advertisement
advertisement
advertisement
DBBL
advertisement
advertisement

শুরু হচ্ছে জাতীয় ডিজিটাল ভূমি জোনিংয়ের কাজ

নিজস্ব প্রতিবেদক
১৪ জানুয়ারি ২০২১ ০০:০০ | আপডেট: ১৩ জানুয়ারি ২০২১ ২৩:২৩
advertisement

শিগগিরই শুরু হচ্ছে ‘মৌজা ও প্লটভিত্তিক জাতীয় ডিজিটাল ভূমি জোনিং প্রকল্পের’ কাজ। ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরীর নির্দেশে এ কাজ শুরু করতে এরই মধ্যে স্থানীয় পর্যায়ে পরামর্শক নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়েছে। গতকাল বুধবার ভূমি মন্ত্রণালয় থেকে গণমাধ্যমে পাঠানো সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ভূমি মন্ত্রণালয়ের বাস্তবায়নাধীন ‘মৌজা ও প্লটভিত্তিক জাতীয় ডিজিটাল ভূমি জোনিং প্রকল্পের’ কাজ শুরু হচ্ছে শিগগিরই। এ প্রকল্পের অধীনে স্থানীয় পর্যায়ে চুক্তিভিত্তিক পরামর্শক নিয়োগের জন্য যোগ্যতা ও অভিজ্ঞতাসম্পন্ন বাংলাদেশি নাগরিকদের কাছ থেকে দরখাস্ত আহ্বান করে বিজ্ঞপ্তিও প্রকাশ করা হয়েছে।

এতে আরও বলা হয়, কৃষিজমি সুরক্ষায় প্রায় ৩৩৭ কোটি ৬০ লাখ টাকা প্রাক্কলিত ব্যয়ে ‘মৌজা ও প্লটভিত্তিক জাতীয় ডিজিটাল ভূমি জোনিং

প্রকল্প’ গত ২৯ সেপ্টেম্বর (২০২০) জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির সভায় অনুমোদিত হয়। জনস্বার্থে পরে ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী প্রকল্পটি দ্রুত ও সফলভাবে শুরু করার নির্দেশনা দেন। ভূমি সচিব মো. মোস্তাফিজুর রহমান এ প্রকল্পে পরামর্শক নিয়োগের কাজটি শুরু করার উদ্যোগ গ্রহণ করেন।

এ প্রকল্পের মাধ্যমে গুণাগুণ অনুযায়ী ভূমিকে প্লটওয়ারি কৃষি, আবাসন, বাণিজ্যিক, পর্যটন ও শিল্প উন্নয়ন ইত্যাদি ক্যাটাগরিতে বিভক্ত করে মৌজা ও প্লটভিত্তিক ডিজিটাল ভূমি জোনিং ম্যাপ ও ভূমি ব্যবহার পরিকল্পনা প্রণয়ন করা হবে। একই সঙ্গে মাঠপর্যায়ে সুষ্ঠু ভূমি ব্যবস্থাপনার জন্য সারাদেশে মৌজা ও প্লটভিত্তিক ডেটাবেজ প্রণয়ন করা হবে।

প্রকল্পটির মাধ্যমে প্লট নম্বর এবং প্লটভিত্তিক বিস্তারিত তথ্যাদি ভূমি জোনিং মানচিত্রে তুলে ধরা হবে। যেন জেলা ও উপজেলা পর্যায়ের ভূমি প্রশাসনের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তারা এ তথ্য ব্যবহারের মাধ্যমে অপ্রতুল ভূমিসম্পদের যথাযথ ব্যবহার করে দেশের ভূমিসম্পদ সংরক্ষণে যথাযথ ভূমিকা রাখতে পারেন।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে আরও জানানো হয়, দেশে কৃষিজমির পরিমাণ মোট জমির ৮৪ শতাংশ। তবে জনসংখ্যা বৃদ্ধির সঙ্গে সঙ্গে নতুন আবাসন, রাস্তাঘাট, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসহ বিভিন্ন অবকাঠামো নির্মাণের জন্য জমি ব্যবহারের ফলে কৃষিজমির পরিমাণ প্রতিনিয়ত কমে যাচ্ছে। কৃষিজমি সুরক্ষা ও সর্বোপরি দেশের সামগ্রিক খাদ্যনিরাপত্তা নিশ্চিতকরণে ভূমির যথাযথ ব্যবহার অপরিহার্য। প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হলে দেশের কৃষিজমি সুরক্ষায় একটি গুরুত্বপূর্ণ মাইলফলক অর্জিত হবে। দেশের অপ্রতুল ভূমিসম্পদের সর্বোত্তম ব্যবহার নিশ্চিত করাই প্রকল্পটির মূল লক্ষ্য।

টিম লিডার বা চিফ টেকনিক্যাল এক্সপার্টসহ আট ধরনের পদে পরামর্শক হিসেবে চুক্তিভিত্তিক নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়েছে। আগামী ২ ফেব্রুয়ারির মধ্যে নির্ধারিত ছকে ভূমি মন্ত্রণালয়ের সচিব বরাবর আবেদন করার কথা বলা হয়েছে। বিস্তারিত নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি, টার্মস অব রেফারেন্স ও আবেদনপত্রের ছক ভূমি মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটের নোটিশ বোর্ডে (িি.িসরহষধহফ.মড়া.নফ) পাওয়া যাবে।

advertisement
Evaly
advertisement