advertisement
advertisement
advertisement
DBBL
advertisement
advertisement

সরকারের বিজ্ঞপ্তি
নামাজের আগে পরে মসজিদে জমায়েত নয়

৮ এপ্রিল ২০২১ ০০:১১
আপডেট: ৮ এপ্রিল ২০২১ ০০:১১
advertisement


করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ উদ্বেগজনকভাবে বেড়ে যাওয়ায় মসজিদসহ দেশের সব ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানে গণজমায়েত না করার অনুরোধ জানিয়েছে ধর্ম মন্ত্রণালয়। গতকাল বুধবার এক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছেÑ জুমা ও অন্যান্য ওয়াক্তের নামাজ এবং প্রার্থনার আগে-পরে মসজিদ ও উপাসনালয়ে কোনো প্রকার সভা-সমাবেশ করা যাবে না। মসজিদে সামাজিক দূরত্ব ও স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করে আসন্ন রমজানে তারাবির নামাজ আদায় করতে হবে। সংক্রমণ রোধে প্রশাসন ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনী, ইসলামিক ফাউন্ডেশনের কর্মকর্তা-কর্মচারী এবং মসজিদ ও অন্যান্য ধর্মীয় উপাসনালয়ের পরিচালনা কমিটিকে এ নির্দেশনা বাস্তবায়নে অনুরোধ জানানো হয়।
এ ছাড়া প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের গত ২৯ মার্চের প্রজ্ঞাপন এবং ৪ এপ্রিল মন্ত্রিপরিষদ থেকে জারি করা নির্দেশনা
মেনে চলতেও বিজ্ঞপ্তিতে অনুরোধ জানানো হয়েছে। এসব নির্দেশনা লঙ্ঘিত হলে স্থানীয় প্রশাসন ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনী সংশ্লিষ্ট দায়িত্বশীলদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন।
এর আগে গত সোমবার মসজিদে নামাজ আদায়ে নতুন নির্দেশনা দিয়েছিল ধর্ম মন্ত্রণালয়। এতে বলা হয়, করোনা ভাইরাসের কারণে মুসল্লিদের জীবনের ঝুঁকি বিবেচনা করে মসজিদের প্রবেশদ্বারে হ্যান্ড স্যানিটাইজার বা হাত ধোয়ার ব্যবস্থাসহ সাবান-পানি রাখতে হবে। আগত মুসল্লিকে অবশ্যই মসজিদে আসতে হবে মাস্ক পরে। প্রত্যেককে নিজ নিজ বাসা থেকে ওজু করে, সুন্নাত নামাজ ঘরে আদায় করে মসজিদে আসতে হবে এবং ওজু করার সময় কমপক্ষে ২০ সেকেন্ড সাবান দিয়ে হাত ধুতে হবে। জামাতের সময় মসজিদে কার্পেট বিছানো যাবে না। নামাজের আগে সম্পূর্ণ মসজিদ জীবাণুনাশক দিয়ে পরিষ্কার করতে হবে। মুসল্লিরা প্রত্যেকে নিজ নিজ দায়িত্বে জায়নামাজ নিয়ে আসবেন। এ সময় শিশু, বৃদ্ধসহ যে কোনো ধরনের অসুস্থ ব্যক্তি এবং অসুস্থদের সেবায় নিয়োজিত ব্যক্তি জামাতে অংশগ্রহণ করবেন না।

 

advertisement