advertisement
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

মৃতের বাঁচা-মরা

আমাদের সময় ডেস্ক
১৮ অক্টোবর ২০২০ ০০:০০ | আপডেট: ১৮ অক্টোবর ২০২০ ০০:০৬
advertisement

৭৪ বছর বয়সী এক ব্যক্তিকে মৃত ঘোষণা করা হয়। এর পর মর্গের হিমঘরে রেখে পরদিন অন্ত্যেষ্টিক্রিয়ার জন্য নিতে গেলে দেখা যায়, ‘লাশটি’ নড়াচড়া করছে। দ্রুত তাকে হাসপাতালে নেওয়া হয়। তবে এবার আর বাঁচেননি সেই বৃদ্ধ, মরে গিয়ে প্রমাণ করে দিয়েছেন আগেরবার বেঁচে ছিলেন তিনি। ভারতের তামিলনাড়ূতে গত সোমবার একটি বেসরকারি হাসপাতালে বালাসুব্রামানিয়ান নামে ওই ব্যক্তিকে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। সালেম শহরের সরকারি হাসপাতালের ডিন বালাজিনাথান বলেন, ওই ব্যক্তিকে অচেতন অবস্থায় ভর্তি করা হয়েছিল। ফুসফুসে জটিলতার কারণে তার মৃত্যু হয়। তবে তিনি কতক্ষণ ওই হিমঘরে ছিলেন, তা স্পষ্ট নয়।

গত সোমবার তাকে মৃত ঘোষণার পর তার পরিবার মরদেহ বাড়ি নিয়ে যায়। এর পর মরদেহ রাখার জন্য সৎকারের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট স্থানীয় এক ব্যক্তিকে বাক্স পাঠাতে বলা হয়। অন্ত্যেষ্টিক্রিয়ার আয়োজক প্রতিষ্ঠান জানায়, মৃত ব্যক্তির ভাই তাদের জানিয়েছিল, তার কাছে চিকিৎসকের স্বাক্ষর করা বালাসুব্রামানিয়ানের মৃত্যু সনদ রয়েছে।

তবে সালেম পুলিশপ্রধান সেনথিল কুমার বলেন, বালাসুব্রামানিয়ানের পরিবার মৃত্যু সনদ দেখাতে পারেনি। এখন তারা পরিবারের বিরুদ্ধে অবহেলার অভিযোগ এনে মামলা করেছে। পুলিশপ্রধান বলেন, ওই পরিবারের সদস্যদের দাবি, ওই ব্যক্তি স্নায়ুবিক সমস্যায়ও ভুগছিলেন। তিনি এত কম তাপমাত্রার মধ্যে কীভাবে বেঁচে ছিলেন এবং ওই বেসরকারি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষও বা কীভাবে তাকে মৃত ঘোষণা করল, তা তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।

advertisement
Evaly
advertisement