advertisement
advertisement
advertisement
DBBL
advertisement
advertisement

চীনেও আছে ট্রাম্পের ব্যাংক অ্যাকাউন্ট

নিউইয়র্ক টাইমসের প্রতিবেদন

আমাদের সময় ডেস্ক
২২ অক্টোবর ২০২০ ০০:০০ | আপডেট: ২১ অক্টোবর ২০২০ ২৩:০২
advertisement

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প কথায় কথায় চীনকে তুলাধুনা করেন। ক’দিন পরপর চীনের বিরুদ্ধে বাণিজ্য যুদ্ধে জড়িয়ে পড়েন। আর সেই ট্রাম্পেরই কিনা ব্যাংক অ্যাকাউন্ট রয়েছে চীনে! মার্কিন খ্যাতনামা সংবাদমাধ্যম নিউইয়র্ক টাইমস এক প্রতিবেদনে এ তথ্য প্রকাশ করেছে। খবর বিবিসি।

খবরটি এমন সময় প্রকাশ হলো যখন মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের দুই সপ্তাহেরও কম সময় রয়েছে। তবে এ খবর সম্পর্কে ট্রাম্পের একজন মুখপাত্র জানিয়েছেন, এশিয়ায় হোটেল ব্যবসার সম্ভাবনা যাচাই করতে চীনের অ্যাকাউন্টটি খোলা হয়েছিল। নিউইয়র্ক টাইমসের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ট্রাম্প ইন্টারন্যাশনাল হোটেলস ম্যানেজমেন্টের অধীনে থাকা চীনের ওই অ্যাকাউন্ট থেকে ২০১৩ থেকে ২০১৫ সাল পর্যন্ত স্থানীয়ভাবে করও পরিশোধ করা হয়েছে। ইতোমধ্যে

এ সংক্রান্ত নথি নিউইয়র্ক টাইমসের হাতেও রয়েছে।

এর আগে নিউইয়র্ক টাইমস এক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছিল যাতে বলা ট্রাম্পের কর প্রদানের চিত্রটি উঠে এসেছিল। ওই প্রতিবেদনে বলা হয়েছিল, যুক্তরাষ্ট্রে ২০১৬ ও ২০১৭ সালে ট্রাম্প মাত্র ৭৫০ ডলার করে কর দিয়েছিলেন বলে জানিয়েছিল। অন্যদিকে ট্রাম্পের চীনা ব্যাংক অ্যাকাউন্ট স্থানীয়ভাবে কর দিয়েছিল এক লাখ ৮৮ হাজার ৫৬১ ডলার।

এবার নির্বাচনে ট্রাম্পের হাতে যেসব ইস্যু রয়েছে সেগুলোর মধ্যে চীন অন্যতম। করোনা ভাইরাস থেকে শুরু করে বাণিজ্যযুদ্ধে বেইজিংয়ের কড়া সমালোচনা করে থাকেন ট্রাম্প। এটাও বলেন যে, বাইডেনের চীনের প্রতি দুর্বলতা রয়েছে। এখানেই থেমে থাকেননি ট্রাম্প। ট্রাম্প প্রশাসন জানিয়েছিল, বাইডেনের ছেলে হান্টার চীনের সঙ্গে লেনদেন রয়েছে। যদিও এ বিষয়ে ট্রাম্প কোনো নথিই হাজির করতে পারেননি। জো বাইডেনের আয়কর রিটার্ন ও তার আর্থিক লেনদেনের কোথাও চীনের সঙ্গে কোনো ধরনের ব্যবসায়িক সংশ্লিষ্টতার তথ্য মেলেনি বলে জানিয়েছে রয়টার্স। আর সেই ট্রাম্পই কিনা চীনে ব্যাংক হিসাব দেখভাল করছেন।

এ দিকে ট্রাম্প অর্গানাইজেশনের আইনজীবী অ্যালান গার্টেন চীনা ব্যাংক অ্যাকাউন্ট নিয়ে নিউইয়র্ক টাইমসের প্রতিবেদনকে ‘পুরো গালগপ্প’ অ্যাখ্যা দিয়েছেন। প্রতিবেদনটি ‘ভুল অনুমানের ওপর ভিত্তি করে করা হয়েছে’ বলেও মন্তব্য করেছেন তিনি। চীনে স্থানীয়ভাবে কর দেওয়ার লক্ষ্যেই ট্রাম্প ইন্টারন্যাশনাল হোটেলস ম্যানেজমেন্ট ওই অ্যাকাউন্ট খুলেছিল।

advertisement
Evaly
advertisement