advertisement
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

কিম ক্ষমা চাইতে না চাইতেই দক্ষিণ কোরিয়াকে হুঁশিয়ারি উত্তর কোরিয়ার

অনলাইন ডেস্ক
২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০ ১২:৩১ | আপডেট: ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০ ১৫:১০
উত্তর কোরিয়ার সর্বোচ্চ নেতা কিম জং-উন। পুরোনো ছবি
advertisement

দক্ষিণ কোরিয়ার এক কর্মকর্তাকে গুলি করে হত্যার ঘটনায় উত্তর কোরিয়ার সর্বোচ্চ নেতা কিম জং-উন ক্ষমা চেয়েছেন বলে দাবি করেছিল দক্ষিণ কোরিয়া। এবার ওই ব্যক্তির মরদেহ খুঁজতে নিজেদের জলসীমায় দক্ষিণ কোরিয়ার জাহাজ ঢুকে পড়ায় হুঁশিয়ারি দিয়েছে উত্তর কোরিয়া।

উত্তর কোরিয়ার সংবাদমাধ্যম কেসিএনএ’র বরাত দিয়ে কাতার ভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরা এ কথা জানিয়েছে। এতে বলা হয়, গত মঙ্গলবার নিজেদের জলসীমায় ঢুকে পড়ায় উত্তর কোরিয়ার সেনারা দক্ষিণ কোরিয়ার মৎস্য বিভাগের এক কর্মকর্তাকে গুলি করে হত্যা করে। দক্ষিণ কোরিয়ার দাবি, গুলি করে মারার পর উত্তর কোরিয়ার সেনারা ওই ব্যক্তির শরীরে আগুন ধরিয়ে দেয়। আর উত্তর কোরিয়া বলেছে, তাদের জলসীমায় প্রবেশের পর ওই ব্যক্তি নিজের পরিচয় দিতে পারেননি। তিনি পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে তার মাথায় ১০টির বেশি গুলি করা হয়। তারা ওই ব্যক্তির মৃতদেহ পোড়াননি।

এ ঘটনার পরে উত্তর কোরিয়ার সর্বোচ্চ নেতা কিম জং-উন গত শুক্রবার চিঠি পাঠিয়ে দক্ষিণ কোরিয়ার কাছে ক্ষমা চান। তবে এ ঘটনার দুই দিন যেতে না যেতেই দক্ষিণ কোরিয়াকে হুঁশিয়ারি দিলো উত্তর কোরিয়া। তাদের দাবি, ওই ব্যক্তির মরদেহ খুঁজতে দক্ষিণ কোরিয়ার জাহাজ উত্তর কোরিয়ার জলসীমায় প্রবেশ করেছে। দক্ষিণ কোরিয়া নয়, গুলিতে নিহত ওই ব্যক্তির মরদেহ তারাই তল্লাশি করবে বলে জানিয়েছে।  

কেসিএনএ’র খবরে হুঁশিয়ারি দেওয়া হয়েছে, ‘আমরা আমাদের জলসীমায় কারও অনুপ্রবেশের ঘটনা কখনোই ছোট করে দেখতে পারি না। আমরা দক্ষিণ কোরিয়াকে এ বিষয়ে সতর্ক করছি। আমরা নজরদারি বাড়িয়েছি। কারণ এ থেকে আরও ভয়ংকর কোনো ঘটনা ঘটতে পারে।’

advertisement
Evaly
advertisement