advertisement
advertisement
advertisement
DBBL
advertisement
advertisement

বেনাপোলে গত বছর ১২০ কোটি টাকা জব্দ , আটক ৩০৪

১৫ জানুয়ারি ২০২১ ২০:৩৪
আপডেট: ১৫ জানুয়ারি ২০২১ ২০:৩৪
পুরোনো ছবি
advertisement

করোনাকালেও নিরাপত্তার সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বেড়েছিল যশোরের বেনাপোল সীমান্ত পথে চোরাচালান। বাংলাদেশ ও ভারতের সীমান্তরক্ষী বিজিবি-বিএসএফের চোখ ফাঁকি দিয়ে প্রায় প্রতিদিনই ঘটেছে মাদকসহ বিভিন্ন পণ্যের পাচার।

২০২০ সালে বেনাপোল সীমান্ত থেকে শুধু ৪৯ ব্যাটালিয়ন বিজিবির অভিযানে ১১৯ কোটি ৮২ লাখ ৩৪ হাজার টাকা মূল্যের মাদক, স্বর্ণ, আগ্নেয়াস্ত্র, বৈদেশিক মুদ্রা এবং গার্মেন্টসসহ বিভিন্ন ধরনের চোরাচালান পণ্য জব্দ করা হয়। এ সময়ের মধ্যে পাচারের সঙ্গে জড়িত ৩০৪ জনকে আটক করা হয়।

বিজিবি সূত্রে জানা যায়, সীমান্ত নিরাপত্তা ও চোরাচালান রোধসহ সব ধরনের পাচার কার্যক্রম প্রতিহত করতে বছর ধরে বিজিবি নিয়মিত অভিযান পরিচালনা করে আসছে।  এরই অংশ হিসাবে গত বছরের ০১ জানুয়ারি হতে ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত এক বছরে বিজিবির অভিযানে ৩৩ হাজার ৬৯৮ বোতল ফেনসিডিল, ৪১ কেজি ৭৭২ গ্রাম স্বর্ণ, ৭ লাখ ৩৮ হাজার ইউএস ডলার, ২২ লাখ ৯২ হাজার ২০০ ভারতীয় রুপি, ১৩টি পিস্তল, ২৪টি ম্যাগজিন, ৫৮ রাউন্ড গুলি, ৫৪৮ বোতল মদ, ১২১২ পিস ইয়াবা ও ৯১৫ কেজি গাঁজা জব্দ করা হয়।

এ ছাড়া আটক হয় বিপুল পরিমাণে চন্দন কাঠ, গার্মেন্টস ও কসমেটিকস সামগ্রী। এ সময় চোরাচালানের সাথে জড়িত ৩০৪ জন আটক হয়। জব্দকৃত মাদক ও চোরাচালান পণ্যের বাজার মুল্য ১১৯ কোটি ৮২ লাখ ৩৪ হাজার টাকা বলে জানায় বিজিবি।

উল্লেখ্য, যশোর এলাকায় ভারতের সঙ্গে ৭০ কিলোমিটার সীমান্ত পথ রয়েছে। সেখানে সীমান্ত রক্ষায় ও চোরাচালান প্রতিরোধে কাজ করছে ৫ শতাধিক বিজিবি সদস্য। বিজিবি সীমান্তে নাইট ভিশন ক্যামেরা, ভাসমান বিওপি, নৌরুটে স্পিড বোটসহ বেশ কিছু আধুনিক প্রযুক্তি সংযুক্ত রয়েছে।

advertisement
Evaly
advertisement