advertisement
advertisement
advertisement
DBBL
advertisement
advertisement

স্বাধীনতার ৫০ বছরেও দেশে ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠা হয়নি : নুর

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক
১৪ জানুয়ারি ২০২১ ১৯:৫৮ | আপডেট: ১৪ জানুয়ারি ২০২১ ২১:২০
ডাকসুর সাবেক ভিপি নুরুল হক নুর। পুুরোনো ছবি
advertisement

স্বাধীনতার ৫০ বছরেও দেশে ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠা হয়নি বলে মন্তব্য করেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) সাবেক ভিপি নুরুল হক নুর। তিনি বলেছেন, ‘দেশে যদি গণতন্ত্র না থাকে তাহলে রাষ্ট্র ব্যর্থ হতে বাধ্য।’ আজ বৃহস্পতিবার নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যের দাম বৃদ্ধির প্রতিবাদে রাজধানীর শাহবাগে যুব অধিকার পরিষদ আয়োজিত বিক্ষোভ সমাবেশে তিনি এসব কথা বলেন।

নুরুল হক নুর বলেন, ‘দ্রব্যমূল্যের দাম বৃদ্ধি স্বাভাবিক প্রক্রিয়ায় হচ্ছে না। যারা বিদেশে টাকা পাচার করছে, তারাই সিন্ডিকেটের মাধ্যমে বাজার নিয়ন্ত্রণ করছে।’ দেশে পেঁয়াজের ভরা মৌসুমেও ভারত থেকে পেঁয়াজ আমদানির অনুমতি দেওয়ার বিষয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করে দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে আনার দাবি জানান তিনি। এ সময় দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণ করতে সরকার ব্যর্থ হলে সচিবালয় ঘেরাও করা হবে বলে হুঁশিয়ারি দেন নুর।

সরকার দিনবদলের সনদ নামে ভাওতাবাজির ইশতেহার দিয়েছিল মন্তব্য করে নুরুল হক নুর বলেন, ‘১০ টাকার চাল এখন ৭০ টাকায় খেতে হচ্ছে। পাঁচ টাকার লবণ এখন বত্রিশ টাকায় খেতে হচ্ছে। ভাওতাবাজির নামে ৪৯ বছর রাজনৈতিক দলগুলো ক্ষমতায় থেকেছে। জনগণের উপর অত্যাচার নিপীড়ন চালিয়েছে। এই ভোটারবিহীন সরকার দেশকে ব্যর্থ ও অকার্যকর রাষ্ট্রে পরিণত করেছে। রাষ্ট্রীয় আইনশৃঙ্খলাবাহিনীসহ সমস্ত জায়গায় দলীয়করণের মাধ্যমে দুর্বৃত্তায়ন ঘটানো হয়েছে। ফলে সমাজে গুম-খুন-ধর্ষণের মতো অপরাধ বাড়ছে। ধর্ষণের আইন মৃত্যুদণ্ড করা হয়েছে। কিন্তু ধর্ষণ কমছে না। শুধু আইন করলে তো হবে না, আইনের প্রয়োগ করতে হবে।’

সমাবেশের শুরু থেকে সেখানে শতাধিক পুলিশ মোতায়ন করা হয়। পুলিশের উপস্থিতির সমালোচনা করে নুর বলেন, ‘আমরা কোনো সরকারবিরোধী রাজনৈতিক প্রোগ্রাম করতে আসিনি। আমরা এসেছি দেশের দ্রব্যমূল্যের উর্ধ্বগতি নিয়ে কথা বলতে। কিন্তু এখানে এত পুলিশ কেন?’

সমাবেশে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন- বাংলাদেশ ছাত্র অধিকার পরিষদের ভারপ্রাপ্ত আহ্বায়ক রাশেদ খান, যুগ্ম আহ্বায়ক ফারুক হাসান, মুনতাসির রহমান, যুব অধিকার পরিষদের যুগ্ম আহ্বায়ক তারেক রহমান, শ্রমিক অধিকার পরিষদের আহ্বায়ক আবদুর রহমান খান প্রমুখ। সমাবেশে যুব পরিষদের শতাধিক নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন।

সমাবেশ শেষে মিছিল করতে চাইলে পুলিশের বাধার মুখে পড়েন তারা। পরে পুলিশের জেরার মুখে তারা দ্রুত স্থান ত্যাগ করেন।

advertisement
Evaly
advertisement