advertisement
advertisement
advertisement
DBBL
advertisement
advertisement

করোনার দ্বিতীয় ঢেউ
বিনোদন বিশ্বে বিষণœতা

ফয়সাল আহমেদ
৯ এপ্রিল ২০২১ ০০:০০ | আপডেট: ৮ এপ্রিল ২০২১ ২১:২৮
advertisement

বিনোদনে করোনার ছোবল বলতে এতদিন শুধু বোঝানো হয়েছে করোনার কারণে বিশাল অঙ্কের ক্ষতির কথা। কিন্তু এবার আর্থিক ক্ষতির সঙ্গে ভেঙে যাচ্ছে সবার মনোবল। কারণ করোনায় একে একে আক্রান্ত হচ্ছেন অভিনেতা থেকে পরিচালক সবাই। এ চিত্র পুরো বিশ্বের। মানে আতঙ্কিত সবাই।

করোনায় আক্রান্ত হয়ে কিংবদন্তি অভিনেত্রী ও রাজনীতিবিদ সারাহ বেগম কবরী এখন আছেন শেখ রাসেল গ্যাস্ট্রোলিভার ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালের আইসিইউতে। গতকাল দুপুরে তাকে আইসিইউতে নেওয়া হয়। এর আগে শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে তাকে রাজধানীর কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতাল থেকে স্থানান্তর করা হয়। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন কবরীর ব্যক্তিগত সহকারী নূর উদ্দিন। এর আগে গত ৫ এপ্রিল কবরীর নমুনা পরীক্ষায় করোনা রিপোর্ট পজিটিভ আসে। ওইদিন রাতেই তাকে কুর্মিটোলা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন তারকা দম্পতি শহীদুজ্জামান সেলিম ও রোজী সিদ্দিকী। গত মাসের শেষ দিকে কিছুটা জ্বর, ঠা-া ও হাঁচি-কাশি ছিল অভিনেত্রী রোজী সিদ্দিকীর। ১ এপ্রিল কিছুটা অসুস্থতা অনুভব করেন শহীদুজ্জামান সেলিমও। অসুস্থতা বাড়তে থাকলে পরের দিন তারা দুজনেই ঢাকার একটি হাসপাতালে করোনার নমুনা পরীক্ষা করান। ফল আসে পজিটিভ। এখন তারা চিকিৎসকদের পরামর্শে বাসায় চিকিৎসা নিচ্ছেন। এদিকে হাসপাতালের বেড থেকেই করোনা রিপোর্ট হাতে পেয়েছিলেন আবুল হায়াত। সেই রিপোর্টে আবারও করোনা পজিটিভ এসেছে প্রবীণ এই অভিনেতার। চিকিৎসকদের পরামর্শ অনুযায়ী আবারও তাকে ১৪ দিনের কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে। তবে তাকে আর হাসপাতালে থাকতে হচ্ছে না। শারীরিক অবস্থা বিবেচনায় তিনি এখন আগের চেয়ে অনেকটাই সুস্থ। এখন বাসায় নিয়মিত চিকিৎসা নেবেন। আবুল হায়াত জানান, তার শরীরে এখন সে রকম কোনো উপসর্গ নেই। এখন তিনি আগের চেয়ে সুস্থ। অন্য কোনো শারীরিক জটিলতাও নেই। প্রথমবার গত ৩১ মার্চ করোনা পজিটিভ রিপোর্ট পেয়ে হাসপাতালে ভর্তি হন তিনি। হার্টে স্ট্যান্ট পরানো বলে চিকিৎসকরা এই অভিনেতাকে নিয়ে অনেকটাই সাবধান ছিলেন। তা ছাড়া হাসপাতালে ভর্তির সময় তার শারীরিক অবস্থা কিছুটা গুরুতর ছিল। একসময় তার জন্য প্লাজমার প্রয়োজন দেখা দেয়। সেটা স্বল্প সময়ের মধ্যেই পাওয়া যায়। করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ঢাকার একটি হাসপাতালের আইসিইউতে চিকিৎসাধীন একুশে পদকপ্রাপ্ত অভিনয়শিল্পী এস এম মহসিন। ৭৩ বছর বয়সী এই অভিনয়শিল্পীর ফুসফুসের ৭০ শতাংশ সংক্রমিত। আক্রান্ত হওয়ার আগে পাবনায় ‘অন্তরাত্মা’ ছবির শুটিং করেছেন তিনি। ছেলে ফারদিন, মেয়ে ফাইজা ও নব পুত্রবধূ সাদিয়া রহমান আয়েশাসহ করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন অভিনেত্রী মৌসুমী। ওমর সানী এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। ওমর সানী বলেন, ‘করোনা রিপোর্ট পেয়ে মনটা খারাপ হয়ে গেল। পরিবারের সবাই পজিটিভ। বিশেষ করে আমার মেয়েটার জন্য বেশি চিন্তিত। কারণ ও একটু নার্ভাস। আমার পরিবারের জন্য দোয়া চাচ্ছি। দ্রুত যেন সুস্থ হয়ে ওঠে।’ তিনি আরও বলেন, ‘সবাই এখন বাসায় আইসোলেশনে আছে। বাসায় চিকিৎসা নিচ্ছে।’ কদিন আগেই ধুমধাম করে একমাত্র ছেলে ফারদিনের বিয়ে দিয়েছেন মৌসুমী ও ওমর সানী। বিয়ের দাওয়াতে আসা কয়েকজন আত্মীয়স্বজনও অসুস্থ হয়েছেন বলে নিশ্চিত করেছেন ওমর সানি। করোনা আক্রান্ত হয়ে ৩১ মার্চ থেকে বাসাতেই চিকিৎসা নিচ্ছিলেন অভিনেতা-নির্মাতা গাজী রাকায়েত। এর মধ্যে ফুসফুসের ২০ শতাংশে সংক্রমণ ছড়িয়েছে তার। বুধবার সকালে এই নির্মাতাকে জরুরি ভিত্তিতে রাজধানীর শমরিতা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বিষয়টি জানিয়েছেন অভিনেতা নিজেই। তিনি বলেন, ‘সিটি স্ক্যান করিয়েছিলাম। সেখানেই ফুসফুসের ইনফেকশনটি ধরা পড়ে। ২০ শতাংশ হওয়ায় দ্রুত হাসপাতালে ভর্তি হতে বলে আমার ভাই। সে নিজেও একজন চিকিৎসক।’ এদিকে দেশের আরেক স্বনামধন্য নির্মাতা চয়নিকা চৌধুরী করোনা পজিটিভ ফল হাতে পেয়েছেন। দুদিন ধরে নিজ বাসায় আইসোলেশনে আছেন তিনি। করোনা পজিটিভ হয়ে নয় দিন নিজ বাসায় ছিলেন অভিনেত্রী-নির্মাতা আফসানা মিমি। এর পর খানিক অবনতি অনুভব করায় ১ এপ্রিল ভর্তি হন রাজধানীর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে। এখনো সেখানেই আছেন, কেবিনে। প্রায় পুরোপুরি সুস্থবোধ করছেন। নেই কোনো করোনাকেন্দ্রিক জটিলতা। অপেক্ষা নেগেটিভ ফলাফলের। শ্যাম বেনেগাল পরিচালিত ‘বঙ্গবন্ধু’ বায়োপিকের শুটিংয়ে অংশ নিতে চিত্রনায়ক রিয়াজের মুম্বাই যাওয়ার কথা ছিল। করোনা পজিটিভ হওয়ায় আপাতত সেটি স্থগিত করেছেন বলে জানান তিনি।

প্রতিদিন নতুন নতুন বলিউড তারকার করোনায় আক্রান্ত হওয়ার খবর আসছে। অক্ষয় কুমার, তার নির্মনাধীন ‘রাম সেতু’ সিনেমার ৪৫ জন সহকর্মী, অভিনেতা গোবিন্দ, রণবীর কাপুর, ভিকি কৌশল এবং অভিনেত্রী আলিয়া ভাট, ক্যাটরিনা কাইফসহ অনেকেই করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। বলিউডের আলোচিত ছবি ‘থ্রি ইডিয়টস’-এর দুই ইডিয়টস ছিলেন আমির খান আর মাধবন। এই দুই তারকাও কিছুদিন আগে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হন। প্রথমে আমির, আর পরে মাধবন। ভক্ত-দর্শকদের অনেকে বলছেন, ‘ভাইরাস বোমা তা হলে ধরেই ফেলল তাদেরও!’

advertisement