advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

এক ‘মিথ্যায়’ পুরো সাউথ অস্ট্রেলিয়া লকডাউন!

অনলাইন ডেস্ক
২০ নভেম্বর ২০২০ ২১:৩৪ | আপডেট: ২১ নভেম্বর ২০২০ ০০:১০
পুরোনো ছবি
advertisement

করোনাভাইরাস আক্রান্ত ব্যক্তির একটিমাত্র মিথ্যা কথার জেরেই ছয়দিনের কড়া লকডাউন ঘোষণা করা হয় গোটা সাউথ অস্ট্রেলিয়ায়। আজ শুক্রবার রাজ্যটির কর্মকর্তারা এমন কথাই জানিয়েছেন।

বিবিসির এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, রাজ্যের অ্যাডেলেইড শহরে স্থানীয় পর্যায়ে প্রথমে এক রোগী শনাক্ত হয়। সেখান থেকে আরও ৩৬ জনের সংক্রমণ ধরা পড়ার পর গত বুধবার ওই রাজ্যে লকডাউন শুরু হয়। কিন্তু করোনা আক্রান্ত ওই ব্যক্তি সত্য কথা বললে এই লকডাউন এড়ানো যেত বলে জানিয়েছেন কর্মকর্তারা।

অ্যাডেলেইডে এক সংবাদ সম্মেলনে সাউথ অস্ট্রেলিয়া রাজ্যের প্রধানমন্ত্রী স্টিভেন মার্শাল বলেন, ‘পিজা বারের এক কর্মী করোনা আক্রান্ত হওয়ার পর কন্টাক্ট ট্রেসিং টিমকে মিথ্যা কথা বলেছেন। ওই কর্মী বলেছেন, তিনি কেবল সেখানে পিজা কিনতে গিয়েছিলেন। কিন্তু আসলে তিনি পিজা বারটিতে করোনা আক্রান্ত কর্মীদের সঙ্গে কয়েকটি শিফটে কাজ করেছিলেন।’

স্টিভেন মার্শাল বলেন, ‘পিজা বারে কাজ করার বিষয়টি ওই কর্মী গোপন করায় স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা করোনাভাইরাস সংক্রমণের তীব্রতা নিয়ে ভ্রান্ত ধারণাবশত কড়া লকডাউনের পথে যান। তারা ভেবেছিলেন, পিজা কেনার সময়ের মধ্যেই একজন আক্রান্ত হওয়ার মানে হচ্ছে ভাইরাসটি নিশ্চিতভাবেই অতি সংক্রামক হয়ে উঠেছে। এ থেকেই সংক্রমণ ঠেকাতে রাজ্যজুড়ে লোকজনকে বাড়িতে থাকা এবং ব্যবসা-বাণিজ্য বন্ধ রাখার কড়া নির্দেশ দেয় সরকার।’

তবে এখন তারা সত্যিটা জানার পর লকডাউন তিনদিন আগেই তুলে নেওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন মার্শাল। তিনি বলেন, ‘ওই ব্যক্তি মিথ্যা না বললে গোটা রাজ্যকে ছয় দিনের লকডাউনের কঠিন পরিস্থিতিতে পড়তে হতো না।’

আর মিথ্যা বলার জন্য শাস্তির বিধান না থাকায় ওই পিজা কর্মীর বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে না বলে জানিয়েছেন সাউথ অস্ট্রেলিয়ার পুলিশ কমিশনার গ্র্যান্ট স্টিভেন্স।

advertisement
Evaly
advertisement