advertisement
advertisement
advertisement
DBBL
advertisement
advertisement

কেরানীগঞ্জে ব্যাডমিন্টন খেলা নিয়ে সংঘর্ষে কিশোর নিহত

বগুড়ায় শিশুকে শ্বাসরোধে হত্যা

নিজস্ব প্রতিবেদক বগুড়া ও কেরানীগঞ্জ সংবাদদাতা
১৮ জানুয়ারি ২০২১ ০০:০০ | আপডেট: ১৭ জানুয়ারি ২০২১ ২৩:৩৫
advertisement

ঢাকার কেরানীগঞ্জে ব্যাডমিন্টন খেলা নিয়ে দুই কিশোর গ্রুপের সংঘর্ষে সানজু মিয়া (১৫) নামে একজন নিহত হয়েছে। আহত হয়েছে আরও পাঁচজন। এ ঘটনায় দুজনকে আটক করেছে পুলিশ। কালিন্দি এলাকায় শনিবার রাত ১১টার দিকে এ সংঘর্ষ হয়।

এদিকে শিবগঞ্জে শেখ স্বাধীন নামে (৮) এক মাদ্রাসাছাত্রকে শ^াসরোধে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। গতকাল বেলা সাড়ে ১১টায় উপজেলার কিচক ইউনিয়নের ঈদগাহ মাঠসংলগ্ন গাংনাই নদীর তীর থেকে তার লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। সে আমতলী মাছপাড়া এলাকার শেখ শাহ আলম মিয়ার ছেলে ও স্থানীয় একটি মাদ্রাসার হেফজ বিভাগের ছাত্র ছিল।

কেরানীগঞ্জ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কাজী মাইনুল ইসলাম জানান, ব্যাডমিন্টন খেলা নিয়ে সংঘর্ষে গুরুতর আহত হয় সানজু মিয়াসহ ছয়জন। তাদের উদ্ধার করে ঢাকার স্যার সলিমুল্লাহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে (মিডফোর্ড) ভর্তি করা হলে দায়িত্বরত চিকিৎসক সানজুকে মৃত ঘোষণা করেন।

ওসি আরও জানান, আহতদের মধ্যে নাঈম (১৪), রোহান (১৬) ও আলভি (১৬) নামে তিন কিশোরের অবস্থা আশঙ্কাজনক। তারা ওই হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। এ ঘটনায় কালিন্দী এলাকার রবিউল (১৪) ও রবিন (২৪) নামে দুই কিশোরকে আটক করেছে পুলিশ।

নিহতের পরিবার ও এলাকাবাসী জানায়, সানজু রাতে বাসায় মায়ের সঙ্গে চা পান করছিল। এ সময় তার মোবাইলে একটি ফোন আসে। ফোন পেয়ে সানজু ব্যাডমিন্টন খেলতে বাসার বাইরে যায়। কিছুক্ষণ পর সানজুর চিৎকারে বাসা থেকে পরিবারের লোকজন বের হয়ে দেখেনÑ তার মাথা ও বুকে ছুরির আঘাত। এলাকাবাসীর সহযোগিতায় তাকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

এদিকে শিবগঞ্জে নিহত স্বাধীনের মাদ্রাসার মুহতামিম শহিদুল ইসলাম জানান, শনিবার সন্ধ্যায় নিখোঁজ হয় স্বাধীন।

নিহতের চাচা মইনুল হক বলেন, স্বাধীন ওই মাদ্রাসায় আবাসিকের ছাত্র ছিল। শনিবার বিকাল থেকে সে নিখোঁজ থাকলেও মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষ আমাদের জানায়নি।

শিবগঞ্জ থানার ওসি এসএম বদিউজ্জামান বলেন, স্বাধীনকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট এলে মৃত্যুর প্রকৃত রহস্য উদঘাটন করা হবে। স্বাধীনের বাবা থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। লাশ মর্গে পাঠানো হয়েছে। মৃত্যুর কারণ উদঘাটনের চেষ্টা চলছে।

advertisement