advertisement
advertisement
advertisement
DBBL
advertisement
advertisement

শ্রীলঙ্কা সফরে টাইগারদের কোয়ারেন্টিন হবে ৩ দিন

ক্রীড়া প্রতিবেদক
৫ এপ্রিল ২০২১ ২৩:৪৬ | আপডেট: ৬ এপ্রিল ২০২১ ০০:০০
পুরোনো ছবি
advertisement

বাংলাদেশের করোনা পরিস্থিতি অবনতি হলেও শ্রীলঙ্কা সফরে ক্রিকেটারদের ওপর তার কোনো প্রভাব পড়বে না। আগের ঘোষণা অনুযায়ী লঙ্কা সফরে টাইগারদের তিনদিনের কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) নির্বাচক হাবিবুল বাশার সুমন। আজ সোমবার মিরপুরে সাংবাদিকদের সঙ্গে সফরের বিভিন্ন বিষয়ে আলাপকালে তিনি এ কথা বলেন।

বিসিবি’র এই নির্বাচক বলেন, ‘শ্রীলঙ্কায় তিনদিনের কোয়ারেন্টিন। সেখানে নিউজিল্যান্ডের মতো না যে, ১৪ দিনের কোয়ারেন্টিন করতে হবে। এমন না যে দুইদিন লাগবে পৌঁছাতে। শ্রীলঙ্কায় যেতে খুব কম সময় লাগে, কোয়ারেন্টিন সময়সীমা কম আছে। এক্ষেত্রে ইমার্জেন্সি হলে তিন-চারদিন আগে প্লেয়ার নেওয়া যাবে। যেহেতু দুইটা টেস্ট ম্যাচ, বহরটা নিউজিল্যান্ডের মতো বড় হোক সেটা আমরা চাইনা। ছোট বহরেই যেতে চাই। সেসব আলোচনা করেই স্কোয়াডটা দেওয়া হবে।’

নিউজিল্যান্ড সফরে গিয়ে ইনজুরিতে পড়েছেন হাসান মাহমুদ, মুশফিকুর রহিম এমনকি দুই বছর পর দলে ফিরতে যাওয়া মাহমুদউল্লাহ রিয়াদও। ফলে খেলোয়াড়দের ফিটনেস নিয়ে বোর্ড চিন্তিত কিনা, এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, ‘ফিটনেস নিয়ে একটা চিন্তার বিষয় আছে। আমি যতটুক জানি মুশফিক ফিট হয়ে যাবে, আমরা ওকে পাব। আরও কয়েকটা জায়গায় চিন্তার বিষয় আছে। যেমন, হাসান মাহমুদের ফিটনেস ইস্যু আছে, আমরা তার ফাইনাল রিপোর্ট আজকে বা কালকে পেয়ে যাব। ফিটনেস ইস্যুর কারণেই আমরা দলটা এখনো দিতে পারিনি। আজ-কালের মধ্যে সবার রিপোর্ট পেলে এরপরই দল চূড়ান্ত করে ফেলব।’

শ্রীলঙ্কার ক্যান্ডির উইকেটের ধরন ভিন্ন, ফলে বিষয়টি নিয়ে কী ভাবছে নির্বাচকরা? এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, ‘আমি ক্যান্ডির উইকেটে খেলেছি। সাধারণত ক্যান্ডির উইকেটের সাথে কলম্বোর উইকেটে কিছুটা পার্থক্য থাকে। স্পোর্টিং উইকেট কিন্তু ক্যান্ডিতে হয়। কিন্তু আমরা স্পিন-পেস দুইটা বিভাগই নিয়ে যাব। গেলেইতো বুঝতে পারব কন্ডিশন কেমন হবে। হাতে বিকল্প থাকবে, ম্যাচের আগে পরিস্থিতি দেখে একাদশ সাজানো হবে। তবে স্পিন-পেস দুটোই নিয়ে যাব।’

দলের তিন নম্বর ব্যাটসম্যান নিয়ে বেশ কয়েকবার পরীক্ষা নিরিক্ষা করেছে বোর্ড। বরাবরই এই স্থানে সাকিব ছাড়া অন্যরা ব্যর্থ হয়েছেন। এই সিরিজে ছুটিতে থাকবেন সাকিব। ফলে তিন নম্বর নিয়ে কী ভাবছেন এমন প্রশ্নে সুমন বলেন, ‘দেখুন দুজন খেলেছে, শান্ত ও সৌম্য। সৌম্য তো আমাদের পুরোনো খেলোয়াড়, শান্ত সে হিসেবে নতুন ছিল। সাকিব ফিরলে আমরা দেখব সে কী চায়, টিম ম্যানেজমেন্টের ভাবনা কী। সেসব নিয়ে আলাপ-আলোচনা হবে। আমরা কিন্তু নতুন কাউকে তৈরি করার চেষ্টা করছি। কিন্তু এটা আল্টিমেট সিদ্ধান্ত না। যারা পরীক্ষিত পারফর্মার তারাতো দলের প্রয়োজনমতো জায়গাতেই খেলেন। একটা জিনিস মনে রাখতে হবে এটা সর্বোপরি দল, কাকে চাচ্ছে কোথায় চাচ্ছে এটা সবাই কিন্তু বোঝে। আমরা চেষ্টা করছি দলটা নতুন করে সেট করতে। টিম ম্যানেজমেন্ট যা চাইবে, একাদশ গড়তে যেটা সুবিধা দিবে সেটাই করা হবে।’

advertisement