advertisement
advertisement
advertisement
DBBL
advertisement
advertisement

আগুনমুখা নদী থেকে ব্যাংক কর্মকর্তাসহ ৫ জনের লাশ উদ্ধার

নিজস্ব প্রতিবেদক পটুয়াখালী ও রাঙ্গাবালী প্রতিনিধি
২৫ অক্টোবর ২০২০ ০০:০০ | আপডেট: ২৫ অক্টোবর ২০২০ ০০:২৬
advertisement

পটুয়াখালীর রাঙ্গাবালীতে আগুনমুখা নদীতে স্পিডবোট ডুবির ঘটনায় নিখোঁজের ৪০ ঘণ্টা পর পুলিশ কনস্টেবল ও ব্যাংক কর্মকর্তাসহ পাঁচজনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। গতকাল সকাল সাড়ে ৬টা থেকে আগুনমুখা নদীর বিভিন্ন পয়েন্ট থেকে লাশগুলো উদ্ধার করা হয়েছে। কাঁকড়ারচর থেকে প্রথম লাশটি উদ্ধার করেছে কোস্টগার্ড। বাকি চারজনের লাশ নদীর বিভিন্ন পয়েন্ট থেকে উদ্ধার করেছে পুলিশ।

তারা হলেন রাঙ্গাবালী থানার পুলিশ কনেস্টবল মো. মহিব্বুল্লাহ ও কৃষি ব্যাংক বাহেরচর শাখার পরিদর্শক মো. মোস্তাফিজুর রহমান, আশা ব্যাংকের বাহেরচর খালগোড়া শাখার কর্মকর্তা কবির হোসেন, দিনমজুর মো. ইমরান ও মো. হাসান মিয়া। সবার বাড়ি পটুয়াখালীর বিভিন্ন এলাকায়।

রাঙ্গাবালী থানার ওসি আলী আহমেদ জানান, উদ্ধারকৃত লাশ কোড়ালিয়া লঞ্চঘাট এলাকায় রাখা হয়েছে। শনাক্ত করে তাদের পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হবে। মৃতদেহ ফুলে উঠলেও এখন পর্যন্ত বিকৃত হয়নি তাই পরিবারের সদস্যরা মৃতদের সহজেই শনাক্ত করতে পারবে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মাশফাকুর রহমান বলেন, নিহতদের তালিকা জেলা প্রশাসক মহোদয়ের কাছে পাঠানো হয়েছে। যেহেতু কেউ রাঙ্গাবালীর স্থায়ী বাসিন্দা নয়, তাই সরকারি সহায়তা দিলে যার যার এলাকাতেই দেওয়া হবে।

গত বৃহস্পতিবার দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়ার কারণে জেলার মূল ভূখ- থেকে বিচ্ছিন্ন উপজেলা রাঙ্গাবালীর কোড়ালিয়া লঞ্চঘাট থেকে গলাচিপা উপজেলার পানপট্টি লঞ্চঘাট যাওয়ার পথিমেধ্যে আগুনমুখা নদীতে প্রচ- ঢেউয়ের কবলে পড়ে তলা ফেটে যাত্রীবাহী স্পিডবোটডুবির ঘটনায় ১৭ যাত্রীর মধ্যে ১২ জন উদ্ধার হলেও ৫ জন নিখোঁজ ছিল।

advertisement
Evaly
advertisement