বঙ্গবন্ধুর নামে বিপিএল

ক্রীড়া প্রতিবেদক
১২ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ০০:০০ | আপডেট: ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ০০:০৪

চমকপ্রদ ঘোষণা দিলেন বিসিবি সভাপতি। বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকীকে সামনে রেখে এবারের বিপিএলের নামকরণ হয়েছে ‘বঙ্গবন্ধু বিপিএল’। গতকাল সংবাদমাধ্যমকে নাজমুল হাসান পাপন জানান, এ বছর টুর্নামেন্টটি ফ্র্যাঞ্চাইজিভিত্তিক হচ্ছে না। বিসিবির নিজস্ব ব্যবস্থাপনায় সব দল পরিচালনা করা হবে। পূর্বনির্ধারিত সময় ৬ ডিসেম্বর থেকেই মাঠে গড়াবে বিপিএল। উদ্বোধনী অনুষ্ঠান হবে ৩ ডিসেম্বর। বিসিবি সভাপতি জানিয়েছেন, ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলোর বিভিন্ন দাবি-দাওয়ার সঙ্গে মানিয়ে নিতে পারছে না বিসিবি। পাপন বলেন, ‘এখন আমাদের ফ্র্যাঞ্চাইজিদের সঙ্গে নতুন চুক্তি করার কথা। এর মধ্যে ওদের আমরা চিঠি দিয়ে বসেছিলাম। ওদের সঙ্গে বসে যা বুঝলাম, সরাসরি কথা বলে বা পত্রপত্রিকায় যা দেখলাম, তাতে বুঝলাম ওদের অনেক দাবিদাওয়া আছে। ওদের চাওয়া-পাওয়া আমাদের নিয়মের সঙ্গে মেলে না। আবার কিছু ফ্র্যাঞ্চাইজি বলেছেÑ একই বছরে দুটি বিপিএল হোক, এটি তারা চায় না। খেলবে না যে তা নয়। কিন্তু এতে ওদের ওপর চাপ বেশি হচ্ছে। আগামী বছর বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী। তার নামে বঙ্গবন্ধু বিপিএল চালাব। বিপিএলের ম্যানেজমেন্ট বিসিবি। ক্রিকেটারদের খাওয়া-দাওয়া, টাকা-পয়সাÑ সব আমরা দেখব। এতে সবাই খুশি হবেন। যারা খেলতে চাননি বা যারা বলেছেন আর্থিক ক্ষতি হবে, এবার তারা খুশি হবেন।’ বিসিবি সভাপতি জানান, খেলোয়াড়দের পেমেন্ট বিসিবি করবে। দলের নাম ঠিক থাকবে কিনা এটি স্পন্সরের ওপর নির্ভর করবে। কিছু না হলেও ঢাকা, চট্টগ্রাম, খুলনা এভাবে থাকবে। ড্রাফটে অকশন করে যার যার মতো করে টিম তৈরি করবে। সাকিবের ঢাকা ছেড়ে রংপুরে নাম লেখানোর বিষয়টিকে যে ভালোভাবে নেননি নাজমুল হাসান পাপন তাও বোঝা গেছে তার কথায়। বিসিবি সভাপতি বলেন, ‘আপনি আরেক দল থেকে চাইলেই খেলোয়াড় নিয়ে নিতে পারেন না। এটি তো সাকিব আরও বেশি জানে। ও তো দেশের বাইরে বেশি খেলতে যায়। বাংলাদেশে এসে সব সম্ভব হয়েছে। এগুলো আর হবে না। এবার থেকে আমরা যেটি করব সেটি সবাইকে মানতে হবে। একদম আইপিএল ফরম্যাট।’ ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলোর সঙ্গে বিপিএলের রেভিনিউ শেয়ারিং করা সম্ভব নয় বলেও সাফ জানিয়ে দিয়েছেন বিসিবি সভাপতি। তিনি বলেন, ‘ আমাদের ৮০ কোটি টাকা দিক, আমরা ৪০ কোটি দিয়ে দেব। ৮ কোটি টাকা করে নিত। আমরা সাত কোটি ছেড়েই দিয়েছি। মাত্র এক কোটি নিচ্ছি। আবার কি চায়? আমরা চাই যারা বিপিএলে আসবে তারা বিপিএলে খেলার উন্নয়ন, খেলোয়াড়ের উন্নয়নের জন্য আসবে। ব্যবসা করার জন্য নয়।’ নাজমুল হাসান পাপন জানিয়ে দিয়েছেনÑ যদি প্রয়োজন হয় বিসিবি এটি নিয়মিত করবে। তিনি বলেন, ‘আমরা সব আইন লিখে একটা বুকলেট তৈরি করে দেব। যাদের আসতে মন চায় আসবে, যাদের মন না চায় আসবে না। কিন্তু এসে কোনো নিয়ম-কানুন ভঙ্গ করতে পারবে না।’