advertisement
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

করোনা প্রতিরোধে সাহায্য করতে পারে মায়ের বুকের দুধ

অনলাইন ডেস্ক
২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০ ১১:৫৩ | আপডেট: ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০ ১৩:২৭
advertisement

মায়ের বুকের দুধ করোনাভাইরাস প্রতিরোধে সাহায্য করতে পারে বলে জানিয়েছে চীনের একদল বিজ্ঞানী। বেইজিংয়ে দলটি সার্স-কোভ-২ ভাইরাসের সংস্পর্শে আসা কোষগুলোতে মায়ের বুকের দুধের প্রভাব পরীক্ষা করার পর এ তথ্য দিয়েছে। গতকাল সোমবার ‘সাউথ চায়না মর্নিং পোস্ট’-এর এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ শুরুর অনেক আগে ২০১৭ সালে সংগ্রহ করা দুধের কার্যকারিতা পশুর কিডনি কোষ এবং মানবদেহের ফুসফুস ও অন্ত্রকোষে পরীক্ষা করা হয়। গবেষকরা জানান, তারা পরীক্ষা করে দেখেছেন, মায়ের বুকের দুধে অধিকাংশ জীবিত ভাইরাস মারা যায়।

বেইজিং ইউনিভার্সিটি অব কেমিক্যাল টেকনোলজির অধ্যাপক টং ইগাংয়ের গবেষণায় নেতৃত্ব দেন। গত শুক্রবার তাদের গবেষণাটি নিবন্ধ আকারে ‘বায়োরেক্সিভ ডট ওআরজি’ সাময়িকীতে প্রকাশিত হয়।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার পক্ষ থেকে কোভিড সংক্রমিত মায়েদেরও সন্তানকে বুকের দুধ পান করানোর কথা বলা হয়। গবেষকেরা দাবি করেছেন, বুকের দুধ ভাইরাসের প্রবেশেও বাধা দিতে পারে। ফলে সাম্প্রতিক এ গবেষণা বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার সিদ্ধান্তের পক্ষেই জোর সমর্থন দিচ্ছে।

কীভাবে পাওয়া গেল এ তথ্য

গবেষক টং ও তার সহকর্মীরা মায়ের বুকের দুধের সঙ্গে কিছু সুস্থ কোষের মিশ্রণ ঘটান। এরপর বুকের দুধ সংগ্রহ করে কোষগুলোকে ভাইরাস সংক্রমণের জন্য উন্মুক্ত করেন। তারা দেখেন, ওই কোষগুলোতে ভাইরাস ঢুকতে পারেনি। এ ছাড়াও সংক্রমিত কোষে ভাইরাসের প্রতিলিপি উৎপাদন বন্ধ করে দিতে পারে।

করোনাভাইরাস মায়ের বুকের দুধের কিছু পরিচিত অ্যান্টিভাইরাল প্রোটিন যেমন ল্যাকটোফেরিনের প্রতি সংবেদনশীল। কিন্তু পরীক্ষা করে দেখেন, এসব কোনো প্রোটিন আশানুরূপ সংবেদনশীলতা দেখায়নি। অন্য প্রোটিনগুলো ভাইরাস সংক্রমণে বাধা দিয়েছে। ‘হোয়ে’ নামে একটি উপাদান এ ক্ষেত্রে বেশি কার্যকারিতা দেখিয়েছে।

advertisement
Evaly
advertisement