advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

দেশে এক সপ্তাহের ব্যবধানে শনাক্ত বেড়েছে ২৬ শতাংশ

করোনায় আরও ২৮ মৃত্যু শনাক্ত ১৮৪৭

দুলাল হোসেন
২২ নভেম্বর ২০২০ ০০:০০ | আপডেট: ২২ নভেম্বর ২০২০ ০০:১১
করোনা সংক্রমণের দ্বিতীয় ধাপে সরকারি নানা প্রচারের পরও সাবধানতা নেই সাধারণের মাঝে। সামাজিক দূরত্ব মানা হচ্ছে না খোদ চিকিৎসা কেন্দ্রে। গতকাল রাজধানীর মিটফোর্ড হাসপাতাল থেকে তোলা -ফোকাস বাংলা
advertisement

দেশে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ আবারও বেড়ে চলছে। প্রতিনিয়ত বাড়ছে করোনায় শনাক্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা। গত এক সপ্তাহের ব্যবধানে করোনা রোগী শনাক্ত ২৬ শতাংশের বেশি বৃদ্ধি পেয়েছে। একই সময়ে মৃত্যু বৃদ্ধি পেয়েছে ৪২ শতাংশের বেশি। গতকাল শনিবার স্বাস্থ্য অধিদপ্তর থেকে এ তথ্য পাওয়া গেছে।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের তথ্যমতে, দেশে চলতি বছরের ৮ মার্চ প্রথম তিনজন করোনা ভাইরাসের রোগী শনাক্ত হয়। এর পর যতদিন যেতে থাকে, ততই করোনার সংক্রমণ বাড়তে থাকে। একপর্যায়ে মে-জুনে করোনার সংক্রমণ সর্বোচ্চ চূড়ায় পৌঁছায়। ওই সময়ে (পিক টাইম) মাসে প্রতিদিন চার হাজারের বেশি রোগী শনাক্ত হয়েছিল এবং মারা গেছেন ৫০ জনের বেশি। তখন রোগী শনাক্তের হার ছিল ২৪-২৫ শতাংশ। এর পর সেপ্টেম্বর-অক্টোবরে করোনা সংক্রমণ কমতে শুরু করে। একপর্যায়ে সংক্রমণের হার ১০-১১ শতাংশে নেমে এসে নভেম্বর আবার বাড়তে শুরু করে। এর মধ্যে সবচেয়ে সংক্রমণ বেড়েছে গত সপ্তাহে। নমুনা পরীক্ষা ১১ দশমিক শূন্য ৮ শতাংশ, শনাক্ত ২৬ দশমিক শূন্য ২ শতাংশ এবং মৃত্যু ৪২ দশমিক ৭৪ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের তথ্যমতে, দেশে করোনার সংক্রমণ শুরুর পর থেকে এখন পর্যন্ত ৪৭ সপ্তাহ অতিক্রম করেছে। এই সপ্তাহে ১ লাখ ৮ হাজার ৬৮টি নমুনা পরীক্ষা করে ১৪ হাজার ৭৪৫ জন রোগী শনাক্ত হয়। একই সময়ে মারা গেছেন ১৭৭ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ১২ হাজার ৫০৩ জন। এর আগের অর্থাৎ ৪৬তম সপ্তাহে ৮ থেকে ১৪ নভেম্বর পর্যন্ত সময়ে ৯৭ হাজার ২৯২টি করোনার নমুনা পরীক্ষা করে ১১ হাজার ৭৩২ জন রোগী শনাক্ত হয়েছে। একই সময়ে মারা গেছেন ১২৪ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ১১ হাজার ২৮১ জন।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হিসাব বলছে, দেশে ৪৬ সপ্তাহের তুলনায় ৪৭ সপ্তাহে ৩ হাজার ৫৩ করোনা রোগী বেশি শনাক্ত হয়েছে। একই সময়ে ৫৩ জন বেশি মারা গেছেন এবং সুস্থ হয়েছেন ১ হাজার ২২২ জনের বেশি। ৪৬ সপ্তাহের তুলনায় ৪৭ সপ্তাহে করোনার নমুনা পরীক্ষা ১১ দশমিক শূন্য ৮ শতাংশ বৃদ্ধি, শনাক্ত ২৬ দশমিক শূন্য ২ শতাংশ বৃদ্ধি এবং মৃত্যু ৪২ দশমিক ৭৪ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে। একই সময়ে সুস্থতা ১০ দশমিক ৮৩ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে।

২৪ ঘণ্টায় শনাক্ত ১৮৪৭ জন, মৃত্যু ২৮ জন

গতকাল শনিবার স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় ১২ হাজার ৬৪৩টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। এর মধ্যে রোগী শনাক্ত হয়েছে ১ হাজার ৮৪৭ জন। ২৪ ঘণ্টার নমুনা পরীক্ষায় রোগী শনাক্তের হার ১৪ দশমিক ৬১ শতাংশ। দেশে এখন পর্যন্ত করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছে ৪ লাখ ৪৫ হাজার ২৮১ জন।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের তথ্যমতে, ২৪ ঘণ্টায় মারা গেছেন ২৮ জন। এর মধ্যে ১৮ জন পুরুষ এবং ১০ জন নারী। ২৪ ঘণ্টায় মৃতদের বয়স বিশ্লেষণে দেখা যায়, ৬০ বছরের বেশি বয়সী ১৯ জন, ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে ছয়জন, ৪১ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে একজন, ৩১ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে একজন, ১১ থেকে ২০ বছরের মধ্যে একজন রয়েছেন। মৃতদের অঞ্চল বিশ্লেষণে দেখা যায়, ঢাকা বিভাগে ১৬ জন, চট্টগ্রামে তিনজন, রাজশাহী তিনজন, খুলনায় দুজন, বরিশালে দুজন, সিলেটে একজন এবং রংপুরে একজন রয়েছেন।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ১ হাজার ৯২১ জন। এর মধ্যে ঢাকা বিভাগে ১ হাজার ৪৫০ জন, চট্টগ্রাম বিভাগে ৩৫৩, রংপুরে ১৩, খুলনায় ১৫, বরিশালে ২৫, রাজশাহীতে ৪২ ও সিলেটে ২৩ জন রয়েছেন।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ২৪ ঘণ্টায় আইসোলেশনে যুক্ত হয়েছেন ১৬৪ জন এবং ছাড়া পেয়েছেন ৭২ জন। বর্তমানে আইসোলেশনে আছেন ১২ হাজার ৪১৬ জন। ২৪ ঘণ্টায় কোয়ারেন্টিন করা হয়েছে ৬৮১ জন এবং ছাড়া পেয়েছেন ৮২৭ জন। বর্তমানে কোয়ারেন্টিনে আছেন ৩৯ হাজার ৩৯৭ জন।

advertisement
Evaly
advertisement