advertisement
advertisement
advertisement
DBBL
advertisement
advertisement

ছটফটিয়ে মরল ১৯৩ কবুতর

বড়াইগ্রাম (নাটোর) প্রতিনিধি
৫ ডিসেম্বর ২০২০ ০০:০০ | আপডেট: ৪ ডিসেম্বর ২০২০ ২৩:২৩
advertisement

দুই বিঘা জমিতে গমের বীজ বপন করেন এক কৃষক। ইঁদুর ও পাখির ‘অত্যাচার’ থেকে রক্ষায় জমিতে ছিটানোর আগে গমবীজে বিষ মিশিয়ে ছিলেন তিনি। পরদিনই খাবারের সন্ধানে ওই ক্ষেতে নামে এক ঝাক কবুতর। মনের আনন্দে গমের বীজ খেতে থাকে ওরা। অবুঝ পাখিতো আর জানত না- কী পরিণতি অপেক্ষা করছে তাদের জন্য! অল্প কিছুক্ষণের মধ্যেই বিষের যন্ত্রণায় ছটফট করতে করতে একে একে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়ে ১৯৩টি কবুতর। নাটোরের বড়াইগ্রামের বনপাড়া পৌরসভার কালিকাপুর বেড়পাড়া এলাকায় গতকাল শুক্রবার সকাল ৮টার দিকে ঘটে

হৃদয়বিদারক এ ঘটনা।

জানা যায়, ওই এলাকার নবীরউদ্দীনের ছেলে আলম হোসেন আগের দিন বৃহস্পতিবার বিকালে তার জমিতে বিষ মেশানো গমের বীজ বপণ করে। পরের দিন সকালে আশপাশের এলাকা থেকে কবুতর এসে তা খেলে মুহূর্তেই কবুতরগুলো মরে ওই জমিসহ আশপাশের জমিতে আছড়ে পড়ে।

বনপাড়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের উপপরিদর্শক (এসআই) আব্দুল বারেক জানান, গমবীজ বপণের পরে সেগুলো যদি পাখি বা ইঁদুর খেয়ে ফেলে সেটা যেমন কৃষকের ক্ষতি হয়। ঠিক তেমনি বিষ মাখানো বীজ খেয়ে কবুতরের মৃত্যু ঘটনাতেও কবুতরের মালিকদের ক্ষতি হয়েছে। জীব বৈচিত্র্য রক্ষার লক্ষ্যে বীজ বা খাদ্যে বিষ মিশিয়ে পাখি নিধন আইনত দ-নীয় অপরাধ। এ রকম জঘন্য কাজ দেশের আইন সমর্থন করে না। এ ব্যাপারে খোঁজ নিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

বনপাড়া পৌরসভার মেয়র কেএম জাকির হোসেন জানান, কালিকাপুর, মহিষভাঙা ও বেড়পাড়া এলাকার ইদ্রিস আলী, রকি, রতন, মাহফুজ, আহসান মোল্লা, মালেক মোল্লা, টিপু হোসেনের বাড়ির পোষা কবুতরগুলো মারা গেছে।

advertisement
Evaly
advertisement