেছি। আমরা কয়েকদিন আগে যে গিয়েছলাম, উনি বলেছেন যে, “বসেন”। তারপরে বলেন যে, ‘না এরকম কোনো কথা আমি বলিনি’। আমরা যেটা মনে হয়, হয়ত উনি কিছু জিনিস ভুলে যান। আমার মনে হয়, একটু স্মৃতি বিভ্রাট ঘটছে আর কী। তাছাড়া ওদের একটা অশুভ প্রভাব আছে, যে প্রভাবে উনি অনেক কিছু গুলিয়ে ফেলেন।’

মন্টু আরও বলেন, ‘দুর্ভাগ্যজনকভাবে দেখি কিছু ব্যক্তির অদৃশ্য হস্তক্ষেপে উনি হয়ত ভুলে যান, না হয় বলতে পারেন না। ১৮ মাস ধরে এই অবস্থা। সর্বশেষ কেন্দ্রীয় কমিটির মিটিং হয়েছে আমি যখন সাধারণ সম্পাদক ছিলাম। সম্পূর্ণভাবে অগঠনতান্ত্রিক পদ্ধতিতে এসমস্ত চলে আসছে এবং যারা দীর্ঘদিনের পোড় খাওয়া, কাজ করেছে। নবাগতরা এসে তাদেরকে বহিষ্কার করে দিচ্ছে।’

দল বিভক্ত হলেও ড. কামাল দলে আছেন বলে মনে করেন মন্টু। তিনি বলেন, ‘আমরা অবশ্যই মনে করি যে, উনি আছেন। উনাকে এই সভা থেকে আহ্বান জানাচ্ছি, আপনি যেসব লোক বিতর্কিত তাদের পরিহার করুন এবং মাটির সাথে যাদের সম্পর্ক আছে, রাজনীতি করছে তাদের সাথে নিয়ে আপনি এগিয়ে যান, সংগঠনের গতি বাড়বে এবং মানুষের আস্থা অর্জন করতে পারব।’

কামাল হোসেনের সাড়া না পেলে কাউন্সিলেই পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে বলে জানান মন্টু। তিনি বলেন, ‘কাউন্সিলে তাদের মতামত সাপেক্ষে উনার (কামাল হোসেন) ব্যাপারে আমরা সিদ্ধান্ত নেব।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমরা অতীতের ভুলভ্রান্তি, প্রত্যেকটা রাজনৈতিক সংগঠন, প্রত্যেকটা ব্যক্তির সব কিছু জলাঞ্জলি দিয়ে আজকে জাতীয় স্বার্থে একটা ঐক্য হওয়ার প্রয়োজন আছে। এই সভার মাধ্যমে সবার কাছে আহ্বান জানাব, আসুন সবাই মিলে দেশটাকে রক্ষা করি। বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়তে হলে আমাদের মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের শক্তিগুলোকে একতাবদ্ধ হতে হবে, এর বিকল্প নাই।’

advertisement
Evaly
advertisement