advertisement
advertisement
advertisement
DBBL
advertisement
advertisement

বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভে নতুন ইতিহাস

নিজস্ব প্রতিবেদক
২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২১ ২৩:৩৫ | আপডেট: ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২১ ০৮:৪৯
প্রতীকী ছবি
advertisement

করোনাভাইরাস মহামারির মধ্যে প্রবাসীদের পাঠানো রেমিটেন্সের ওপর ভর করে একের পর রেকর্ড করে যাচ্ছে বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ। আজ বুধবার বাংলাদেশ ব্যাংকের বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ ৪৪ বিলিয়ন ডলারের মাইলফলক অতিক্রম করেছে, যা অতীতের যে কোনো সময়ের চেয়ে বেশি।

বাংলাদেশ ব্যাংকের এ রিজার্ভ দিয়ে প্রতি মাসে চার বিলিয়ন ডলার হিসেবে ১১ মাসের বেশি সময়ের আমদানি ব্যয় মেটানো সম্ভব। আন্তর্জাতিক মানদণ্ড অনুযায়ী, একটি দেশের কাছে অন্তত তিন মাসের আমদানি ব্যয় মেটানোর সমপরিমাণ বিদেশি মুদ্রার মজুদ থাকতে হয়।

এর আগে, গত ৩০ ডিসেম্বর বাংলাদেশের রিজার্ভ প্রথমবারের মতো ৪৩ বিলিয়ন ডলারের মাইলফলক অতিক্রম করে। জানুয়ারির প্রথম সপ্তাহে এশিয়ান ক্লিয়ারিং ইউনিয়নের (আকু) নভেম্বর-ডিসেম্বর মেয়াদের আমদানি বিল পরিশোধের পর তা ৪২ বিলিয়ন ডলারের নিচে নেমে আসে। তবে রেমিটেন্সে ইতিবাচক ধারা অব্যাহত থাকায় এক মাস না যেতেই রিজার্ভ আগের রেকর্ড ভঙ্গ করে ৪৪ বিলিয়ন ডলার অতিক্রম করল।

বাংলাদেশ ব্যাংক সূত্রের তথ্যমতে, চলতি বছরের জানুয়ারিতে প্রবাসীরা ১৯৬ কোটি ২৬ লাখ ডলার রেমিটেন্স পাঠিয়েছেন, যা গত বছরের জানুয়ারির চেয়ে প্রায় ২০% বেশি।আর ফেব্রুয়ারি মাসের ২৩ দিনে প্রবাসীরা ১৪৯ কোটি ৫০ লাখ ডলার রেমিটেন্স পাঠিয়েছেন, যা গত বছরের একই সময়ের হিসাবে ২০% বেশি।

advertisement