advertisement
advertisement
advertisement
DBBL
advertisement
advertisement

দক্ষিণ কোরিয়ায় বাংলাদেশের সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন

অসীম বিকাশ বড়ুয়া,দক্ষিণ কোরিয়া
২৭ মার্চ ২০২১ ১২:০৮ | আপডেট: ২৭ মার্চ ২০২১ ২০:৩৮
advertisement

যথাযথ উৎসাহ ও উদ্দীপনার মধ্যে দিয়ে স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবসের ৫০তম বার্ষিকী উদযাপন করেছে দক্ষিণ কোরিয়ায় অবস্থিত সিউলের বাংলাদেশ দূতাবাস। শুক্রবার অনুষ্ঠানটি তিনটি ভাগে বিভক্ত ছিল।

রাষ্ট্রদূত আবিদা ইসলাম কর্তৃক দূতাবাস প্রাঙ্গনে জাতীয় পতাকা উত্তোলনের মধ্যে দিয়ে দিবসটির আনুষ্ঠানিক শুভ সূচনা করা হয়। পরে দূতাবাসের কর্মকর্তা কর্মচারীবৃন্দ জাতির পিতার ভাস্কর্যে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করেন।

পরবর্তী অংশে বিশেষ মোনাজাত,পবিত্র ধর্মগ্রন্থ সমূহ থেকে পাঠ, মহামান্য রাষ্ট্রপতি, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, পররাষ্ট্র মন্ত্রী, পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী কর্তৃক প্রদত্ত বাণীসমূহ পাঠ করা হয়।

এ ছাড়া, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জম্ম শতবার্ষিকী ও স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী উপলক্ষে দক্ষিণ কোরিয়ার মাননীয় প্রধানমন্ত্রী চুং চে কিয়ন’র ভিডিও বার্তাটি প্রদর্শন করা হয়।

উন্মুক্ত আলোচনা পর্বে দূতাবাসের কর্মকর্তাবৃন্দ বাংলাদেশের স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবসের তাৎপর্য এবং বাংলাদেশের উন্নয়নের উপর আলোকপাত করেন। মান্যবর রাষ্ট্রদূত আবিদা ইসলাম তার স্বাগত বক্তব্যের শুরুতে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতি শ্রদ্ধা জানান। সেই সাথে মুক্তিযুদ্ধে আত্ম উৎসর্গকারী ৩০ লক্ষ শহীদ, নির্যাতিত ২ লক্ষ মা বোনসহ সকল মুক্তিযোদ্ধাদের সশ্রদ্ধ চিত্তে স্মরণ করেন। তিনি গত ৫০ বছরে বাংলাদেশ কর্তৃক অর্জিত অসাধারণ সাফল্যসমূহ এবং ভবিষ্যত আকাঙ্ক্ষার কথা তুলে ধরেন।

পরবর্তীতে, রাষ্ট্রদূত আবিদা ইসলাম দূতাবাসের সকলের উপস্থিতিতে ‘বঙ্গবন্ধু দ্য পিপলস হিরো’ বইটির মোড়ক উন্মোচন করেন যা দূতাবাসের উদ্যোগে কোরিয়ান ভাষায় অনুবাদ করা হয়েছে। কোরিয়ান পাঠকেরা এই বইটি স্থানীয় বইয়ের দোকান থেকে সংগ্রহ করতে পারবেন। এ ছাড়া স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে দূতাবাস কোরিয়ার জাতীয় সংবাদপত্র গুলোতে বিশেষ ক্রোড়পত্র প্রকাশ করে।

অনুষ্ঠানের দ্বিতীয় অংশটি জুম প্লাটফর্মে সন্ধ্যায় অনুষ্ঠিত হয় যা দক্ষিণ কোরিয়ার গিয়ংবুক ফিলহার্মোনিক অর্কেস্ট্রা কর্তৃক বাংলাদেশের জাতীয় সংগীত পরিবেশনের মাধ্যমে শুরু হয়। পরে ঢাকার স্পন্দন ড্যান্স একাডেমির শিল্পীদের অংশগ্রহণে সিউলের বাংলাদেশ দূতাবাসের জন্য প্রস্তুতকৃত একটি সাংস্কৃতিক নৃত্যানুষ্ঠান 'হাজার বছরের বাঙালি' পরিবেশিত হয়।

পরে রাষ্ট্রদূত আবিদা ইসলামের সভাপতিত্বে ‘সুবর্ণজয়ন্তীতে বাংলাদেশ : আপনার ভাবনা’ শীর্ষক একটি অনলাইন আলোচনা অনুষ্ঠান রাত ৮টায় অনুষ্ঠিত হয়। আলোচনা অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণকারীগণ বিগত ৫০ বছরে বাংলাদেশের অর্জন এবং এর প্রত্যাশা নিয়ে তাদের চিন্তাভাবনা ও ধারণা তুলে ধরা হয়। শান্তি, সমৃদ্ধি ও সাফল্যের পথে বাংলাদেশ তার যাত্রা অব্যাহত রাখবে এই আশাবাদ ব্যক্ত করে অনুষ্ঠানের পরিসমাপ্তি ঘটে।

advertisement