advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

আমিরাতের কাছে এফ-৩৫ যুদ্ধবিমান বিক্রি করছেন ট্রাম্প

অনলাইন ডেস্ক
৩০ অক্টোবর ২০২০ ১৫:০৫ | আপডেট: ৩০ অক্টোবর ২০২০ ১৫:৪১
এফ-৩৫ যুদ্ধবিমান। ছবি: সংগৃহীত
advertisement

ইসরায়েলের সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিক করার চুক্তিতে উপনীত হওয়ায় সংযুক্ত আরব আমিরাতের ওপর সন্তুষ্ট যুক্তরাষ্ট্র। তাই ‘চুক্তির অংশ’ হিসেবে আরব আমিরাতে কাছে ৫০টি সর্বাধুনিক এফ-৩৫ যুদ্ধবিমান বিক্রি করতে যাচ্ছে হোয়াইট হাউস। সর্বাধুনিক এ জঙ্গিবিমান বিক্রির ব্যাপারে কংগ্রেসে অনানুষ্ঠানিকভাবে চাহিদাপত্র পাঠিয়েছে ট্রাম্প প্রশাসন।

কাতার ভিত্তিক সংবাদ মাধ্যম আল জাজিরার প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার প্রতিনিধি পরিষদের ফরেন অ্যাফেয়ার্স কমিটির নেতৃত্বে থাকা ইলিয়ট এনজেল বলেন, ‘এই অস্ত্র বিক্রি উপসাগরীয় অঞ্চলের সামরিক ভারসাম্যে ব্যাপক পরিবর্তন ঘটাতে পারে এবং ইসরায়েলে সামরিক কর্তৃত্বে প্রভাব ফেলতে পারে।’

এনজেল বলেন, ‘এসব যুদ্ধবিমান রপ্তানির ক্ষেত্রে সতর্ক পর্যালোচনা প্রয়োজন এবং কংগ্রেসকে অবশ্যই সব খুঁটিনাটি আলোচনা করতে হবে। এই বিক্রিতে তাড়াহুড়ো কারও স্বার্থ রক্ষা করবে না।’

আগামী ২ ডিসেম্বর সংযুক্ত আরব আমিরাতে জাতীয় দিবস উদ্‌যাপনের দিন। আর এ দিনেই এফ-৩৫ যুদ্ধবিমান নিয়ে আনুষ্ঠানিক চুক্তি করতে চায় যুক্তরাষ্ট্র ও আমিরাত।

সূত্রের বরাত দিয়ে বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, আমিরাতের কাছে লকহিড মার্টিনের তৈরি ৫০টি এফ-৩৫ যুদ্ধবিমান বিক্রির ইচ্ছার বিষয়ে কংগ্রেসকে অবহিত করেছে হোয়াইট হাউস।

ইয়েমেনে বেসামরিক নাগরিক হত্যার ঘটনায় মার্কিন সিনেট ফরেন রিলেশনস এবং প্রতিনিধি পরিষদের ফরেন অ্যাফেয়ার্স কমিটির সদস্যরা আরব আমিরাতের সমালোচনা করেছেন। তারা চাইলে অনানুষ্ঠানিক রিভিউ প্রক্রিয়ায় এই  এফ-৩৫ বিক্রি পুনর্বিবেচনা কিংবা আটকে দিতে পারেন।

এর আগে যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যস্থতায় ইসরায়েলের সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিক করার চুক্তি করে তিনটি আরব দেশ। এদের মধ্যে ইসরাইলের সঙ্গে প্রথম কূটনৈতিক সম্পর্ক স্থাপন করে সংযুক্ত আরব আমিরাত।

advertisement
Evaly
advertisement