advertisement
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

এসআই আকবরকে গ্রেপ্তারের সময় বেঁধে দিলো রায়হানের পরিবার

সিলেট প্রতিনিধি
১৮ অক্টোবর ২০২০ ১৬:১১ | আপডেট: ১৮ অক্টোবর ২০২০ ১৬:৩১
পুলিশি নির্যাতনে রায়হান হত্যার প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন
advertisement

সিলেটে পুলিশের নির্যাতনে রায়হান নিহতের ঘটনায় বিচার বিভাগীয় তদন্ত চেয়েছে পরিবার। ৭২ ঘণ্টার মধ্যে পুলিশের উপপরিদর্শক (এসআই) আকবরসহ দোষী পুলিশ সদস্যদের গ্রেপ্তারসহ ছয় দফা দাবি করেছে পরিবারের সদস্যরা। অন্যথায় এলাকাবাসীকে নিয়ে হরতাল আর সড়ক অবরোধের মতো কঠোর কর্মসূচির হুঁশিয়ারি দিয়েছেন সিলেট নগরের বৃহত্তর আখালিয়াবাসী। এসময় জনতার সামনে আসামিদের ফাঁসির দাবি করেছেন রায়হানের মা।

আজ রোববার দুপুরে সিলেট শহরের আখালিয়া এলাকায় রায়হানের বাড়িতে পুলিশি নির্যাতনে রায়হান হত্যার প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলনে এসব দাবি জানায় তার পরিবার।

রায়হানের মা সালমা বেগম অভিযোগ করেন, তার ছেলেকে নির্মমভাবে নির্যাতন করে হত্যা করা হয়েছে। এর নেপথ্যে যারা জড়িত, তাদের গ্রেপ্তারের দাবি জানান তিনি। বলেন, আমি কোনোদিন শুনি নাই এসআই আকবরের সাথে আমার ছেলের কোনো কথাকাটি বা যোগাযোগ ছিল। আমার ছেলের মেয়ে জন্ম নেওয়ার পর তার সাথেই সময় কাটাতো বেশি। আমার ছেলেটাকে ওরা এভাবে নির্যাতন করে মেরে ফেললো।

রায়হানের মা বলেন, আমি তখন তাহাজ্জুদের নামাজ পড়ছি। রায়হান ফোন দিলে সেটি তার চাচা ধরে। রায়হান বলে, চাচা আমি পুলিশ ফাঁড়িতে। কিছু টাকা নিয়ে আসলে ওরা আমাকে ছেড়ে দিবে বলেছে। সরকার ওদের মোটা বেতন দেয়। এই ১০ হাজার টাকার জন্য আমার ছেলেকে মেরে ফেলছে, এর পেছনে অন্য কোনো কালো পাহাড় আছে কিনা কে জানে।

তিনি বলেন, আমি জনতার সামনে অপরাধীদের সবোর্চ্চ সাজা ফাঁসি চাই। যেন এমন কাজ আর কেউ না করে।

সংবাদ সম্মেলনে উত্থাপিত ছয় দফা দাবিগুলো হলো :

১. রায়হান হত্যাকাণ্ডে বিচার বিভাগীয় তদন্ত কমিটি

২. রায়হান হত্যায় জড়িত পুলিশের উপ পরিদর্শক (এসআই) আকবর ভূঁইয়াসহ দোষীদের দ্রুত গ্রেপ্তার

৩. পলাতক এসআই আকবর ভূঁইয়াকে গ্রেপ্তারে আইজিপির নির্দেশ

৪. পুলিশ কমিশনারের পক্ষ থেকে পূর্ণাঙ্গ বক্তব্য

৫. নিহতের পরিবারকে উপযুক্ত ক্ষতিপূরণ প্রদানে প্রধানমন্ত্রীর কাছে আবেদন

৬. ৭২ ঘণ্টার মধ্যে জড়িতদের গ্রেপ্তার না করলে হরতাল-সড়ক অবরোধসহ বৃহত্তর আন্দোলন।

advertisement
Evaly
advertisement