advertisement
advertisement
advertisement
DBBL
advertisement
advertisement

সচিবালয়ের ভবন নির্মাণে ঠিকাদার নিয়োগে প্রস্তাব

নিজস্ব প্রতিবেদক
১৪ জানুয়ারি ২০২১ ০০:০০ | আপডেট: ১৪ জানুয়ারি ২০২১ ০১:২৪
advertisement

প্রশাসনিক প্রাণকেন্দ্র বাংলাদেশ সচিবালয়ে ২০ তলাবিশিষ্ট আরও একটি নতুন অফিস ভবন নির্মাণে ১৯৩ কোটি ৭৩ লাখ টাকায় ঠিকাদার নিয়োগের প্রস্তাব অনুমোদন দিয়েছে সরকারি ক্রয়সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটি। গতকাল অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামালের সভাপতিত্বে ভার্চুয়ালি অনুষ্ঠিত সরকারি ক্রয়সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির বৈঠকে এ সংক্রান্ত একটি ক্রয় প্রস্তাবের অনুমোদন দেওয়া হয়। সভায় কমিটির সদস্য, মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সিনিয়র সচিব, সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের সচিব ও ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা অংশ নেন। সভা শেষে অনুমোদিত ক্রয় প্রস্তাবগুলোর বিভিন্ন দিক তুলে ধরেন অর্থমন্ত্রী ও মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের অতিরিক্ত সচিব ড. আবু সালেহ মোস্তফা কামাল।

বৈঠক শেষে অর্থমন্ত্রী বলেন, বৈঠকে অর্থনৈতিক বিষয়সংক্রান্ত কমিটির অনুমোদনের জন্য ১টি এবং ক্রয় কমিটির অনুমোদনের জন্য ৫টি প্রস্তাব উত্থাপন করা হয়। ক্রয় কমিটির প্রস্তাবনাগুলোর মধ্যে খাদ্য মন্ত্রণালয়ের ১টি, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ বিভাগের ১টি, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় বিভাগের ১টি, পরিসংখ্যান ও তথ্য ব্যবস্থাপনা বিভাগের ১টি এবং গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের ১টি প্রস্তাবনা ছিল। সব ক্রয় প্রস্তাব অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।

মন্ত্রী বলেন, ক্রয় কমিটির অনুমোদিত ৫টি প্রস্তাবে মোট অর্থের পরিমাণ ৬০৭ কোটি ৭৪ লাখ ৫ হাজার ৫৬৮ টাকা। মোট অর্থায়নের মধ্যে জিওবি থেকে ব্যয় হবে ৫৯৪ কোটি ৭১ লাখ ৮৩৪ টাকা এবং বিশ্বব্যাংক থেকে ঋণ নেওয়া হবে ১৩ কোটি ৩ লাখ ৪ হাজার ৭৩৪ টাকা।

অনুমোদিত প্রস্তাবনাগুলো বিস্তারিত তুলে ধরে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের অতিরিক্ত সচিব ড. সালেহ বলেন, গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের অধীন গণপূর্ত অধিদপ্তরের ‘বাংলাদেশ সচিবালয়ে ২০ তলাবিশিষ্ট নতুন অফিস ভবন নির্মাণ’ প্রকল্পের ডব্লিউ ডি-২(এ) লটের পূর্ত কাজের ঠিকাদার নিয়োগের প্রস্তাব অনুমোদন দিয়েছে কমিটি। এতে ব্যয় হবে ১৯৩ কোটি ৭৩ লাখ ৮০ হাজার ৩৪ টাকা। প্রকল্পটি যৌথভাবে বস্তবায়ন করবে- দি সিভিল ইঞ্জিনিয়ার্স লিমিটেড, ন্যাশনাল ডেভেলপমেন্ট ইঞ্জিনিয়ার্স লিমিটেড এবং বঙ্গ বিল্ডার্স লিমিটেড।

অতিরিক্ত সচিব বলেন, বৈঠকে খাদ্য মন্ত্রণালয়ের অধীন খাদ্য অধিদপ্তরের আন্তর্জাতিক কোটেশনের মাধ্যমে ২০২০-২১ অর্থবছরে ৫০ হাজার টন গম আমদানি করার একটি ক্রয় প্রস্তাবে অনুমোদন দিয়েছে সরকারি ক্রয়সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটি। প্রতি টন গমের দাম পড়বে ৩২৬ দশমিক ৯২ ডলার। সে হিসাবে প্রতিকেজি গমের দাম পড়বে ২৭ দশমিক ৭২২ টাকা (প্রতি ডলার ৮৪ দশমিক ৮০ টাকা)। মোট ব্যয় হবে ১৩৮ কোটি ৬১ লাখ ৪০ হাজার ৮০০ টাকা। সিঙ্গাপুরভিত্তিক মেসার্স অ্যাগ্রোকর্প ইন্টারন্যাশনাল প্রাইভেট লিমিটেড এই গম সরবরাহ করবে।

বৈঠকে অনুমোদিত অন্য প্রস্তাবগুলো হলো- জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ বিভগের আওতায় ভারতের নুমালিগড় রিফাইনারি লিমিটেড থেকে জি টু জি ভিত্তিতে জানুয়ারি থেকে জুন ২০২১ সময়ের জন্য ৩০ হাজার টন ডিজেল বা ২ লাখ ২৩ হাজার ৮০০ ব্যারেল জ্বালানি আমদানির একটি ক্রয় প্রস্তাবে অনুমোদন দিয়েছে কমিটি। এ জন্য ব্যয় হবে ১০৭ কোটি ৭২ লাখ টাকা।

এর আগে অর্থমন্ত্রীর সভাপতিত্বে অর্থনৈতিক বিষয়সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। সভায় প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের আওতায় গ্রিসের এথেন্সে ‘বঙ্গবন্ধু শেখ মুুজিবুর রহমান সেন্টিননিনাল স্কুল’ স্থাপনের একটি প্রস্তাবে অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। এই প্রকল্পে অর্থ ব্যয়ে পিপিএ ২০০৬ এর ৬৮(১) এবং পিপিআর ২০০৮-এর বিধি ৭৬(২) হতে অব্যাহতি এবং গ্রিসের স্থানীয় আইন অনুসরণের অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।

advertisement
Evaly
advertisement