advertisement
advertisement
advertisement
DBBL
advertisement
advertisement

এশিয়া সফরে বাংলাদেশ-ভারতে আসছেন জন কেরি, উপেক্ষিত পাকিস্তান

অনলাইন ডেস্ক
২ এপ্রিল ২০২১ ২১:৩০ | আপডেট: ২ এপ্রিল ২০২১ ২১:৪৫
মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের জলবায়ু বিষয়ক উপদেষ্টা ও সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী জন কেরি
advertisement

জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ে এশিয়া সফরে আসছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের জলবায়ু বিষয়ক উপদেষ্টা ও সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী জন কেরি। সফরে বাংলাদেশ ও ভারতসহ অন্যান্য দেশের নেতাদের সঙ্গে তার বৈঠক করার কথা রয়েছে। তবে সফরে জলবায়ু পরিবর্তনের ক্ষেত্রে সবচেয়ে শোচনীয় দেশ পাকিস্তানের সঙ্গে তার কোনো আলোচনার পরিকল্পনা নেই। পাকিস্তানের সংবাদমাধ্যম দ্য ডনের প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়, ‘আগামী বৃহস্পতিবার এশিয়া সফরে আসছেন জন কেরি। জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ে এ অঞ্চলের নেতাদের সঙ্গে বৈঠক করবেন তিনি। বাংলাদেশ ও ভারতের সঙ্গে তার বৈঠকের পরিকল্পনার সময়সূচির কথা বলা হলেও পাকিস্তানের সঙ্গে তার কোনো ‘শিডিউল’ রাখা হয়নি।’

প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, ‘আগামী ২২ ও ২৩ এপ্রিল যুক্তরাষ্ট্রে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে জলবায়ু সম্মেলন। সম্মেলনে বিশ্বের ৪০টি দেশের প্রতিনিধিরা অংশ নেবেন। অংশগ্রহণকারীদের তালিকায় দক্ষিণ এশিয়া থেকে চীন, ভারত, ভুটান ও বাংলাদেশ থাকলে পাকিস্তান নেই।’

করোনাভাইরাসের কারণে এ জলবায়ু সম্মেলন ভার্চুয়ালি অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে। হোয়াইট হাউস জানিয়েছে, সম্মেলনে বক্তব্য দিতে যুক্ত হবে রাশিয়া, চীন, অস্ট্রেলিয়া, আর্জেন্টিনা, ফ্রান্স, ইন্দোনেশিয়া, জার্মানি, ইসরায়েল, কানাডা, জাপান, ইতালি, কেনিয়া, মেক্সিকো, ডেনমার্ক, কলাম্বিয়া, কঙ্গো, চিলি ও জ্যামাইকাসহ অন্যান্য দেশ।

ব্রিটেন ও যুক্তরাষ্ট্র বিশ্বের তৃতীয় কার্বন নির্গমনকারী দেশ ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি সরকারকে ২০৫০ সালের মধ্যে কার্বন নিঃসরণে ভারতকে শূন্যের কোঠায় নিয়ে যেতে প্রতিশ্রুতি ব্যক্তের আহ্বান জানিয়েছেন।

উড্রো উইলসন সেন্টারের দক্ষিণ এশিয়ার বিষয়ক বিশ্লেষক মাইকেল কুগেলম্যান বলেছেন, আসন্ন বৈশ্বিক জলবায়ু শীর্ষ সম্মেলনে প্রথমত হোয়াইট হাউসের আমন্ত্রণ তালিকার বাইরে ছিল পাকিস্তান। এখন মার্কিন প্রেসিডেন্টের জলবায়ু বিষয়ক উপদেষ্টা জন কেরি পরামর্শের জন্য ভারত ও বাংলাদেশে যাচ্ছেন।

পাকিস্তান প্রধানমন্ত্রীর জলবায়ু বিষয়ক বিশেষ সহকারী মালিক আমিন আসলাম বলেছিলেন, ‘জলবায়ু বিষয়ক শীর্ষ সম্মেলনে আমন্ত্রিত দেশগুলোকে দুই ভাগে ভাগ করা হয়েছে। তবে এর কোনোটিরই অন্তর্ভুক্ত হয়নি পাকিস্তান। যদিও দুই ভাগের ব্যাপারটি ব্যাখ্যা করেননি মালিক আমিন।’

advertisement