advertisement
advertisement
advertisement
DBBL
advertisement
advertisement

ক্রোয়েশিয়া পাঠানোর নামে ভারতে পাচার, গ্রেপ্তার ২

নিজস্ব প্রতিবেদক
২৪ জানুয়ারি ২০২১ ১৮:৩৮ | আপডেট: ২৪ জানুয়ারি ২০২১ ১৯:১২
পাচারের ঘটনায় গ্রেপ্তার মো. মোবারক উল্লাহ ও মো. সাইফুল ইসলাম
advertisement

ফেনীর দাগনভুঁঞা থানার জগতপুর এলাকা থেকে মানবপাচাকারী চক্রের দুজন সক্রিয় সদস্য গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ান (র‌্যাব-৩)। মিথ্যা প্রলোভন দেখিয়ে ক্রোয়েশিয়ায় পাঠানোর নাম করে এক যুবকে ভারতে পাচার করা ঘটনায় মো. মোবারক উল্লাহ (৩৩) ও মো. সাইফুল ইসলাম (৪২) নামে এ দুই ব্যক্তি গ্রেপ্তার হন।

র‌্যাব-৩’র সহকারী পুলিশ সুপার ফারজানা হক (এএসপি) এসব তথ্য নিশ্চিত করেন। তিনি জানান, একটি বিশেষ আভিযানিক দল গতকাল ফেনী জেলার দাগনভুঁঞা থানার জগতপুর এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে মানবপাচাকারী চক্রের দুই সদস্যদেরকে গ্রেপ্তার করে। মোবারক ও সাইফুল নামে এ দুই পাচারকারীর কাছ থেকে দুটি পাসপোর্ট, তিনটি মোবাইল ফোন উদ্ধার করা হয়।

র‌্যাব জানায়, মো. গোলাম মাওলা নামে এক ব্যক্তি অভিযোগ করেন, গ্রেপ্তার মোবারক ও সাইফুল তার ছেলেকে উচ্চ বেতনে ৮ ঘণ্টা ডিউটি, থাকা খাওয়া ফ্রি এবং দু-বছর পরে বিমান ভাড়া কোম্পানি দেবে বলে পোল্যান্ডে পাঠানোর প্রলোভন দেখিয়ে খরচ বাবদ ৫ লাখ টাকার মৌখিক প্রস্তাব দেয়। তাদের কথায় বিশ্বাস করে গোলাম মাওলা প্রথমে ২ লাখ টাকা এবং পরবর্তীতে আরও ২ লাখ টাকা দেন তাদের। কিন্তু মোবারক ও সাইফুল তাদের কাজে ব্যর্থ হয়। কিছুদিন পর গোলাম মাওলার ছেলেকে হাঙ্গেরি ও পরে মালদোভা পাঠাবে বলে তালবাহানা শুরু করে। পরে ক্রোয়েশিয়ার ভিসা লাগানোর কথা বলে বিকাশের মাধ্যমে আর ৫০ হাজার টাকা নেন মোবারক ও সাইফুল।

সম্প্রতি বাদী গোলাম মাওলার ছেলেকে ক্রোয়েশিয়া পাঠানোর নামে ইন্ডিগো বিমানে করে ভারতে নিয়ে আটক করে রাখে। এরপর গোলাম মাওলার কাছে আরও সাড়ে পাঁচ লাখ টাকা দাবি করেন মোবারক ও সাইফুল। টাকা না দিলে ছেলেকে বিক্রি করে দেওয়া হবে বলে হুমকিও দেন তারা। এসব অভিযোগের ভিত্তিতে মোবারক ও সাইফুলকে গ্রেপ্তার করে র‌্যাব।

মোবারক ও সাইফুলের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে বলেও জানায় র‌্যাব-৩।

advertisement
Evaly
advertisement