advertisement
advertisement
advertisement
DBBL
advertisement
advertisement

এক দৌড়ে পালিয়ে বাঁচলো অপহৃত স্কুলছাত্র

রাজশাহী প্রতিনিধি
২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২১ ১৬:৪৫ | আপডেট: ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২১ ১৬:৫৮
দৌড়ে পালিয়ে নিজেকে রক্ষা করা স্কুলছাত্র নাসিম। ছবি : আমাদের সময়
advertisement

কুষ্টিয়া থেকে ৭ম শ্রেণির নাসিম নামে এক ছাত্রকে মুখোশ পড়ে অপহরণ করে নিয়ে আসা হয়েছিল রাজশাহীতে। কিন্তু রাজশাহী বাসস্ট্যান্ড থেকে এক দৌড়ে পালিয়ে রক্ষা পায় অপহৃত ওই স্কুলছাত্র। গতকাল সোমবার বিকেল ৪টার দিকে কুষ্টিয়া আড়য়াপাড়া গ্রাম থেকে তাকে অপহরণ করে মুখোশধারী দুর্বৃত্ত।

অপহৃত ওই স্কুলছাত্রের নাম নাসিম। সে আড়য়াপাড়া গ্রামের হামিদুল ইসলামের ছেলে। আড়য়াপাড়া স্কুলের ৭ম শ্রেণির শিক্ষার্থী ছিল সে। ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী শিরোইল কলোনির ২ নং গলির বাসিন্দা নিজাম উদ্দিন বলেন, ‘রাত ৯টার দিকে স্কুলছাত্র নাসিম দৌড়ে কাউন্সিলর চেম্বারের কাছে আসে। অতপর ঘটনার বিস্তারিত ওয়ার্ড কাউন্সিলর মহোদয়কে জানায়।’

এ বিষয়ে কাউন্সিলর সুমন বলেন, ‘ছেলেটি উদ্ধারের ঘটনা কুষ্টিয়ায় তার পরিবারের নিকট জানানো হয়েছে। এছাড়া ওই ইউনিয়নের ৮ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলরের সাথেও আমার কথা হয়েছে। তারা রাজশাহী এসে তাদের সন্তানকে নিয়ে যাবেন বলেও জানিয়েছেন।’

চন্দ্রিমা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সিরাজুম মনির বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন জানান, বিকেল ৪ টার দিকে গ্রামের রাস্তা পার হওয়ার সময় একজন মুখোশধারী ব্যক্তি নাসিমকে মুখে কাপড় চেপে একটি কালো রঙের মাইক্রোতে করে রাজশাহী নিয়ে আসে। এ সময় সে জ্ঞান হারিয়ে ফেলে। পরে রাত ৯টার দিকে রাজশাহী বোয়ালিয়া থানার শিরোইল বাসটার্মিনালে মাইক্রোটি থামিয়ে মুখশধারীরা নিচে নামে। তারা ভেবেছিল অপহৃত নাসিম তখনো অবচেতন রয়েছে। তাই মাইক্রোবাসের গেট খোলা অবস্থায় রেখে তারে বাইরে যায়। সুযোগ পেয়ে এক দৌড়ে সে শিরোইল কলোনিতে পালিয়ে ১৯ নং কাউন্সিলর চেম্বারের সামনে হাজির হয়। পরবর্তীতে ওয়ার্ড কাউন্সিলর সুমন ঘটনাটি জানালে পুলিশ গিয়ে তাকে থানা হেফাজতে নেয়।

ওসি আরও জানান, ঘটনাটি যাচাইয়ের জন্য কুষ্টিয়ায় ওই ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ও থানায় যোগাযোগ করা হয়েছে। এ বিষয়ে চন্দ্রিমা থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করে দুপুর ১২টার দিকে অপহৃত নাসিমকে তার পরিবারকে বুঝিয়ে দেওয়া হয়েছে।

advertisement
Evaly
advertisement