advertisement
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

মোটরসাইকেল কিনে না দেওয়ায় মাকে পুড়িয়ে হত্যা

ছেলে কারাগারে

শ্রীবরদী (শেরপুর) প্রতিনিধি
১৮ অক্টোবর ২০২০ ০০:০০ | আপডেট: ১৮ অক্টোবর ২০২০ ০০:০৬
advertisement

শেরপুরের শ্রীবরদীতে মোটরসাইকেল কিনে দেওয়ার বায়না ধরেছিল মায়ের কাছে। অপ্রাপ্তবয়স্ক ছেলের এই আবদার পূরণে অপরাগতা প্রকাশ করেন মা। এতে ক্ষুব্ধ হয়ে গর্ভধারিণীর শরীরে পেট্রল ঢেলে আগুনে পুড়িয়ে হত্যা করে ছেলে। এ ঘটনায় আবু হানিফ (১৪) নামে ওই ছেলেকে গতকাল শনিবার দুপুরে পৌরশহরের তাতিহাটি পশ্চিমপাড়া এলাকা থেকে আটক করে পুলিশ। বিকালে হানিফকে আদালতে হাজির করা হলে তাকে কারাগারে পাঠানো নির্দেশ দেন আদালত।

নিহত হুনুফা বেগম স্থানীয় সদাগর আলী সাদার স্ত্রী ও শেরপুর শহরের চকপাঠক এলাকার আলাউদ্দিন আলার মেয়ে। এ ঘটনায় হুনুফা বেগমের ভাই দুলাল মিয়া বাদী হয়ে থানায় মামলা করেছেন।

শেরপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) আমিনুল ইসলাম জানান, এ ঘটনার বিষয়ে সুষ্ঠু তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, হুনুফা বেগমের তিন ছেলেমেয়ের মধ্যে আবু হানিফ সবার বড়। সে কিছু দিন ধরে মায়ের কাছে মোটরসাইকেল কিনে দেওয়ার বায়না ধরে আসছিল। এতে মা হুনুফা বেগম রাজি না হওয়ায় গত রবিবার রাতে তার শরীরে পেট্রল ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয় হানিফ। অগ্নিদগ্ধ হুনুফাকে প্রথমে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স, পরে জেলা সদর হাসপাতাল ও ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানেও তার অবস্থার অবনতি ঘটলে তাকে রাজধানীর শেখ হাসিনা বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জন ইনস্টিটিউটে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন শুক্রবার হুনুফা মারা যান।

advertisement
Evaly
advertisement