advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

বিকল্প বিনিয়োগ উৎসাহে মূলধন সংরক্ষণে ছাড়

নিজস্ব প্রতিবেদক
৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০ ০০:০০ | আপডেট: ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০ ০০:৪২
advertisement

ভেঞ্চার ক্যাপিটালসহ বিকল্প বিনিয়োগ উৎসাহিত করতে ব্যাংকের মূলধন সংরক্ষণে ছাড় দিল বাংলাদেশ ব্যাংক। আগে বিকল্প ১০০ টাকা বিনিয়োগ করলে তার ঝুঁকিভার ১৫০ টাকা ধরে ১০ শতাংশ বা ১৫ টাকা মূলধন রাখতে হতো। এখন ১০০ টাকা বিনিয়োগ করলে তার ঝুঁকিভার ১০০ টাকা ধরে ১০ শতাংশ বা ১০ টাকা মূলধন রাখতে হবে। গতকাল মঙ্গলবার কেন্দ্রীয় ব্যাংকের ব্যাংকিং প্রবিধি ও নীতি বিভাগ থেকে এ সংক্রান্ত সার্কুলার জারি করা হয়েছে। নতুন এ সিদ্ধান্তের ফলে এ খাতে ব্যাংকগুলোর মূলধন সংরক্ষণের চাপ কমবে এবং বিকল্প বিনিয়োগে উৎসাহিত হবে বলে মনে করা হচ্ছে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের এক কর্মকর্তা জানান, বিভিন্ন খাতে বিনিয়োগের বিপরীতে ঝুঁকির তারতম্য অনুযায়ী ব্যাংকগুলোকে প্রয়োজনীয় মূলধন সংরক্ষণ করতে হয়। সাধারণত বেসরকারি খাতে বিনিয়োগে শতভাগ ঝুঁকি হিসেবে বিবেচনায় নিয়ে মূলধন সংরক্ষণ করতে হয়। আবার বেসরকারি খাতের মধ্যে একেবারে নতুন প্রকল্প যেমন- ভেঞ্চার ক্যাপিটাল, এগুলোতে ঝুঁকির মাত্রা বেশি নির্ধারণ করা হয়েছিল। এর বিপরীতে বেশি মূলধন সংরক্ষণ করতে হতো। এখন এটি কমানোর

মানে

হলো নতুন নতুন প্রকল্প বা যারা নতুন উদ্যোক্তা, তাদের যাতে ব্যাংকগুলো আগের তুলনায় বেশি ফেভার করে।

ব্যাংকগুলোর ঝুঁকিভিত্তিক মূলধন পর্যাপ্ততা নিয়ে ২০১৪ সালে নীতিমালা জারি করে বাংলাদেশ ব্যাংক। ওই নীতিমালার আওতায় কোন খাতে বিনিয়োগে ঝুঁকিভার কী হারে হবে তা নির্ধারণ করে দেওয়া হয়। এতে ভেঞ্চার ক্যাপিটালের বিপরীতে ঝুঁকিভার ১৫০ শতাংশ আরোপের নির্দেশনা দেওয়া হয়েছিল। সার্কুলারে বিষয়টি উল্লেখ করে বলা হয়েছে- বাংলাদেশে বিকল্প বিনিয়োগ খাতের প্রসারের স্বার্থে ভেঞ্চার ক্যাপিটালসহ বিকল্প বিনিয়োগের আওতাভুক্ত সব খাতে বিনিয়োগের বিপরীতে ১০০ শতাংশ হারে ঝুঁকিভার নির্ধারণ করা হলো। ২০২২ সালের ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত এ নির্দেশনা বলবৎ থাকবে।

বাংলাদেশে নতুন এ বিকল্প বিনিয়োগকে তিন ভাগে ভাগ করা হয়েছে। প্রথমটি হচ্ছে- ভেঞ্চার ক্যাপিটাল। দ্বিতীয় প্রকারের বিকল্প বিনিয়োগ হচ্ছে- প্রাইভেট ইক্যুইটি। তৃতীয়টি হচ্ছে- ইমপ্যাক্ট ফান্ড। সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন ২০১৫ সালের জুনে অল্টারনেটিভ ইনভেস্টমেন্ট রুল বা বিকল্প বিনিয়োগ আইন-২০১৫ কার্যকর করে। বর্তমানে দেশের ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলো বিকল্প বিনিয়োগে এগিয়ে আসছে।

advertisement
Evaly
advertisement