advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

ঢাকাকে ‘দেখিয়ে দিতে’ চায় মিনিস্টারের রাজশাহী

ক্রীড়া প্রতিবেদক
১৯ নভেম্বর ২০২০ ১৬:২২ | আপডেট: ১৯ নভেম্বর ২০২০ ১৭:০৩
advertisement

কাগজে-কলমে মিনিস্টার গ্রুপের দল ‘মিনিস্টার গ্রুপ রাজশাহী’তে খুব বড় কোনো তারকা নেই। বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপের ড্রাফট লিস্টে ‘এ’ ক্যাটাগরিতে থাকা কোনো তারকাকেই দলে ভেড়ায়নি তারা। সাইফউদ্দিন-নাজমূল হোসেন শান্তদের মতো তরুণদের সঙ্গে আশরাফুল-ফজলে রাব্বীর মতো অভিজ্ঞদের নিয়ে দল গড়েছে মিনিস্টার। তারুণ্য নির্ভর এই দলটি নিয়ে প্রথম ম্যাচেই ‘বেক্সিমকো ঢাকা’কে দেখিয়ে দিতে চান মিনিস্টার গ্রুপের পরিচালক এম এ রাজ্জাক খান।

দল নিয়ে তার মন্তব্য, ‘আমরা তরুণদের নিয়ে একটি সেরা দল তৈরি করেছি। আমরা মাঠে প্রমাণ করব। ২৪ নভেম্বর মাঠে ঢাকার বিপক্ষে দেখিয়ে দিতে চাই যে, আমরা সেরা একটা দল তৈরি করেছি।’ আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে রাজশাহীর জার্সি ও লোগো উন্মোচন অনুষ্ঠানে নিজেদের দল নিয়ে কথা বলতে গিয়ে এ মন্তব্য করেন রাজ্জাক।

আজ জার্সি-লোগো উন্মোচন অনুষ্ঠানে অধিনায়কের নাম ঘোষণা করেন রাজ্জাক।  শান্তকে দক্ষ অধিনায়ক আখ্যা দিয়ে বলেন, ‘শান্ত একজন দক্ষ অধিনায়ক। আমি মনে করি উনি ভালোভাবে পরিচালনা করবেন।’ শান্ত কদিন আগেই বিসিবি প্রেসিডেন্টস কাপে নেতৃত্ব দিয়েছেন।এ দলে ছিলেন মুশফিকুর রহিমও। তার নেতৃত্বে টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্টে দলটি রানার্স অপ হয়। তাই এবারও বাংলাদেশ দলকে নেতৃত্ব দেওয়া আশরাফুল থাকলেও টিম ম্যানেজমেন্টের আস্থা শান্তর উপরই।

দলটির ম্যানেজার হিসেবে দায়িত্বে আছেন হান্নান সরকার। তার প্রত্যাশা এই দল চ্যাম্পিয়ন হওয়ার সামর্থ্য রাখে। তিনি বলেন, ‘আমরা যারা আলোচনা করে টিমটা করেছি আমরা বিশ্বাস করি এই টিমটা ট্রফি এনে দেওয়ার সামর্থ্য রাখে।’ হান্নান জানান, তাদের নজর ছিল অলরাউন্ডারদের দিকে। এ জন্য প্রথম ডাকে তারা এ ক্যাটাগরির খেলোয়াড় মাহমুদউল্লাহ রিয়াদকে না কিনেও কেনেন অলরাউন্ডার মোহাম্মদ সাইফউদ্দিনকে। এর ব্যাখ্যাও দেন হান্নান। 

‘টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে আমাদের প্রথম লক্ষ্য ছিল অলরাউন্ডার। আপনারা সবসময় জানেন যে, অলরাউন্ডারদের প্রতি সবসময় আমরা লক্ষ্য রাখি সেটা আসলে সব ফরম্যাটেই। টি-টোয়েন্টির বৈশিষ্টই হলো অলরাউন্ডারদের সংখ্যাটি বেশি থাকে। তাহলে কাজটা অনেক সহজ হয়। কারণ সংক্ষিপ্ত ফরম্যাটের খেলা অলরাউন্ডারদের ক্ষেত্রে দল গোছানো ও দলের পারফরম্যান্স বের করে আনা অনেক সহজ হয়। সেদিকেই লক্ষ্য রেখেই আমরা দল গড়ার চেস্টা করেছি’, বলছিলেন হান্নান।

রাজশাহীর কোচ হিসেবে আছেন সারওয়ার ইমরান। দল নিয়ে তার মন্তব্য, ‘এটাতো অবশ্যই ঠিক। আমরা শতভাগ যে জিনিসটা চিন্তা করেছি, সেটা পাইনি। কিন্তু আমার মনে হয়, ৭০ ভাগের বেশি আমাদের যে প্লেয়ার চয়েজ ছিল সেটা পূরণ করতে পেরেছি। প্রিমিয়ার লিগে পারফর্ম করা বেশিরভাগ ক্রিকেটার আমরা নিয়েছি। এর বাইরে অন্য দলে অনেক প্লেয়ার আছে, যাদের হয়তো ডাকতে পারিনি। তারপরও আমি বলব, পাঁচটা দলই কোনটা ভালো সেটা মাঠে প্রমাণ হবে। আমরা চেষ্টা করেছি সর্বোচ্চটা। আমি সন্তুষ্ট এই দল তৈরি করে।’

দল নিয়ে অধিনায়ক শান্ত বলেন, ‘দল হিসেবে আমার কাছে মনে হয় খুব ভালো একটা কমবিনেশন হয়েছে। সিনিয়র ও কিছু তরুণ প্লেয়ার আছে। সমন্বয়টা খুব ভালো। অভিজ্ঞ প্লেয়ারও অনেক আছে। সুতরাং যেহেতু এটা ঘরোয়া তুর্নামেন্ট আশা করছি যে খুব ভালো একটা টুর্নামেন্টই হবে আমাদের জন্য।’

মিনিস্টার গ্রুপ রাজশাহী দল

মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন, শেখ মেহেদী হাসান, নাজমুল হোসেন শান্ত, নুরুল হাসান সোহান, ফরহাদ রেজা, আরাফাত সানি, এবাদত হোসেন, ফজলে মাহমুদ রাব্বি, রনি তালুকদার, আনিসুল ইমন, রেজাউর রহমান, জাকির আলী অনিক, মোহাম্মদ আশরাফুল, রাকিবুল হাসান সিনিয়র, মুকিদুল ইসলাম মুগ্ধ ও সানজামুল ইসলাম।

advertisement
Evaly
advertisement