advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

পিএসজিকে চমকে দিল মোনাকো

ক্রীড়া ডেস্ক
২২ নভেম্বর ২০২০ ০০:০০ | আপডেট: ২২ নভেম্বর ২০২০ ০০:১৩
advertisement

দুই গোলে পিছিয়ে থেকেও শেষ পর্যন্ত সেস ফ্যাব্রেগাসের পেনাল্টিতে পিএসজির বিপক্ষে লিগ ওয়ানে ৩-২ ব্যবধানে দারুণ এক জয় নিয়ে মাঠ ছেড়েছে মোনাকো। বর্তমান চ্যাম্পিয়নদের হয়ে দুটি গোলই করেছেন কিলিয়ান এমবাপ্পে। ২০১১ সালের পর এই প্রথম লিগে দুই গোলে এগিয়ে থেকে পরাজয়ের তিক্ত স্বাদ পেল পিএসজি।

সাবেক ক্লাবের বিপক্ষে প্রথমার্ধেই দুটি গোল দেন এমবাপ্পে। এর মধ্যে দ্বিতীয় গোলটি দিয়েছেন স্পট কিক থেকে। এ নিয়ে পিএসজির হয়ে ক্যারিয়ারের ৯৯তম গোল করলেন এই তরুণ ফরোয়ার্ড। ৩৭ মিনিটে এমবাপ্পের দুই গোলে পিএসজি যখন ২-০ ব্যবধানে এগিয়ে গিয়েছিল তখন মনে হচ্ছিল লিগে টানা নবম জয় তুলে নিতে সঠিক পথেই রয়েছে বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা। কিন্তু ২৮ বছর বয়সী জার্মান জাতীয় দলের অ্যাটাকার কেভিন ভোলান্ড হঠাৎ করেই ম্যাচের চেহারা পাল্টে দেন। দ্বিতীয়ার্ধের ৬৫ মিনিটের মধ্যে তার জোড়া গোলে সমতা ফেরায় স্বাগতিকরা। ৮৪ মিনিটে ফ্যাব্রেগাস ১২ গজ দূর থেকে বল জালে জড়িয়ে মোনাকোকে দারুণ এক জয় উপহার দেন। গুরুত্বপূর্ণ এ পেনাল্টির পেছনের খলনায়ক পিএসজির ফরাসি ডিফেন্ডার আবদু ডিয়ালো লালকার্ড পেলে বাকিটা সময় ১০ জন নিয়ে খেলতে হয়েছে সফরকারীদের। একজন কম নিয়ে খেলে আর ম্যাচে ফিরতে পারেনি টমাস টুখেলের দল।

পরাজয় সত্ত্বেও ১১ ম্যাচে ২৪ পয়েন্ট নিয়ে মোনাকোর থেকে চার পয়েন্ট এগিয়ে লিগ টেবিলের শীর্ষস্থানটি ধরে রেখেছে পিএসজি। কিন্তু আগামী সপ্তাহে আরবি লিপজিগের বিপক্ষে চ্যাম্পিয়নস লিগের গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচের আগে এই পরাজয়ে কিছুটা হলেও পিছিয়ে থাকবে পিএসজি।

দারুণ এই জয়ে নিকো কোভিচের মোনাকো লিগ টেবিলের দ্বিতীয় স্থানে উঠে এসেছে। এবারের মৌসুমে ইনজুরি ও নিষেধাজ্ঞার কারণে পিএসজি শুরু থেকেই বেশ দুশ্চিন্তায় রয়েছে। ফিটনেস সমস্যার কারণে গত সপ্তাহে ব্রাজিলের দুটি বিশ^কাপ বাছাইপর্বের ম্যাচে অনুপস্থিত থাকার পর পিএসজির হয়ে মাঠ বদলি খেলোয়াড় হিসেবে ৬০ মিনিটে মাঠে নেমেছিলেন নেইমার। হ্যামস্ট্রিং ইনজুরির কারণে আন্তর্জাতিক বিরতিতে ফ্রান্সের হয়ে এমবাপ্পেও দুটি ম্যাচ খেলতে পারেননি। সাবেক ক্লাব মোনাকোর হয়ে এমবাপ্পে ২০১৭ সালে লিগ ওয়ানের শিরোপা জিতেছিলেন। ২৫ মিনিটে অ্যাঞ্জেল ডি মারিয়ার সহায়তায় পিএসজিকে এগিয়ে দেন এমবাপ্পে। ফোফানহার বিপক্ষে রাফিনহার আদায় করা পেনাল্টি থেকে ৩৭ মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন এমবাপ্পে। দ্বিতীয়ার্ধ শুরুর সাত মিনিটের মধ্য জেলসন মার্টিনসের সহায়তায় ভোলান্ড এক গোল পরিশোধ করেন। ৮৪ মিনিটে পিএসজি গোলরক্ষক কেইলর নাভাসকে পরাস্ত করতে কোনো ভুল করেননি ফ্যাব্রেগাস।

advertisement
Evaly
advertisement