advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

সুমন খানের বোলিং তোপে পুড়লেন মুশফিকরা

ক্রীড়া প্রতিবেদক
২৫ অক্টোবর ২০২০ ১৭:৩৯ | আপডেট: ২৫ অক্টোবর ২০২০ ১৭:৫৯
ফাইনালে সুমন খানের বোলিংয়ে দিশেহারা ছিলেন মুশফিকরা। ছবি : রতন গোমেজ, বিসিবি।
advertisement

বিসিবি প্রেসিডেন্টস কাপের ফাইনালের ১২তম ওভারের প্রথম বল। বোলিং প্রান্তে ২০ বছর বয়সী সুমন খান। আর ব্যাটিং প্রান্তে ‘মিস্টার ডিপেন্ডেবল’ খ্যাত মুশফিকুর রহিম। ৩৬ বল খেলে মুশফিক ক্রিজে তখন সেট। কিন্তু কোনো লাভ হলো না। সুমনের দুর্দান্ত ডেলিভারি মুশফিকের ব্যাটকে পরাস্ত করে লাগে প্যাডে। সঙ্গে সঙ্গে জোরালো আবেদন, আম্পায়ারও আউটের ইশারা দেন। সুমন খান এই যে শুরু করলেন মুশফিককে দিয়ে, পুরো ম্যাচেই এমন আগুনে বোলিং করেছেন তিনি।

আজ রোববার বিসিবি প্রেসিডেন্টস কাপের ফাইনালে মুখোমুখি মাহমুদউল্লাহ ও নাজমুল একাদশ। টস জিতে নাজমুলদের ব্যাটিংয়ে পাঠান মাহমুদউল্লাহ। ইনিংসের প্রথম ওভারেই উইকেট হারান নাজমুলরা। রুবেলের বোলিংয়ে আউট হয়ে সাজঘরে ফেরেন সাইফ হাসান। শুরু থেকেই উইকেট হারানোর মিছিলে থাকা নাজমুল একাদশের ব্যাটসম্যানরা ২০০ রানও করতে পারেননি। ১৭৩ রানে ইনিংসের ১৭ বল বাকি থাকতেই সবকটি উইকেট হারান তারা। জিততে হলে মাহমুদউল্লাহদের করতে হবে ১৭৪ রান।

১৭৩ রানের মধ্যে ৭৫ রানই এসেছে ইরফান শুক্কুরের ব্যাট থেকে। ছয় নম্বরে ব্যাট করতে নেমে তিনি আউট হয়েছেন সবার শেষে। ৭৭ বলে ৮টি চার ও ২টি ছয়ের মারে শুক্কুর ইনিংসটি সাজান। এ ছাড়া অধিনায়ক নাজমুল চেষ্টা করেছিলেন কিন্তু বড় রানের আগেই ফেরেন সাজঘরে। তার ব্যাট থেকে আসে ৩২ রান। ৫৩ বলে ২৬ রান করেন তৌহিদ হৃদয়। মুশফিকের ব্যাট থেকে আসে ১২ রান।

সুমন খান সর্বোচ্চ পাঁচ উইকেট নেন। ১০ ওভার বল করে মাত্র ৩৮ রান দিয়ে তিনি এই উইকেট নেন। রুবেল হোসেন নেন দুটি উইকেট। এর মধ্যে দিয়ে এখন পর্যন্ত সর্বোচ্চ ১২ উইকেট নিয়ে টুর্নামেন্টের সর্বোচ্চ উইকেট শিকারি বনে গেলেন রুবেল। একটি করে উইকেট নেন মেহেদী মিরাজ, এবাদত হোসাইন ও মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ।

সংক্ষিপ্ত স্কোর

নাজমুল একাদশ : ১৭৩/১০ (৪৭.১ ওভার)

সাইফ ৪, সৌম্য ৫, শান্ত ৩২, মুশফিক ১২, আফিফ ০, তৌহিদ ২৬, ইরফান ৭৫, নাইম ৭, নাসুম ৩, তাসকিন ১, আল আমিন ২*; রুবেল ৮-২-২৭-২, সুমন ১০-০-৩৮-৫, এবাদত ৮.১-১-১৮-১ , মিরাজ ৯-০-৩৯-১, বিপ্লব ৫-০-২১-০, মাহমুদউল্লাহ ৭-০-২৮-১।

advertisement
Evaly
advertisement