advertisement
advertisement
advertisement
DBBL
advertisement
advertisement

ছাত্রলীগ কর্মীকে মারধর, রাস্তা ও উপজেলা কার্যালয় ঘেড়াও

বাঘা প্রতিনিধি,রাজশাহী
২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২১ ২২:০৪ | আপডেট: ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২১ ২৩:২৫
advertisement

রাজশাহীর বাঘা উপজেলায় সোহাগ রানা (২২) নামের এক ছাত্রলীগ কর্মীকে মারধর করার ঘটনায় রাস্তা অবরোধ ও উপজেলা কার্যালয় ঘেড়াও করা হয়েছে। আহত সোহাগ উপজেলার গাঁওপাড়া গ্রামের মাছব্যবসায়ী দবির উদ্দিনের ছেলে। রানা বাঘা শাহদৌলা সরকারি কলেজের ডিগ্রি চতুর্থ বর্ষের ছাত্র।

আজ বৃহস্পতিবার বিকেল ৩টার সময় উপজেলা পরিষদ ও বাঘা মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের সামনে ছাত্রলীগ, যুবলীগ ও আওয়ামী লীগ এ অবরোধ কর্মসূচি পালন করেছে।

ছাত্রলীগ কর্মী সোহেল রানাকে মারধরের প্রতিবাদে পৌর যুবলীগের সভাপতি শাহিন আলম জানান, সোহাগ দরিদ্র ঘরের সন্তান। শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় সে তার বাবাকে ব্যবসার কাজে সহযোগিতার উদ্দেশ্যে বাঘার হাটে মাছ বিক্রি করছিলেন। কিন্তু দলীয় কোন্দোলের জের ধরে বর্তমান উপজেলা চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট লায়েব উদ্দিন লাভলুর সমর্থকরা তাকে মেরে রক্তাক্ত করে। এ সময় তার নগদ ১৭ হাজার ৫০০ টাকাও কেড়ে নেওয়া হয়।

যুবলীগ নেতা শাহিনের ভাষ্য, এ ঘটনায় জড়িতদের গ্রেপ্তারের দাবিতে বাঘা উপজেলা ছাত্রলীগ, যুবলীগ ও আওয়ামী লীগ নেতা-কর্মীরা তাৎক্ষণিক রাস্তা অবরোধসহ উপজেলা কার্যালয় ঘেড়াও করে বিক্ষোভ করে।

ঘটনাটি সম্পূর্ণ চক্রান্তমূলক ও সাজানো বলে দাবি করেন বাঘা উপজেলা ও কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক (সাবেক) সানোয়ার হোসেন সুরুজ। তিনি বলেন, ‘তুচ্ছ ঘটনার নাটক সাজিয়ে একটি কুচক্রিমহল বাঘা তথা রাজশাহী জেলার আওয়ামী পরিবারের মধ্যে ভাঙ্গনের চেষ্টা করছেন। এছাড়াও কিছু আওয়ামী লীগের নেতা তাদের নামধারী কর্মীদের মামলা মোকদ্দমায় জড়িয়ে ফায়দা লুটছেন।’

এ বিষয়ে বাঘা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান লায়েব উদ্দিন লাভলু বলেন, ‘রাজশাহী বার অ্যাসোসিয়েশনের নির্বাচন উপলক্ষে আমি তিন দিন থেকে রাজশাহীতে অবস্থান করছি। বাঘায় কী ঘটেছে, ঘটনার সঙ্গে কে বা কারা জড়িত সে সম্পর্কে আমি কিছুই জানি না।’

বাঘা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নজরুল ইসলাম বলেন, ‘খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নিয়েছে পুলিশ। মারধরের ঘটনায় একজন আহত হবার খবর পেয়েছি। তবে লিখিত কোনো অভিযোগ পাইনি। লিখিত অভিযোগ পেলে দোষীদের চিহ্নিত করে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।’

advertisement