advertisement
advertisement
advertisement
DBBL
advertisement
advertisement

ভারতের সেরাম ইনস্টিটিউট থেকে ৫ জনের লাশ উদ্ধার

অনলাইন ডেস্ক
২১ জানুয়ারি ২০২১ ১৯:৫৯ | আপডেট: ২১ জানুয়ারি ২০২১ ২২:১২
ভারতের সেরাম ইনস্টিটিউটে লাগা আগুন
advertisement

ভারতের পুনেতে করোনাভাইরাসের টিকা উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান সেরাম ইনস্টিটিউটের নির্মাণাধীন ভবনে অগ্নিকাণ্ডে এখন পর্যন্ত ৫ জনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। তবে সেরাম কর্তৃপক্ষ বলছে, করোনা টিকার কোনো ক্ষতি হয়নি।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভির খবরে বলা হয়, আজ বৃহস্পতিবার দুপুরের দিকে পুনেতে সেরামের মঞ্জরির কারখানার পঞ্চম তলায় আগুন লাগে। এরপরই ধোঁয়ায় ঢেকে যায় আশেপাশের এলাকা। এর ফলে, ওই পুরো এলাকায় আতঙ্ক তৈরি হয়।

এ আগুনের ফলে মজুত থাকা করোনা টিকা ‘কোভিশিল্ড’র ক্ষতির আশঙ্কা করা হচ্ছে। তবে সেরামের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, যেখানে আগুন লেগেছে, সেখান থেকে অনেকটা দূরে করোনা টিকা তৈরির কারখানা ও সংরক্ষণাগার।  তাই করোনা টিকার ক্ষতি হওয়ার কোনো আশঙ্কা নেই।

সেরাম ইনস্টিটিউটের প্রধান আদর পুনাওয়ালা এক বিবৃতিতে বলেন, ‘সরকার ও মানুষকে আমি আশ্বস্ত করতে চাইছি যে একাধিক কারখানার জন্য কোভিশিল্ডের উৎপাদনের ক্ষেত্রে কোনো ক্ষতি হবে না। এরকম পরিস্থিতি সামলানোর জন্য সেরাম ইনস্টিটিউট অব ইন্ডিয়ায় আরও কয়েকটি স্থান রাখা ছিল।’

এদিকে, আজ বৃহস্পতিবার সকালে ভারত থেকে পাঠানো ২০ লাখ ডোজ করোনাভাইরাসের টিকা বাংলাদেশে এসে পৌঁছায়। পরে দুপুরে রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন পদ্মায় পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন ও স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেকের কাছে ভারতের রাষ্ট্রদূত বিক্রম দোরাইস্বামী এসব টিকা হস্তান্তর করেন।

এ সময় ভারতীয় হাইকমিশনার বিক্রম দোরাইস্বামী বলেন, ‘উপহার হিসেবে বাংলাদেশকেই সবচেয়ে বেশি পরিমাণ ভ্যাকসিন দেওয়া হয়েছে। প্রতিবেশী হিসেবে অগ্রাধিকার নীতির কারণেই ভারতের পক্ষ থেকে এই ভ্যাকসিন উপহার দেওয়া হয়েছে।’

advertisement
Evaly
advertisement