advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

সরকারের স্বেচ্ছাচারী মনোভাব

নিজস্ব প্রতিবেদক
২৮ অক্টোবর ২০২০ ০০:০০ | আপডেট: ২৭ অক্টোবর ২০২০ ২২:২৮
advertisement

কক্সবাজারে পুলিশের গুলিতে মেজর সিনহার (অব) মৃত্যু এবং সাংসদ হাজী সেলিমের ছেলের হাতে নৌবাহিনীর কর্মকর্তার রক্তাক্ত হওয়া ‘ভোটারহীন সরকারে’র স্বেচ্ছাচারী মনোভাব বলে মন্তব্য করেছে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান। তিনি বলেন, ‘সাম্প্রতিক কিছু ঘটনায় এটা প্রমাণ হচ্ছে- যে সরকার জনগণের ভোটে নির্বাচিত

হয় না, যে সরকারের ক্ষমতার নৈতিক ভিত্তি নেই, সেই সরকারের আমলে মন্ত্রীরা দুর্নীতিগ্রস্ত হয়, তার দলের নেতারা দুর্নীতিগ্রস্ত হয় এবং সবাই স্বেচ্ছাচারী হয়ে যায়। এর প্রমাণ আমরা দেখলাম কক্সবাজারে অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহার ঘটনা এবং নৌবাহিনীর এক কর্মকর্তার ঘটনায়।’

জাতীয়তাবাদী যুবদলের ৪২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে গতকাল সকালে নজরুল ইসলাম খান বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের কবরে পুষ্পস্তবক অর্পণ শেষে উপস্থিত সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন।

এ সময় যুবদলের সভাপতি সাইফুল আলম নিরব ও সাধারণ সম্পাদক সুলতান সালাহউদ্দিন টুকুসহ কয়েক হাজার নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন।

নজরুল ইসলাম বলেন, ‘এই যে স্বেচ্ছাচারী মনোভাব, এই মনোভাব দূর হওয়া কিংবা সম্রাট-পাপিয়া, ফরিদপুরের নেতারা এবং আরও অনেক নেতা তাদের যেসব দুর্নীতি-অনাচার, সেটা থেকে বের হওয়ার একটাই পথ, আর তা হলো জবাবদিহিমূলক একটা সরকার প্রতিষ্ঠা করা।’

তিনি বলেন, ‘আর সেটা সম্ভব শুধু অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের মাধ্যমে। তার জন্য প্রয়োজন ক্ষমতায় একটা নিরপেক্ষ সরকার থাকা এবং যোগ্য নির্বাচন কমিশন থাকা।’

বিএনপির এই নেতা আরও বলেন, ‘নিরপেক্ষ ও সুষ্ঠু নির্বাচনে জনগণ তার পছন্দমতো ভোট দিয়ে যাদের নির্বাচিত করবে, তারাই রাষ্ট্রক্ষমতা পরিচালনার দায়িত্ব নেবে। তারা জনগণের কাছে দ্বায়বদ্ধ থাকবে, যেহেতু তারা জনগণের ভোটে নির্বাচিত। তাই সেই সরকারের কোনো মন্ত্রী কিংবা সেই দলের কোনো নেতা দুর্নীতিবাজ কিংবা স্বেচ্ছাচারী হতে পারবে না।’

করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলায় সরকার ব্যর্থ মন্তব্য করে নজরুল ইসলাম খান বলেন, ‘করোনায় মৃত্যু ও আক্রান্তের সরকারি তথ্য জনগণ বিশ্বাস করে না। যে সরকারের ওপর জনগণের বিশ্বাস নেই, যে সরকার এবং নির্বাচন কমিশনের আমলে এই ঢাকা মহানগরীতে শতকরা ৫ ভাগ বা ১০ ভাগ লোক ভোট দিতে যায়, তার মানে ভোট প্রক্রিয়া, ভোটের মাধ্যমে নির্বাচিত সরকার- এই বিষয়গুলোর ওপর মানুষের আর আস্থা নেই। মানুষ হতাশ হয়ে যাচ্ছে, মানুষ নিরাশ হয়ে যাচ্ছে। এটা আর হতে দেওয়া যাবে না।’

advertisement
Evaly
advertisement