advertisement
advertisement
advertisement
DBBL
advertisement
advertisement

প্রেমিকার বাড়িতে রাত কাটাতে গিয়ে ধরা ‘ভুয়া সাংবাদিক’

আগৈলঝাড়া প্রতিনিধি
৩ ডিসেম্বর ২০২০ ১৯:৩১ | আপডেট: ৩ ডিসেম্বর ২০২০ ১৯:৩১
ভুয়া সাংবাদিক আবুল বাশার মো. তারেক। ছবি : আমাদের সময়
advertisement

আগৈলঝাড়া প্রেমিকার বাড়িতে রাত কাটাতে গিয়ে আবুল বাশার মো. তারেক (৪০) নামের এক কথিত সাংবাদিক পুলিশের হাতে আটক হয়েছে। ওই নারীকে বিয়ের শর্তে মুচলেকা দিয়ে থানা থেকে ছাড়া পান তিনি। 

থানা ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার রাহুতপাড়া গ্রামের মোবাইল ফোনে পরিচয়ের সূত্র ধরে তালাকপ্রাপ্ত প্রেমিকার বাড়িতে প্রায়ই রাত কাটাতেন বিমানবন্দর থানা এলাকার রহমতপুর গ্রামের বাসিন্দা আবুল বাশার মো. তারেক। এরই ধারাবাহিকতায় এলাকাবাসী অতিষ্ট হয়ে গত মঙ্গলবার রাতে ওই প্রেমিকার সঙ্গে দেখা করতে বাসায় এলে আগৈলঝাড়া থানা পুলিশের উপপরিদর্শক (এসআই) মিজান অভিযান চালিয়ে তারেককে আটক করে।

আটক তারেক থানায় বসে নিজেকে মুসলিম টাইমস ও এশিয়া বানীর সাংবাদিক পরিচয় প্রদান করে। তারেক জানায়, সে দৈনিক আজকালের খবর পত্রিকার ব্যুরো চিফ হিসেবে কাজ করেছে। তবে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, আজকালের খবর পত্রিকায় সে কখনো কর্মরত ছিল না। তার দেওয়া পরিচয় ভুয়া। বরিশালের একাধিক সাংবাদিক তাকে সাংবাদিক হিসেবে চেনেন না বলেও নিশ্চিত করেছেন।  

অনুসন্ধানে জানা গেছে, তারেক উজিরপুর উপজেলায় প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিসে কর্মরত সহকারী প্রকৌশলী সৈয়দা শাহীনা আক্তারের দ্বিতীয় স্বামী। শাহীনা আক্তার জানান,  প্রতারক তারেক আগে রাস্তার পাশে বসে অষুধ বিক্রি করতেন। বিয়ের পরে একাধিক মেয়ের প্রতি তার আসক্তির বিষয়টি তার কাছে ধরা পরে। এমনকি তারেকের একাধিক বিয়ের বিষয়টিও জানতে পানে তিনি। তারেক একজন অশিক্ষিত লোক। তবে প্রতারণার ফাঁদে ফেলে নারীদের সর্বনাশ করে অর্থ হাতিয়ে নেওিয়াই তার কাজ। তারেকের বিরুদ্ধে তিনি বরিশাল বিমানবন্দর থানায় যৌতুক ও নারী নির্যাতনের মামলা দায়ের করেছেন।

তিনি আরও জানান, তারেকেরা ৩ ভাই ২ বোন। তারা সবাই বিভিন্ন প্রতারণার সঙ্গে যুক্ত। বাবা সেনাবাহিনীর গাড়িচালক থেকে অবসরে গেছেন। পুলিশ বার বার বরিশাল তারেকের ভাড়া বাসায় অভিযান চালিয়েও প্রতারক তারেককে গ্রেপ্তারে ব্যর্থ হয়েছে। বর্তমানে তারেক তার সঙ্গে কোনো সম্পর্ক রাখছেন না বলেও জানান তিনি।

এদিকে দিনভর থানায় আটক থাকার পরে গতকাল বুধবার সন্ধ্যায় তারেকের বাবা শাহজাহান হাওলাদার ওই নারীর সঙ্গে ছেলের বিয়ে দেওয়ার শর্তে আগৈলঝাড়া থানা থেকে মুচলেকা দিয়ে ছাড়িয়ে নেন।

থানা থেকে ছাড়িয়ে নেওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন আগৈলঝাড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি তদন্ত) মো. মাজাহারুল ইসলাম। তিনি জানান, ওই নারীর কোনো অভিযোগ না থাকায় মুচলেখা রেখে তারেকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।

advertisement
Evaly
advertisement