advertisement
advertisement
advertisement
DBBL
advertisement
advertisement

শীতে গুড়ের দুধ পানে মিলবে উজ্জ্বল ত্বক

অনলাইন ডেস্ক
২৩ জানুয়ারি ২০২১ ১০:২৩ | আপডেট: ২৩ জানুয়ারি ২০২১ ১০:২৭
পুরোনো ছবি
advertisement

শীতকালে প্রায় সবারই ত্বক রুক্ষ-শুষ্ক হয়ে যায়। এ সময় ত্বকের বাড়তি যত্ন নিতেই হয়। তবে শুধু যত্ন নিলেই হয় না, ত্বকের সুরক্ষায় শীতে খাবারের প্রতিও আলাদা নজর দিতে হয়। এ ক্ষেত্রে শীতে উজ্জ্বল ও সুন্দর ত্বক পেতে এক গ্লাস দুধ গুড়ের সঙ্গে পানের বিকল্প নেই। কারণ সঠিক পরিমাণে গুড় খাওয়া ত্বকের জন্য খুব উপকারি। এতে আয়রন ও ভিটামিন থাকে। আর দুধে প্রোটিন এবং ল্যাকটিক অ্যাসিড পাওয়া যায়, যা ত্বক সুন্দর রাখতে ভূমিকা রাখে।

এবার ভারতের লাইফস্টাইল বিষয়ক ওয়েবসাইট বোল্ডস্কাই অবলম্বনে জেনে নিন গুড় ও দুধ পান করার উপকারিতা-

সুন্দর ত্বক

গুড় খেলে শরীরে হিমোগ্লোবিনের ঘাটতি হয় না। এই কারণে শরীরে অক্সিজেনের প্রবাহ ভালো থাকে। এর ফলে মুখের ত্বক উজ্জ্বল হয়। কাজেই শীতে সুন্দর ত্বকের জন্য ডায়েটে সামান্য গুড় রাখতেই পারেন।

উজ্জ্বল ত্বক

গুড়ে আয়রন এবং ভিটামিন রয়েছে, যা ত্বকের জন্য খুব উপকারি। প্রতিদিন গুড় খাওয়ার ফলে শরীরের ক্ষতিকারক টক্সিন দূর হয়, যা ত্বক পরিষ্কার করে। পাশাপাশি ত্বক উজ্জ্বল হয়। গুড়ে ক্যালসিয়াম এবং ফসফরাস রয়েছে, যা ত্বকে সম্পূর্ণ পুষ্টি সরবরাহ করে। মুখে রিঙ্কেলস, ফুসকুড়ি এবং পিম্পলস এর মতো সমস্যা কমায়। তবে মনে রাখবেন যে, খুব বেশি গুড় খাওয়ার ফলে মুখে পিম্পল হতে পারে।

ডার্ক সার্কেল

ডার্ক সার্কেল যেকোনো মানুষের মুখের সৌন্দর্য নষ্ট করে। গুড়ের দুধ পান করলে ডার্ক সার্কেলও কমে। আপনিও যদি এই সমস্যায় পড়ে থাকেন, তবে এখন থেকে দুধ এবং গুড় খাওয়া শুরু করুন।

মুখের ফোলাভাব কমায়

সকালে ঘুম থেকে ওঠার পরে যদি আপনার মুখ ফুলে যায় বা আপনার চোখ ফুলে যায়, তবে অবশ্যই আপনার গুড়ের দুধ পান করা উচিত। এটি সেবন করলে মুখের ফোলাভাব কমে যাবে। রক্তের অভাবের ফলে মুখে ফোলাভাব দেখা দেয়। গুড় খাওয়ার ফলে এই ঘাটতি পূরণ হতে পারে।

advertisement
Evaly
advertisement