advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

ঘরে একা পেয়ে কিশোরীকে ‘ধর্ষণ’

নিজস্ব প্রতিবেদক,বগুড়া
২২ নভেম্বর ২০২০ ২০:১৯ | আপডেট: ২২ নভেম্বর ২০২০ ২০:৩০
আতিক হাসান ওরফে আইয়ুব
advertisement

বগুড়ার দুপচাঁচিয়া উপজেলার পল্লী এলাকায় ঘরে একা পেয়ে কিশোরীকে ধর্ষণের খবর পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় দায়ের করা মামলায় আতিক হাসান ওরফে আইয়ুব (২৫) নামে এক যুবককে গতকাল শনিবার রাতে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

আতিকের বাবার নাম আব্দুর রহমান। তিনি প্রবাসী। তারা উপজেলার চামরুল ইউনিয়নের বাসিন্দা।

মামলার এজাহার থেকে জানা গেছে, পল্লী এলাকার ওই কিশোরী (১৬) দশম শ্রেণির ছাত্রী। প্রতিদিন স্কুলে যাওয়ার সময় আতিক হাসান ওরফে আইয়ুব তাকে বিভিন্ন সময় প্রেম নিবেদনসহ বিয়ের প্রস্তাব দিতো। কিন্তু ভুক্তভোগী কখনও রাজি হয়নি। গত ৯ অক্টোবর রাত আনুমানিক ১০টার দিকে কিশোরীকে তার খালি ঘরে একা পেয়ে ধর্ষণ করে আতিক। এদিকে ভুক্তভোগীর বাবা জীবিকার তাগিদে ঢাকা-দুপচাঁচিয়া যাতায়াত করে থাকেন। তিনি গ্রামের ফেরার পর ঘটনাটি স্থানীয়ভাবে মিমাংসা করার চেষ্টা চালানো হয়।

দুপচাচিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হাসান আলী জানান, স্থানীয়ভাবে মিমাংসা সম্ভব না হওয়ায় ভুক্তভোগীর বাবা বাদী হয়ে গতকাল রাতে মামলা করেন। পুলিশ রাতেই আভিযান চালিয়ে মামলার একমাত্র আসামি আতিক হাসান ওরফে আইয়ুবকে নিজ বাড়ি থেকে গ্রেপ্তার করে। আজ রোববার তাকে বগুড়া জেল হাজতে পাঠানো হয়।

ওসি হাসান আলী বলেন, ‘আদালতে ধর্ষণের শিকার কিশোরীর জবানবন্দি রেকর্ড করা হয়েছে। এ ছাড়া তাকে স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।’

advertisement
Evaly
advertisement