advertisement
advertisement
advertisement
DBBL
advertisement
advertisement

ভোলায় ফেরিতে আগুনে পুড়ল ১০ গাড়ি

তদন্ত কমিটি গঠন

ভোলা (উত্তর) প্রতিনিধি
৯ এপ্রিল ২০২১ ০০:০০ | আপডেট: ৮ এপ্রিল ২০২১ ২২:৫৩
advertisement

ভোলার মেঘনায় ফেরিতে আগুন লেগে পুড়ে গেছে পণ্যবাহী ১০টি গাড়ি। এতে প্রায় ৮ কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করছে ফায়ার সার্ভিস। গতকাল বৃহস্পতিবার ভোর ৪টার দিকে ভোলা-লক্ষ্মীপুর রুটে চলাচলকারী কলমিলতা ফেরিতে এ অগ্নিকা- ঘটে। আগুন লাগার পর ফেরিতে থাকা যাত্রীরা দ্রুত বিভিন্ন ট্রলারে আশ্রয় নেন। ফলে কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি।

খবর পেয়ে ভোলা ফায়ার সার্ভিসের দুটি ইউনিট, নৌ-পুলিশ ও কোস্ট গার্ডের একটি দল সকাল ১০টার দিকে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয়। কিন্তু ততক্ষণে চারটি কাভার্ডভ্যান, তিনটি ট্রাক, একটি পিকআপ ও একটি মোটরসাইকেল সম্পূর্ণ পুড়ে যায়। এ ছাড়া আরও একটি

ট্রাক আংশিক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। ফেরিতে থাকা একটি পিকআপভ্যানের ককসিট থেকে আগুনের সূত্রপাত বলে প্রাথমিকভাবে নিশ্চিত হয়েছে ফায়ার সার্ভিস।

এদিকে দুর্ঘটনার কারণ অনুসন্ধানে অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট সুজিত হাওলাদারকে প্রধান করে পাঁচ সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করেছে জেলা প্রশাসন। আগামী সাত কার্যদিবসের মধ্যে তাদের প্রতিবেদন দাখিল করতে বলা হয়েছে।

ভোলার ইলিশা ফেরি ঘাটের টার্মিনাল অ্যাসিস্ট্যান্ট (টিএ) কামরুল ইসলাম জানান, ভোর ৩টার দিকে লক্ষ্মীপুরের মজুচৌধুরীরহাট ফেরিঘাট থেকে পণ্যবাহী ট্রাক নিয়ে ভোলার উদ্দেশে ছেড়ে আসে কলমিলতা নামের একটি ফেরি। ৪টার দিকে ওই রুটের মেঘনার বিরিবিরি বয়া নামক এলাকায় এসে হঠাৎ করেই ফেরিতে থাকা একটি গাড়িতে আগুন লেগে যায়। এতে মুহূর্তের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে।

খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিস, নৌপুলিশ ও কোস্ট গার্ডের টিম ৫ ঘণ্টা চেষ্টা চালিয়ে আগুন নেভাতে সক্ষম হয়। আগুনে ফেরির ক্ষতি না হলেও বিভিন্ন ধরনের অন্তত ১০টি গাড়ি পুড়ে গেছে।

ভোলা ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন কর্মকর্তা মো. শফিকুল ইসলাম জানান, ১৯টি গাড়ি নিয়ে ফেরিটি লক্ষ্মীপুর থেকে ভোলার দিকে ফিরছিল। এর মধ্যে আগুনে ১০টি গাড়ি পুড়ে যায়। ফেরি এবং আরও ৯টি গাড়ি আগুনের হাত থেকে রক্ষা করেন ফায়ার সার্ভিসকর্মীরা। এতে ৮ কোটি টাকার ক্ষতি হলেও রক্ষা করা গেছে অন্তত ১০ কোটি টাকার সম্পদ। দুর্ঘটনাকবলিত ফেরিটি মজুচৌধুরীরহাট এলাকায় নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

advertisement