advertisement
advertisement
advertisement
DBBL
advertisement
advertisement

আত্মবিশ্বাস বেড়েছে মিরাজের

ক্রীড়া প্রতিবেদক
১৪ জানুয়ারি ২০২১ ০০:০০ | আপডেট: ১৪ জানুয়ারি ২০২১ ০০:৪৮
মেহেদী হাসান মিরাজ
advertisement

প্রতিপক্ষ ওয়েস্ট ইন্ডিজ বলেই আত্মবিশ্বাস বেড়েছে মেহেদী হাসান মিরাজের। নিজেকে ফিরে পাওয়ার লড়াইয়ে জয়ী হতে চান তিনি। টাইগারদের প্রস্তুতি ক্যাম্পে নিজেকে ঝালিয়ে নিচ্ছেন বাংলাদেশের এই অলরাউন্ডার। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে উইন্ডিজের বিপক্ষেই তার রেকর্ড সবচেয়ে ভালো।

গতকাল অনুশীলন শেষে মিরাজ সংবাদ মাধ্যমকে বলেন, ‘শেষ তিন-চারটা আন্তর্জাতিক ম্যাচে অতটা ভালো করতে পারিনি, সেটা দেশের মাটিতে বা দেশের বাইরে। যেহেতু ওয়েস্ট ইন্ডিজ আসছে, আমার জন্য একটা বাড়তি সুবিধা থাকবে। দেশের মাটিতে খেলা টেস্ট, ওয়ানডে দুই সংস্করণেই ওদের বিপক্ষে ভালো করেছি।’

দুই ওয়ানডে ও তিন টেস্ট খেলতে গত রবিবার ঢাকায় এসে পৌঁছেছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট দল। ২০ জানুয়ারি প্রথম ওয়ানডে দিয়ে মাঠে গড়াবে সিরিজ। উইন্ডিজ সিরিজ সামনে রেখে ২৪ সদস্যের ওয়ানডে ও ২০ সদস্যের টেস্ট দল ঘোষণা করেছে বিসিবি। আজ ও পরশু (১৬ জানুয়ারি) প্রাথমিক দলে ডাক পাওয়া ক্রিকেটাররা নিজেদের মধ্যে দুদলে ভাগ হয়ে দুটি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলবেন। এর পর ১৭ জানুয়ারি মিনহাজুল আবেদীন নান্নুর নির্বাচক প্যানেল বাংলাদেশের চূড়ান্ত দল ঘোষণা করবেন। মিরাজ সে দলে থাকবেন কিনা তা সময়ই বলে দেবে। তবে অতীতে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে তার রেকর্ড ভালো বলেই আশাবাদী তিনি। মিরাজের কাছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ যেন প্রিয় প্রতিপক্ষ। ক্যারিবিয়ানদের বিপক্ষে ৪ টেস্টে ২৫ উইকেট শিকার করেন তিনি। এর মধ্যে দেশের মাটিতে ২ টেস্টে ১৫ উইকেট। তার ২২ টেস্টে ৯০ উইকেট শিকারের ক্যারিয়ারে ইনিংস সেরা (৭/৫৮) ও ম্যাচসেরা (১২/১১৭) বোলিং ফিগার দুটোই ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে। প্রিয় প্রতিপক্ষের বিপক্ষে ১০ ওয়ানডেতে ১২ উইকেট নিয়েছেন তিনি। দেশের মাটিতে ৩ ম্যাচে ৬টি। তবে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে অতীত রেকর্ড তার পক্ষে কথা বললেও সাম্প্রতিক অতীত তার পক্ষে নেই! এ ছাড়া দলে প্রতিদ্বন্দ্বীর সংখ্যা এখন বেড়েছে। পারফরম্যান্স ছাড়া সুযোগ পাওয়া কঠিন।

মিরাজ বলেন, ‘দেশের মাটিতে এবং দেশের বাইরে শেষ যে কয়টা ম্যাচ খেলেছি, প্রত্যাশা অনুযায়ী ভালো করতে পারিনি। তবে আমার জন্য আলাদা অ্যাডভান্টেজ থাকবে, যেহেতু ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে আগেও ভালো করেছি। তার ওপর ওয়ানডে এবং টেস্ট- দুটোই দেশের মাটিতে খেলা। এখানে যদি ভালো কিছু করতে পারি তা হলে নিজেকে কামব্যাক করার ভালো সুযোগ পাব। তবে এটাও চেষ্টা করব নিজের পারফরম্যান্সটা ভালো করার জন্য যাতে দিনশেষে দলও ভালো প্রত্যাশা অনুযায়ী ফল পায়।’

নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে জাতীয় দলে ফিরেছেন সাকিব আল হাসান। তাকে পেয়ে সতীর্থরা খুব খুশি। সাইফউদ্দিন বলেছিলেন, আমাদের মধ্যে এক বছর পর সাকিব ভাই ফিরে এসেছেন, এ কারণে ভালো লাগাটা অন্যরকম। গতকাল মিরাজের কণ্ঠে পাওয়া গেল স্বস্তি। তিনি বলেন, ‘অনেক দিন পর একসঙ্গে হয়েছি এবং আমাদের সবাই খুব খেলার জন্য উৎফুল্ল। বিশেষ করে, আমাদের সাকিব ভাইও দলে ফিরেছেন। এক বছর তিনি বাইরে ছিলেন। তার অনুপস্থিতিতে যে দীর্ঘদিন খেলা হয়নি এটা আমাদের জন্য প্লাস পয়েন্ট।’

 

 

 

 

advertisement
Evaly
advertisement