advertisement
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

মাদারীপুরে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে সংঘর্ষে আহত অর্ধশত, গ্রেপ্তার ৯

রাজৈর (মাদারীপুর) প্রতিনিধি
১৮ অক্টোবর ২০২০ ১৩:২৯ | আপডেট: ১৮ অক্টোবর ২০২০ ১৪:৫১
মাদারীপুরে দুই পক্ষের সংঘর্ষে আহতরা। ছবি: আমাদের সময়
advertisement

মাদারীপুরের রাজৈর উপজেলায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে দুইপক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ হয়েছে। এতে পুলিশসহ অর্ধশতাধিক মানুষ আহত হয়েছে। ঘটনাস্থল থেকে ৯ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়। গতকাল শনিবার উপজেলার বাজিতপুর ইউনিয়নের মাচ্চর বাজিতপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

জানা গেছে, গতকাল বিকেল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত স্থানীয় দুইপক্ষের মধ্যে এ সংঘর্ষ হয়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ সাত রাউন্ড ফাঁকা গুলি ছোঁড়ে। সংঘর্ষে আহতদের রাজৈর, মাদারীপুর ও ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তাদের মধ্যে ৩ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। এ ঘটনায় ৮৫ জনের নাম উল্লেখসহ আরও অজ্ঞাত ৯০০ জনকে আসামি করে মামলা করেছে পুলিশ।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, পূর্ব শত্রুতা ও এলাকায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে  মাচ্চর বাজিতপুর গ্রামে গত শুক্রবার জুমার নামাজের পর ওবায়দুর রহমান সান্টু খালাশী ও গাউস শেখের মধ্যে কথাকাটাকাটি ও হাতাহাতি হয়। ওই ঘটনাকে কেন্দ্র করে গতকাল শনিবার বিকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত দুই পক্ষের লোকজন দেশীয় অস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে লিপ্ত হয়। সংঘর্ষে এলাকার আরও কয়েকটি বংশের লোকজন জড়িয়ে পড়ে।

খবর পেয়ে পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা করে। এসময় পুলিশের এএসআই এনায়েত হোসেন, কনস্টেবল আবুল খায়ের, বিপ্লব হোসেন,আবু সবুর আহত হন। গুরুতর আহত হন, মোতালেব খালাশী (৬৫), আবু খালাশী (৫৫), আরিফ বয়াতী (২৫), হবি খালাশী (৫৫), মতিউর খালাশী (৪৫), শামীম হোসেন (২৫), সজল খালাশী (২০), জাহাঙ্গীর বয়াতী (৪০)।

আরও আহত হন, বিল্লাল খালাশী (৬০), সহিদ তালুকদার (২১), ইব্রাহিম খান (৩০), জাহিদ খান (২১), গাফফার খান (৪০), সামাদ খান (৩০), রিপন খান (২৮), নান্নু খালাশী (৩৫), অনিক খান (২০), শাহাদাত খান (৩২)।আহতদের মধ্যে তিনজনকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে ওই এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

রাজৈর থানার ভারপ্রাপ্তা কর্মকর্তা (ওসি) শেখ সাদি বলেন ‘পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এনেছে। এ ঘটনায় পুলিশের একজন এএসআইসহ  চার পুলিশ সদস্য আহত হন। পুলিশ বাদি হয়ে ৮৫ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত ৯০০ থেকে ১ হাজার জনকে আসামি করে ‘পুলিশ অ্যাসাল্ট’ মামলা দায়ের করেছে।’

advertisement
Evaly
advertisement