কক্সবাজারে এক রাতে নিহত ৩

নিজস্ব প্রতিবেদক, কক্সবাজার ও টেকনাফ প্রতিনিধি
২৩ মার্চ ২০১৯ ০০:০০ | আপডেট: ২২ মার্চ ২০১৯ ২৩:৪৭

কক্সবাজারে কথিত বন্দুকযুদ্ধের দুই ঘটনায় এক রাতে তিনজন নিহত হয়েছেন। নিহতরা একাধিক মামলার আসামি ছিলেন বলে পুলিশের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে। গত বৃহস্পতিবার গভীর রাতে কক্সবাজার শহরের খুরুশকুল রাস্তারমাথাসংলগ্ন ব্রিজ এলাকায় এবং টেকনাফ সদর ইউনিয়নের রাজারছড়া এলাকায় ঘটনা দুটি ঘটে। এর মধ্যে টেকনাফে দুজন ও কক্সবাজারে একজন নিহত হন।

কক্সবাজার জেলা গোয়েন্দা পুলিশের ওসি মো. হুমায়ূন কবির জানান, ছিনতাইয়ের খবরে ডিবি পুলিশের একটি দল শহরের খুরুশকুল রাস্তারমাথাসংলগ্ন ব্রিজ এলাকায় অভিযান চালায়। টের পেয়ে ছিনতাইকারীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছুড়লে পুলিশ পাল্টা গুলি চালায়। একপর্যায়ে ছিনতাইকারীরা পালিয়ে গেলে ঘটনাস্থল থেকে একজনকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় উদ্ধার করা হয়। কক্সবাজার সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন। নিহতের নাম কোরবান আলী। তিনি কক্সবাজার শহরের মোহাজেরপাড়ার মোহাম্মদ হোসেনের ছেলে। কোরবানকে ‘চিহ্নিত ছিনতাইকারী’ দাবি করে ওসি হুমায়ূন জানান, ২০১৭ সালের ডিসেম্বর মাসে কক্সবাজার শহরের গোলচক্কর এলাকায় আবু তাহের সাগর নামের এক পর্যটক হত্যা মামলার আসামি সে। এ ছাড়া তার বিরুদ্ধে

মাদক ও অস্ত্রসহ বিভিন্ন অভিযোগে পাঁচটির বেশি মামলা রয়েছে। এসব মামলায় সে দীর্ঘদিন ধরে পলাতক ছিল। এ ছাড়া কোরবানের বড় ভাই মোহাম্মদ নিখিলও একজন তালিকাভুক্ত ছিনতাইকারী। তারা কক্সবাজার শহরের বিভিন্ন স্থানে ছিনতাই করত বলে জানান এই কর্মকর্তা।

এদিকে টেকনাফ সদর ইউনিয়নের রাজারছড়া এলাকায় রাত ২টায় মাদকবিরোধী অভিযানের মধ্যে কথিত বন্দুকযুদ্ধে পুলিশের গুলিতে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের তালিকাভুক্ত দুই ইয়াবাকারবারি নিহত হন বলে টেকনাফ থানার ওসি প্রদীপ কুমার দাশ জানান। নিহতরা হলেন টেকনাফ পৌরসভার নাজিরপাড়ার এজাহার মিয়ার ছেলে নূর মোহাম্মদ এবং জালিয়াপাড়ার আবদুর শুক্কুরের ছেলে নুরুল আমিন। নূর মোহাম্মদের বিরুদ্ধে মাদক পাচার, মানি লন্ডারিং ও সাংবাদিকদের ওপর হামলাসহ বিভিন্ন অভিযোগে ১০টি মামলা রয়েছে। আর নুরুলের বিরুদ্ধে মাদক পাচার, হত্যাসহ বিভিন্ন অভিযোগে অন্তত তিনটি মামলা রয়েছে বলে জানান ওসি প্রদীপ কুমার দাশ।