advertisement
advertisement
advertisement
DBBL
advertisement
advertisement

করোনা প্রতিরোধে কাতারে জরুরি সতর্কতা

কাজী শামীম কাতার
৬ ফেব্রুয়ারি ২০২১ ১০:৫৩ | আপডেট: ৬ ফেব্রুয়ারি ২০২১ ১১:২৫
কাতার। ছবি : আমাদের সময়
advertisement

পৃথিবীব্যাপী মহামারি করোনাভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউ শুরু হয়েছে এবং শীত প্রধান দেশগুলোতে এর সংক্রমণও বৃদ্ধি পেয়েছে। তাই জরুরি সতর্কতা অবলম্বনে কাতার সরকার বেশ কিছু নতুন সিদ্ধান্ত নিয়েছে। কাতারে করোনাভাইরাস নিয়ন্ত্রণে রাখতে গত বুধবার কাতারের মন্ত্রিসভার এক জরুরি বৈঠকে অভিবাসীসহ কাতারি নাগরিকদের জন্য ৩২টি নির্দেশনা প্রদান করা হয়েছে।

নির্দেশনাগুলোতে বলা হয়েছে- সম্প্রতি ঘরের বাইরে সবার মাস্ক ব্যবহারে জোরদার করাসহ স্মার্ট ফোনে এহতেরাজ এপ্লিকেশনটি সক্রিয় রাখতে বলা হয়েছে। এছাড়া গাড়িতে একা থাকাকালীন মাস্ক ব্যবহারে শিথিল করা হয়েছে।

সরকারি ও বেসরকারি সংস্থার কার্যালয়ে কোনো সভায় ১৫ জনের বেশি ব্যক্তি জমায়েত হওয়া থেকে বিরত থাকতে হবে। এছাড়া সরকারি ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠানগুলোতে কর্মীর উপস্থিতি ৮০ শতাংশ সীমাবদ্ধ করার বিধান করেছে এবং অন্য কর্মীরা পরিস্থিতির উপর নির্ভর করে বাড়িতে থেকেই কাজ সম্পাদন করবেন।

সিদ্ধান্তে আরও বলা হয়েছে, প্রতিদিনের নামাজ ও জুমার নামাজের জন্য মসজিদে সমবেত হতে পারবে তবে মসজিদের শৌচাগার ও অজু করার ব্যবস্থা বন্ধ থাকবে। কোন আবদ্ধ স্থানে পাঁচজন ও উন্মুক্ত স্থানে ১৫ জনের বেশি জমায়েত নিষিদ্ধ করা হয়।

পরবর্তী ঘোষণা না আসা পর্যন্ত কোনো উন্মুক্ত স্থানে বিয়ের অনুষ্ঠানের আয়োজন নিষেধ করা হয়। তবে কোনো বাড়িতে বা মজলিসে বিয়ের অনুষ্ঠান আয়োজন হলে ১০ জনের বেশি জমায়েত হতে পারবে না।

এছাড়া বাড়ির ভেতরের খোলা জায়গায় ২০ জনের অধিক নিষেধ আদেশ করা হয়। এক্ষেত্রে বিবাহ অনুষ্ঠানের তারিখ ও স্থানের বিষয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে অবহিত করতে বলা হয়েছে এবং তাদের নিয়ম অনুসারে বিবাহ অনুষ্ঠান পরিচালনার আদেশ করা হয়।

পাবলিক পার্ক ও সাগর তীর (কর্নিশ) এর খেলার জায়গা এবং উন্মুক্ত শরীরচর্চা সরঞ্জাম বন্ধ থাকবে। ছোট গাড়িতে চালকসহ চার জনের অধিক বহনে নিষেধ করা হয়েছে। তবে একই পরিবারের অধিক সংখ্যা শিথিল আছে। এছাড়া বাসে যাত্রীর সংখ্যা অর্ধেক নিয়ে আসতে বলা হয়েছে।

বিধিনিষেধে আরও বলা হয়, মেট্রোরেল ও পাবলিক পরিবহনগুলোতে ধারণক্ষমতার শতকরা ৩০ শতাংশ ব্যবহার করা যাবে। এছাড়া সকল ড্রাইভিং স্কুলের ধারণক্ষমতার শতকরা ২৫ শতাংশ ব্যবহার করা যাবে। সিনেমা ও থিয়েটারগুলোতে ধারণক্ষমতার ১৫-২০ শতাংশ ব্যবহার করা যাবে। তবে ১৮ বছরের কম বয়সীদের প্রবেশ নিষেধ।

মন্ত্রিসভার বৈঠকে আরও ঘোষণা করা হয়, শিক্ষাকেন্দ্র ও প্রশিক্ষণকেন্দ্রসহ নার্সারি এবং শিশুকেন্দ্র ৩০ শতাংশ ব্যবহার করা যাবে। সরকারি যাদুঘর ও গ্রন্থাগারগুলোতে ধারণক্ষমতার অর্ধেক ব্যবহার করা যাবে। পেশাদার ক্রীড়া দলগুলোর প্রশিক্ষণ খোলা জায়গায় হলে সর্বোচ্চ ৪০ জন এবং আবদ্ধ স্থানে হলে ২০ জনের অধিক থাকা যাবে না। এছাড়া সেখানে দর্শকের উপস্থিতি নিষেধ আদেশ করা হয়েছে। যে কোনো সম্মেলন ও প্রদর্শনী এবং বিভিন্ন অনুষ্ঠানের জন্য আগে থেকে জনস্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের অনুমোদন নিতে হবে। শপিং মলের অভ্যন্তরের রেস্তোরাঁগুলো বাইরের অর্ডার সরবরাহ করতে পারবে। ট্যুরিস্ট ইয়ট এবং নৌকা ভ্রমণের পরিষেবা পরবর্তী ঘোষণা না আসা পর্যন্ত বন্ধ আদেশ জানানো হয়েছে। তবে নিজস্ব ইয়ট হলে সর্বোচ্চ ১৫ জন উপস্থিত থাকতে পারবে। বিভিন্ন মার্কেটে মোট ধারণক্ষমতার অর্ধেক ব্যবহার করা যাবে।

এছাড়া সকল পাইকারী বাজারের সক্ষমতা ত্রিশ ভাগ কমিয়ে আনা হবে। অভ্যন্তরীণ কমপ্লেক্সের বিনোদন পার্ক ও বিনোদন কেন্দ্র বন্ধ থাকবে, তবে উন্মুক্ত স্থান হলে ধারণক্ষমতার শতকরা ৩০ শতাংশ ব্যবহার করা যাবে। বিভিন্ন শরীরচর্চা কেন্দ্রের ধারণক্ষমতার শতকরা ৩০ ভাগ ব্যবহার করা যাবে। অভ্যন্তরীণ সকল সুইমিংপুল ও ওয়াটার পার্ক বন্ধ থাকবে, এছাড়া উন্মুক্ত স্থানের সুইমিংপুল ও ওয়াটার পার্কগুলোর ধারণক্ষমতার শতকরা ৩০ ভাগ ব্যবহার করতে পারবে।

নতুন নির্দেশনায় আরও বলা হয়, বেসরকারি স্বাস্থ্যসেবা কেন্দ্রগুলো সকল সেবা প্রদান অব্যাহত রাখবে এবং বিউটি সেলুন ও হেয়ার ড্রেসিং ধারণক্ষমতার ৩০ ভাগ ব্যবহার করা যাবে। এছাড়া পুরো কাতারজুড়ে সকল রেস্তোরাঁ ও কফি-শপের ভেতরে মোট ধারণক্ষমতার ১৫ শতাংশ ব্যবহার করা যাবে। এছাড়া যেসকল রেস্তোরাঁ ও কফি-শপ কাতার ক্লিন সার্টিফিকেট অর্জন করেছে তারা মোট ধারণক্ষমতার ৩০ শতাংশ ব্যবহার করতে পারবে এবং উন্মুক্ত স্থানে যদি বসার ব্যবস্থা থাকে তাহলে ধারণক্ষমতার ৫০ শতাংশ ব্যবহার করতে পারবে।

advertisement
Evaly
advertisement