advertisement
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

নিজেকে প্রমাণের সুযোগ পেলেন ফ্রি-স্টাইলার সুমাইয়া

ক্রীড়া প্রতিবেদক
১৮ অক্টোবর ২০২০ ১৬:৪৮ | আপডেট: ১৮ অক্টোবর ২০২০ ১৯:১০
মাতসুশিমা সুমাইয়া। পুরোনো ছবি।
advertisement

মাতসুশিমা সুমাইয়া। মা মাতসুশিমা তমোমি জাপানি এবং বাবা মাসুদুর রহমান বাংলাদেশি। সুমাইয়ার জন্ম জাপানে। জন্মসূত্রে জাপানি হলেও আদতে তার বেড়ে ওঠা বাংলাদেশে। শৈশব থেকেই ফুটবলের প্রতি তার প্রেম-ভালোবাসা সবই। সুমাইয়া মূলত একজন ফ্রি-স্টাইলার। শরীররের বিভিন্ন অঙ্গ যেমন মাথা-হাত-পা কিংবা কাঁধের মাধ্যমে ফুটবলের নানা কলাকৌশল হলো ফ্রি-স্টাইল ফুটবল।

সুমাইয়ার ইচ্ছা তিনি বাংলাদেশকে প্রতিনিধিত্ব করবেন। খুঁজছেন সুযোগ। এ জন্য কদিন আগে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনে (বাফুফে) গিয়ে নিজের ইচ্ছার কথা জানান। দেখা করেন বাফুফে টেকনিক্যাল পরিচালক পল স্মলি ও নারী দলের কোচ গোলাম রাব্বানী ছোটনের সঙ্গে। দুজনের কেউই তাকে হতাশ করেননি। দিয়েছেন আশ্বাস; নিজের দক্ষতা দেখিয়ে যোগ্যতা অর্জন করতে পারলেই খুলবে দরজা।

আপাতত নিজেকে চেনানোর সুযোগ পেয়ে গেছেন এই জাপানি কন্যা। ফুটবল ক্লাব বসুন্ধরা কিংস ডেকে নিয়েছে তাদের নারী দলের ক্যাম্পে। দৈনিক আমাদের সময়কে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বসুন্ধরা কিংসের মিডিয়া ম্যানেজার আহমেদ শায়েক।

শায়েক বলেন, 'আমরা সুমাইয়ার প্রতিভা দেখে তাকে আমাকের নারী দলের ক্যাম্পে সুযোগ দিয়েছি। তবে তার সঙ্গে এখনো কোনো চুক্তি করা হয়নি। তাকে আমরা পর্যবেক্ষণে রেখেছি। সে যদি নিজের দক্ষতা দেখাতে পারে আর আমাদের কাছে যদি মনে হয়ে সে পারবে তাহলেই তার সঙ্গে আমরা চুক্তিতে যাব।'

সুমাইয়ার জন্য এটা নিঃসন্দেহে সুবর্ণ যুযোগ। বলা যায় এক প্রকার প্রাথমিক দরজাও। এখানে নিজের জাত চেনাতে পারলেই সামনে তার পথ হবে আলোয় ঝলমলে। সুমাইয়াও নিশ্চয়ই সহজে নষ্ট করবেনা না এই সুযোগ।

এ ক্ষেত্রে জাপানি এই কন্যা অনুপ্রেরণা হিসেবে নিতে পারেন জামাল ভুঁইয়াকে। ডেনমার্কে বেড়ে ওঠা জামাল ভুঁইয়ার কাঁধেই এখন বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দলের ঝাণ্ডা। সুমাইয়া কতটুক যেতে পারবেন সেটা সময় বলে দেবে।  

advertisement
Evaly
advertisement