advertisement
advertisement
advertisement
DBBL
advertisement
advertisement

পুলিশ-র‌্যাবের সঙ্গে এলাকাবাসীর সংঘর্ষ, দুই মামলায় গ্রেপ্তার ৫

আশরাফুল ইসলাম,গাইবান্ধা
১৭ জানুয়ারি ২০২১ ২২:২৪ | আপডেট: ১৭ জানুয়ারি ২০২১ ২২:২৪
advertisement

গাইবান্ধা পৌরসভায় স্বতন্ত্র প্রার্থী মতলুবর রহমান ১২ হাজার ৩৯৮ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. আনওয়ার-উল-সরওয়ার (রেল ইঞ্জিন) প্রতীকে পেয়েছেন ৭ হাজার ৯৭০ ভোট। আওয়ামী লীগের প্রার্থী শাহ মাসুদ জাহাঙ্গীর কবীর মিলন পেয়েছেন ৭ হাজার ৩০১ ভোট।

এদিকে, সারাদিন নির্বাচনী পরিবেশ ভালো থাকলেও দিনের শেষ হতে হতে পরিস্থিতি পাল্টে যায়। আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর ওপর ‘হামলা, গাড়ি ভাঙচুর ও আগুন’ দেওয়ার ঘটনা ঘটে। দায়ের করা হয় দুটি মামলা। মামলার পরিপ্রেক্ষিতে গ্রেপ্তার করা হয় ৫ ব্যক্তিকে।

নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতায় হামলাকারীরা পুলিশের একটি গাড়িতে আগুন লাগিয়ে দেয়। ম্যাজিস্ট্রেট এবং র‌্যাবের আরও তিনটি গাড়ি ভাঙচুর করে। গাড়ি ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগের ঘটনায় সদর থানায় আজ রোববার পৃথক দুটি মামলা দায়ের করা হয়। গ্রেপ্তার পাঁচজনসহ মামলা দুটির মোট আসামি ১৫০।

শনিবার সন্ধ্যায় পৌরসভার পূর্বকোমরনই সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে ভোট গণনা শেষে ফল ঘোষণা করার পর হামলা চালিয়ে র‌্যাব ও পুলিশের গাড়ি ভাঙচুরসহ আগুন দেওয়া হয় বলে পুলিশের অভিযোগ।

সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মাহফুজুর রহমান সাংবাদিকদরে বলেন, র‌্যাবের মামলায় ৪১ এবং পুলিশের মামলায় ৪৭ জনের নাম উল্লেখ্যসহ দেড়শ জনকে অজ্ঞাত আসামি করে পৃথক ভাবে দুটি মামলা করা হয়েছে। ৫ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। অন্যান্য আসামিদের গ্রেপ্তারে পুলিশ সচেষ্ট রয়েছে। অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে কোমরনই এলাকাসহ শহরজুড়ে পুলিশি টহল জোরদার করা হয়েছে।

পরিস্থিতি এখন পুলিশের নিয়ন্ত্রণে আছে জানিয়ে পুলিশ সুপার তৌহিদুল ইসলাম বলেন, ‘পূর্ব পরিকল্পিতভাবে শান্তিপূর্ণ পরিবেশ নষ্ট করতে এ হামলা চালানো হয়। হামলার সাথে জড়িত কেউই ছাড় পাবে না।’

advertisement
Evaly
advertisement