advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

কাউন্সিলর ইরফান সেলিম সাময়িক বরখাস্ত

নিজস্ব প্রতিবেদক
২৮ অক্টোবর ২০২০ ০০:০০ | আপডেট: ২৭ অক্টোবর ২০২০ ২২:২৮
advertisement

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ৩০ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ইরফান সেলিমকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার সন্ধ্যায় স্থানীয় সরকার বিভাগের উপসচিব আ ন ম ফয়জুল হক স্বাক্ষরিত প্রজ্ঞাপনে এ তথ্য জানানো হয়। স্থানীয় সরকার বিভাগের সিটি করপোরেশন-১ শাখা থেকে জারি হওয়া

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, স্থানীয় সরকার (সিটি করপোরেশন) আইন ২০০৯-এর ধারা ১২-এর উপ-ধারা (১)-এর প্রদত্ত ক্ষমতাবলে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ৩০ নম্বর সাধারণ ওয়ার্ডের নির্বাচিত কাউন্সিলর পদ হতে তাকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হলো।

প্রজ্ঞাপনে আরও বলা হয়, যেহেতু কাউন্সিলর ইরফানের বিরুদ্ধে বাংলাদেশ নৌবাহিনীর একজন কর্মকর্তা ও তার স্ত্রীর ওপর হামলার অভিযোগে ফৌজদারি মামলা দায়ের হয়েছে, তিনি বিদেশি মদ সেবন করার দায়ে ভ্রাম্যমাণ আদালত কর্তৃক এক বছরের কারাদ-ে দ-িত হয়েছেন এবং ৫০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও এক মাস বিনাশ্রম কারাদ-ে দ-িত হয়ে ইতোমধ্যে কারাগারে প্রেরিত হয়েছেন এবং যেহেতু তার বিরুদ্ধে অবৈধ অস্ত্র, মাদক রাখার দায়ে আরও মামলা দায়ের করার কার্যক্রম চলমান আছে এবং যেহেতু তার উক্ত কর্মকা- স্থানীয় সরকার (সিটি করপোরেশন) আইন ২০০৯-এর ধারা ১৩ অনুযায়ী কার্যক্রম শুরু করা হলে, উক্ত আইনের ধারা ১২-এর উপ-ধারা (১) অনুযায়ী অভিযুক্ত কাউন্সিলরকে সাময়িক বরখাস্তের বিধান রয়েছে।

প্রজ্ঞাপন জারির আগে গতকাল দুপুরে স্থানীয় সরকারমন্ত্রী (এলজিআরডি) তাজুল ইসলাম জানিয়েছিলেন, আদালতে সাজাপ্রাপ্ত হওয়ায় দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ওয়ার্ড কমিশনার ইরফান সেলিমকে আইন অনুযায়ী সাময়িক বহিষ্কার করবে স্থানীয় সরকার বিভাগ। এখন শুধু প্রজ্ঞাপনের অপেক্ষা।

তিনি আরও বলেন, ইরফানকে কাউন্সিলর পদ থেকে বরখাস্ত চূড়ান্ত করতে এখন চিঠি ইস্যু প্রক্রিয়া চলছে। আইন অনুযায়ী তাকে আজকেই (গতকাল) বরখাস্ত করব।

এলজিআরডি মন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ একটি গণতান্ত্রিক দেশ। শেখ হাসিনার সরকার আইনের শাসনে বিশ্বাসী। এখানে দল ও পদবি মুখ্য নয়। অভিযোগ নথিভুক্ত হয়েছে, তাকে অস্থায়ীভাবে বহিষ্কার করা হচ্ছে। আদালতের সিদ্ধান্ত আমলে নিয়ে পরবর্তীতে স্থায়ীভাবে বহিষ্কার করা হবে বলেও জানান মন্ত্রী।

এ ধরনের শাস্তির উদ্দেশ্য হলো, জনপ্রতিনিধি হয়েও অপরাধে জড়াতে নিরুৎসাহিত হয়। আইন অমান্য করার দৃষ্টিভঙ্গি বদলাতে হবে। ছাড় দেওয়া বা শৈথিল্য সহ্য করা হবে না বলেও জানান তাজুল।

প্রসঙ্গত, নৌবাহিনী কর্মকর্তাকে মারধরের ঘটনায় দায়ের করা মামলায় গতকাল সোমবার নিজ বাসায় অভিযান চালিয়ে ওয়ার্ড কাউন্সিলর ইরফান সেলিমকে গ্রেপ্তার করে র‌্যাব। এ সময় অবৈধভাবে ওয়াকিটকি ও মাদক রাখার দায়ে ইরফান ও তার দেহরক্ষী জাহিদকে ৬ মাস ৬ মাস করে মোট এক বছরের কারাদ- দেওয়া হয়েছে।

গত সোমবার দুপুর ১টা থেকে সাড়ে ৩টা পর্যন্ত চকবাজারের ২৬ নম্বর দেবীদাস ঘাট লেনের বাড়িতে অভিযান চালিয়ে ৫টি ওয়্যারলেস ও ৪০টি ওয়াকিটকি সেট, একটি হ্যান্ডকাফ, একটি বন্দুক, বিদেশি মদের বোতল ও বিয়ার মদ উদ্ধার করা হয়। অভিযানের নেতৃত্ব দেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সরোয়ার আলম।

advertisement
Evaly
advertisement